×

সুখবর! ২ লক্ষ টাকা ঋণ দিচ্ছে রাজ্য, কীভাবে করবেন আবেদন? পড়ুন বিস্তারিত

 
 

কলকাতা: বেকার যুবক-যুবতীদের আর্থিকভাবে সাবলম্বী করতে কর্মসাথী প্রকল্পের বিজ্ঞপ্তি জারি করল রাজ্য সরকার৷ এমএসএমই দফতরের তরফে এই বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে৷ অর্থাৎ এই প্রকল্পে ঋণ নিয়ে ক্ষুদ্র ও মাঝারি মাপের ব্যবসা শুরু করতে পারবে রাজ্যের যুব সমাজ৷ ১৮ থেকে ৫০ বছর বয়সীরা এই প্রকল্পের আবেদন করতে পারবেন৷ পাওয়া যাবে ২ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ঋণ৷

আরও পড়ুন- রবীন্দ্র সরোবরেই হোক ছট পুজো, সুপ্রিম কোর্টে যাচ্ছে পুরসভা! ভর্ৎসনা পরিবেশ আদালতে


৯ সেপ্টেম্বর  প্রকাশিত গেজেট নোটিফিকেশনে ‘কর্মসাথী’র খুঁটিনাটি বিষয় সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরা হয়েছে৷ কারা আবেদন করতে পারবেন, এই প্রকল্প থেকে কী কী সুবিধা পাওয়া যাবে, কত টাকা পর্যন্ত ঋণ পাওয়া যাবে সবকিছুরই উল্লেখ করা হয়েছে গেজেটে৷

গেজেট রাজ্যের

গেজেটে বলা হয়েছে, এই পরিকল্পনায় যাঁরা আবেদনপত্র জমা দিতে চাইবেন, তাঁদের সহায়তার জন্য ‘কর্মশক্তি অ্যাসিস্ট্যান্ট ডেস্ক’ খোলা হবে৷ প্রতি বছর ১ লক্ষ বেকার যুবক-যুবতীকে সরকারের ‘কর্মসাথী প্রকল্প’-এ ঋণ এবং ভর্তুকি দেওয়া হবে।  গ্রাম হোক বা শহর, যে কোনও জায়গায় বেকার যুবক-যুবতীই এই প্রকল্পের অধীনে ঋণের আবেদন করতে পারবেন৷ যাঁদের আগে থেকেই এমপ্লয়মেন্ট ব্যাঙ্কে নাম অন্তর্ভুক্ত রয়েছে, তাঁরা অগ্রাধিকার পাবেন৷ এই প্রকল্পে আবেদনের জন্য আবেদনকারীকে ন্যূনতম অষ্টম শ্রেণি পাশ হতে হবে৷ একটি পরিবার থেকে একজনই আবেদন করতে পারবেন৷ পরিবার বলতে এখানে বাবা-মা এবং স্ত্রী বা স্বামী বোঝানো হয়েছে৷ 


উৎপাদন, পরিষেবা বা ব্যবসা-বাণিজ্যের জন্য ২ লক্ষ টাকা পর্যন্ত সফট লোন এবং ভর্তুকি দেওয়া হবে৷ তবে প্রকল্প মূল্যের ৫ থেকে ১০ শতাংশ টাকা আবেদনকারীকেই জোগাড় করতে হবে৷ ৫০  হাজার টাকা পর্যন্ত প্রকল্পের জন্য ৫ শতাংশ এবং ৫০ হাজার থেকে ২ লক্ষ টাকা পর্যন্ত প্রকল্পে আবেদনকারীকে ১০ শতাংশ টাকা জোগাড় করতে হবে৷ তবে তফশিলি জাতি-উপজাতি, সংখ্যালঘু এবং মহিলা আবেদনকারীদের উভয় ক্ষেত্রেই ৫ শতাংশ টাকা জোগাড় করলেই হবে৷ প্রকল্পের শুরুতে ১৫ শতাংশ টাকা ভর্তুকি হিসাবে দেবে সরকার৷  বাকি ৭৫ অথবা ৮০ শতাংশ টাকা কম সুদে দেবে রাজ্য সমবায় ব্যাঙ্ক। সময় মতো ঋণ পরিশোধ করলে মোট সুদের ৫০ শতাংশ ফেরত পাওয়া যাবে৷ দুটি পর্যায়ে উদ্যোগীদের ঋণ দেওয়া হবে৷ প্রথম দফায় ঋণ দেওয়ার পর খরচের খতিয়ান জমা দিত হবে৷ এর পরে দেওয়া হবে দ্বিতীয় দফার ঋণ৷ 

আরও পড়ুন- করোনা আক্রান্ত স্ত্রী, হোম কোয়রান্টিনে সূর্যকান্ত


বিডিও, এসডিও এবং কলকাতার ক্ষেত্রে কলকাতা পুরসভায় কর্মসাথী প্রকল্পের আবেদনপত্র জমা দেওয়া যাবে৷ অনলাইন-অফলাইন দুই পদ্ধতিতেই জমা দেওয়া যাবে৷ আবেদন করার জন্য লাগবে সচিত্র পরিচয় পত্র, শিক্ষাগত যোগ্যতার প্রমাণ, বয়সের প্রমাণ, স্থায়ী ঠিকানা৷

 

কর্মসাথী প্রকল্পে আবেদনের ফর্ম

From around the web

Education

Headlines