×

নেইমারের চোট নিয়ে ভক্তদের আশঙ্কা বাড়ালেন চিকিৎসক! মুখ খুললেন কোচ

 
neymar

দোহা: বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে দুই দলের জন্য অঘটন ঘটেছে। আর্জেন্টিনা এবং জার্মানি হেরে গিয়েছে অপেক্ষাকৃত ছোট দলের কাছে। পর্তুগাল, স্পেন, ব্রাজিলকে চিন্তা ছিল সমর্থকদের মনে। কিন্তু তিন দলই প্রত্যাশিত জয় পেয়েছে। কিন্তু জয়ের পরেও একরাশ চিন্তা ঘিরে ধরেছে সাম্বা সমর্থকদের। তার কারণ, ব্রাজিলের 'পোস্টার বয়' নেইমার সার্বিয়ার বিরুদ্ধে প্রথম ম্যাচেই গুরুতর চোট পেয়েছেন। তাঁকে নিয়ে আশঙ্কা আরও তৈরি হচ্ছে কারণ নেইমার গোটা ম্যাচ না খেলেই মাঠ ছাড়তে বাধ্য হয়েছিলেন। ডাগ আউটে বসে তাঁকে কাঁদতেও দেখা গিয়েছে। তাহলে কি সত্যিই বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে যাচ্ছেন হলুদ বাহিনীর এই তারকা স্ট্রাইকার?

আরও পড়ুন- নেইমারের মঞ্চে নায়ক রিচার্লিসন, বাইসাইকেল কিকে গোল, জিতল ব্রাজিল

ব্রাজিলের প্রথম ম্যাচ যারা দেখেছেন তারা জানবেন যে, খেলা শুরুর দিক থেকেই ক্রমাগত নেইমারকে নিশানা করে গিয়েছে সার্বিয়া। তিনি যখনই বল পেয়েছেন তখনই তাঁকে আটকাতে তীব্র প্রচেষ্টা করা হয়েছে। হিসেব বলছে, প্রথমার্ধেই পাঁচবার ফাউল করা হয় ব্রাজিলের তারকাকে। যতক্ষণ তিনি খেলেছেন তার মধ্যে অন্তত ১২-১৪ টি ফাউল হয়েছে নেইমারের বিরুদ্ধে। শেষে আর ম্যাচে থাকতে পারেননি তিনি। ম্যাচের ৮০ মিনিটের মাথায় পায়ে গুরুতর চোট পান নেইমার এবং মাঠ ছাড়েন। দেখা যায়, তাঁর ডান পায়ের গোড়ালি ফুলে গিয়েছে। বেঞ্চে বসে পায়ে বরফ ঘষতেও দেখা যায় তাঁকে, আবার তাঁর কান্নাও চোখে পড়ে। সেই দৃশ্য দেখেই চিন্তিত আপামর ব্রাজিল সমর্থকরা। আর আরও বেশি চিন্তা বাড়ছে দলের চিকিৎসকের কথা শুনে।

ব্রাজিল ফুটবল দলের চিকিৎসক নেইমারের চোট নিয়ে জানিয়েছেন, এই চোট তাঁর ওপর 'ডিরেক্ট ট্রমা' বা সরাসরি আঘাত। অর্থাৎ এক কথায় এটা বোঝা যাচ্ছে যে, নেইমারের পায়ের চোট খুব একটা হালকা নয়। তবে চিকিৎসক এও জানান, নেইমারের চোট নিয়ে বেঞ্চেই চিকিৎসা শুরু হয়ে যায়৷ ফিজিও তাঁকে দেখেছেন তবে ২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টা তাঁকে পর্যবেক্ষণে থাকতে হবে৷ এমআরআই করা হয়নি। সেটা করেই নিতে হবে যাবতীয় সিদ্ধান্ত। এদিকে, ব্রাজিলের পরের ম্যাচ ২৮ তারিখ, সুইৎজারল্যান্ডের বিরুদ্ধে৷ আর তার পরের ম্যাচ ৩ ডিসেম্বর, ক্যামরুনের বিরুদ্ধে। সেই ম্যাচগুলিতে নেইমারকে মাঠে নামতে দেখা যায় কিনা সেটা দেখার।

আরও পড়ুন- ক্রোয়েশিয়ার ‘সেক্সিয়েস্ট’ ফ্যান! দলের সমর্থনে এই বিশ্বকাপেও নিরাবরণ ইভানা

যদিও দলের কোচ তিতে সমর্থকদের বিরাট স্বস্তি দিয়েছেন। তাঁর স্পষ্ট বক্তব্য, সবে একটা ম্যাচ খেলা হয়েছে। নেইমার চোট পেলেও তিনি যে বিশ্বকাপ খেলতে পারবেন না এমনটা একদমই নয়। ম্যাচ চোট পাওয়ার পরেও সে থাকতে চেয়েছিল কিন্তু তাঁকে তুলে নেওয়া হয় সতর্ক হয়েই। এমনটাই জানান তিনি। তিতে আরও বলেন, নেইমার বিশ্বকাপ খেলবে, পুরোটাই খেলবে। এতে কোনও সন্দেহ নেই।

From around the web

Education

Headlines