×

‘দলের প্রতি অসৎ হতে পারব না’, টেস্ট ক্রিকেটেও অধিনায়কত্ব থেকে সরে দাঁড়ালেন  কোহলি

 
কোহলি

নয়াদিল্লি:  টি-২০’র পর এবার টেস্ট ক্রিকেটেও অধিনায়কত্ব ছাড়লেন বিরাট কোহলি৷ শনিবার টুইট করে নিজের সিদ্ধান্তের কথা জানান তিনি৷ বিসিসিআইয়ের সঙ্গে বিবাদ আর দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে সিরিজ হারানোর পরেই এই সিদ্ধান্ত নেন কোহলি৷

আরও পড়ুন- ব্যাডমিন্টনের দুনিয়ায় নতুন সূর্যোদয়, প্রথম ভারতীয় কিশোরী হিসেবে বিশ্বে ১ নম্বর গুজরাতের তাসনিম

এদিন কোহলি তাঁর বিবৃতিতে বলেন, ‘‘গত সাত বছর ধরে প্রতিদিন কঠোর পরিশ্রম, নিরলস অধ্যাবসায়ে দলকে একটা সঠিক দিশায় এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেছি। সম্পূর্ণ সততার সঙ্গে এই কাজ করে গিয়েছি এবং কোনও কিছুই বাদ রাখিনি। কোনও একটা স্তরে পৌঁছনোর পর সবকিছুই থেমে যায়। টেস্ট দলের অধিনায়ক হিসেবেও  আমার থেমে যাওয়ার সময় এসে গিয়েছে।’’ কোহলি আরও লিখেছেন, ‘‘এই যাত্রাপথে অনেক উত্থান এবং কিছু পতন হয়েছে। কিন্তু কখনওই চেষ্টা বা বিশ্বাসের কমতি হয়নি। আমি সব সময় নিজের ১২০ শতাংশ দেওয়ার চেষ্টা করেছি। যদি সেটা না পারি, তাহলে এটা সঠিক কাজ নয়। দলের প্রতি অসৎ হতে পারব না।’ কোহলি ধন্যবাদ জানিয়েছেন মহেন্দ্র সিং ধোনিকে৷ তিনি লিখেছেন, এমএসকে সবচেয়ে বেশি ধন্যবাদ জানাই৷ ভারতীয় দলকে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারব, এটা ওঁর বিশ্বাস ছিল৷’’


 

টি-২০ বিশ্বকাপের অধিনায়কত্ব আগেই ছাড়েন বিরাট। তবে ওয়ানডে এবং টেস্টে ম্যাচে অধিনায়কত্ব করার ইচ্ছাপ্রকাশ করেছিলেন তিনি। কিন্তু বিশ্বকাপে ভারতীয় দলের ব্যর্থতার পর তাঁকে ওয়ানডে ম্যাচের অধিনায়কত্ব থেকেও সরিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় বিসিসিআই। যা নিয়ে বোর্ড এবং কোহলির মধ্যে চাপানোতরও চলছে। বিসিসিআইয়ের বক্তব্য, বিরাটকে অনুরোধ করা হয়েছিল, তিনি যেন টি-২০ অধিনায়কত্ব না ছাড়েন৷ নির্বাচক থেকে বোর্ডের আধিকারিক, সকলেই তাঁকে অনুরোধ করেছিলেন৷ বিরাট সেই অনুরোধ রাখেননি। কিন্তু সীমিত ওভারের ক্রিকেটে দু’জন অধিনায়ক রাখার পক্ষে সায় নেই নির্বাচকরা। তাই ওয়ানডে অধিনায়কের পদ থেকে তাঁকে সরিয়ে রোহিতকে দুই ফরম্যাটেই ক্যাপ্টেন করা হয়। এবার টেস্ট ক্রিকেটেও অধিনায়কের পদ থেকে সরে দাঁড়ালেন কোহলি৷  
 

From around the web

Education

Headlines