×

টুইটার কিনে নিলেন ইলন মাস্ক, অধিগ্রহণের পরেই  ছাঁটাই সিইও পরাগ

 
পরাগ

নিউ ইয়র্ক: শেষমেষ টুইটার কেনার চুক্তি সম্পন্ন৷ মাইক্রোব্লগিং সাইট কিনে নিলেন ধনকুবের ইলন মাস্ক। কিন্তু, টুইটার অধিগ্রহণ করতেই ছাঁটাইয়ের পথে হাঁটলেন তিনি৷ সরিয়ে দেওয়া হল টুইটার সিইও পরাগ আগরওয়ালকে৷ এমনটাই সিএনবিসি-র রিপোর্টে এমনই দাবি করা হয়েছে। শুধু পরাগকেই নয়, ছাঁটাই করা হয়েছে টুইটারের চিফ ফাইন্যানশিয়াল অফিসার নেড সেয়গাল, সিএফও এবং আইন বিভাগের প্রধান বিজয়া গাড্ডেকেও৷ জানা গিয়েছে, ইতিমধ্যেই সানফ্রান্সিসকোয় টুইটারের সদর দফতর ছেড়েছেন পরাগ।

আরও পড়ুন- চোখ ধাঁধাঁনো অন্দরসজ্জা, কী নেই সেখানে! বিলাসবহুল বুর্জ খলিফায় একটি ফ্ল্যাটের দাম কত জানেন?

উল্লেখ্য, এর আগে কিন্তু টুইটারের সঙ্গে চুক্তি বাতিল করার পথে হেঁটেছিলেন ইলন মাস্ক। এমনকি জল আদালত পর্যন্ত গড়ায়। এরই মধ্যে আচমকা টুইস্ট৷ সম্প্রতি মাস্ক জানান, পূর্ব ঘোষণা মতো তিনি টুইটার কিনতে ইচ্ছুক। এর পরেই টুইটার কেনার চুক্তি সম্পন্ন করেন টেসলার সিইও। একটা সময় টুইটারের বিরুদ্ধে জালিয়াতির অভিযোগ এনেছিলেন মাস্ক। তাঁর অভিযোগ ছিল, ৪৪ মিলিয়ন ডলারের চুক্তির সময় টুইটারের তরফে তাঁকে বিভ্রান্তিকর তথ্য দেওয়া হয়েছিল। এই পরিস্থিতিতে চুক্তি বাতিল না করে তা সম্পন্ন করার জন্য  মাস্কের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে টুইটার।


বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এক বিবৃতি দিয়ে মাস্ক জানান, তিনি টুইটার অধিগ্রহণ করছেন। 'মানবতার স্বার্থেই' তাঁর এই পদক্ষেপ৷ এ নিয়ে মাস্কের টুইট,  ‘‘কেন আমি টুইটার অধিগ্রহণ করলাম সেই বিষয়টা সকলের সঙ্গে ভাগ করে নিতে চাই৷ আরও অর্থ উপার্জনের জন্য টুইটার কিনিনি। মানবতার স্বার্থে কিনেছি। মানবতার জন্য একটা ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম থাকা দরকার যেখানে সমস্ত পক্ষের স্বাধীন মতামত প্রকাশের একটা ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম থাকবে। সুস্থ পরিবেশে বিতর্ক হবে।’’ পাশাপাশি মাস্ক আরও বলেন, ‘‘বর্তমানে বিপজ্জনক পরিস্থিতি তৈরি হচ্ছে, যেখানে সমাজমাধ্যম কট্টর দক্ষিণপন্থী ও কট্টর বামপন্থীদের কয়েকটি গোষ্ঠীতে ভাগ হতে চলেছে। যা সমাজে ঘৃণা, বিদ্বেষ ও বিভাজন বাড়িয়ে তুলবে।’’


 

From around the web

Education

Headlines