×

হাড্ডাহাড্ডি লড়াই শেষে সুপার টাই ভেঙে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের মিক্সড ডাবলসের ফাইনালে সানিয়া-বোপান্না

 
সানিয়া বোপান্না

নয়াদিল্লি: রোহন বোপান্নার সঙ্গে জুটি বেঁধে জীবনের শেষ গ্ল্যান্ডসাম জয়ের দোরগোড়ায় ভারতীয় টেনিস তারকা সানিয়া মির্জা৷ সেমিফাইনালে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের পর টাই ব্রেকে গড়ায় ম্যাচ৷ অবশেষে গ্রেট ব্রিটেনের নিল স্কুপস্কি এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ডেজরে ক্রাফচেক জুটির বিরুদ্ধে জিত হাসিল করে নেয় ভারতীয় জুটি৷ দীর্ঘ টেনিস জীবনে রূপকথার সমাপ্তি থেকে আর মাত্র এক ধাপ দূরে ভারতের এ টেনিস কিংবদন্তী৷ অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের মিক্সড ডাবলসের ফাইনালে পৌঁছে যায় সানিয়া মির্জা এবং রোহন বোপান্নার জুটি। খেলার ফল সানিয়াদের পক্ষে ৭-৬ (৭-৫), ৬-৭ (৫-৭), ১০-৬।

আরও পড়ুন- তিন বছর পর সেঞ্চুরি করলেন 'হিটম্যান', ODI-তে টপকালের পন্টিংকে


অস্ট্রেলিয়ান ওপেনই হবে সানিয়ার পেশাদার টেনিস জীবনের শেষ গ্র্যান্ড স্ল্যাম। ফলে এই গ্র্যান্ড স্লাম নিশ্চিত ভাবেই গুরুত্বপূর্ণ। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে মহিলাদের ডাবলসের দ্বিতীয় রাউন্ডে বিদায় নেন সানিয়া৷ এর পর একরাশ আশা জাগিয়ে বোপান্নাকে নিয়ে মিক্সড ডাবলসের ফাইনালে পৌঁছে গেলেন ভারতের সেরা মহিলা টেনিস খেলোয়াড়।

কোয়ার্টার ফাইনালে অবশ্য কোর্টে নামতে হয়নি সানিয়া-বোপান্না জুটিকে। তাঁরা ওয়াক ওভার পেয়ে যান। তবে সেমিফাইনালের লড়াইটা মোটেও সহজ ছিল না। সানিয়াদের প্রতিপক্ষ ছিল প্রতিযোগিতার তৃতীয় বাছাই স্কুপস্কি-ক্রাভচেক জুটি। ১ ঘণ্টা ৫২ মিনিট সমানে সমানে টক্করের পর অভিজ্ঞতার উপর ভিত্তি করে দিয়ে ম্যাচ বের করে আনেন সানিয়ারা। তবে শুরু থেকেই ভারতীয় জুটির তুলনায় স্কুপস্কি-ক্রাভচেক জুটিকে বেশি সপ্রতিভ দেখিয়েছে। তারা সাতটি ‘এস’ সার্ভিস করেছেন। সেখানে সানিয়াদের ‘এস’ সার্ভিসের সংখ্যা চারটি। উভয় পক্ষই তিনটি করে ডাবল ফল্ট করেছে। যেখানে সানিয়াদের ৭৩ শতাংশ প্রথম সার্ভিস ঠিকঠাক হয়েছে, সেখানে প্রতিপক্ষের ৮০ শতাংশ। তবুও প্রথম সেটে টাইব্রেকারে জিতে যায় সানিয়া-বোপান্না জুটি। দ্বিতীয় সেটেও ছিল জয়ের হাতছানি৷ কিন্তু, টাইব্রেকারে একাধিক আনফোর্সড এরর করে ম্যাচ জেতার সুযোগ হাতছাড়া হয় তাঁদের৷

প্রথম দু’সেটের পর ফলাফল ১-১ হওয়ায় সুপার টাই ব্রেকে পৌঁছয় গেম৷ টাই ব্রেকে সেমিফাইনালের ফয়সালা হয়। সেখানেই কাজে আসে অভিজ্ঞতা৷  সুপার টাই ব্রেকের প্রথম থেকেই এগিয়ে যায় সানিয়া-বোপান্না জুটি। মাঝে কিছুটা চাপ তৈরি হলেও ৮-৬ ব্যবধানে এগিয়ে থাকার সময় সানিয়ার একটি অনবদ্য ব্যাক হ্যান্ড রিটার্নেই ম্যাচের ফলাফল লেখা হয়ে যায়। এর পর জয়ের জন্য প্রয়োজনীয় এক পয়েন্ট সহজেই পকেটে পুড়ে নেন ভারতীয় টেনিস জুটি৷ 

From around the web

Education

Headlines