×

অত্যাচার হয়েছে, মৃত্যুভয়ও ছিল, তাও সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে আসেননি শ্রদ্ধা! কেন

 
sra-aftb

নয়াদিল্লি: শ্রদ্ধা ওয়াকার। এই নামটা শুনেই গোটা দেশ শিহরিত হচ্ছে। কারণ তাকে তার প্রেমিক খুন করে ৩৫ টুকরো করেছে। ভয়ানক বললেও কম বলা হয় এমন একটি ঘটনাকে কেন্দ্র করে ইতিমধ্যেই একাধিক তাজ্জব করা তথ্য সামনে এসেছে। জানা গিয়েছে, দীর্ঘ সময় ধরে লিভ-ইন করলেও শ্রদ্ধা এবং তার প্রেমিক আফতাবের মধ্যে সম্পর্ক শেষ দিকে একদম ভাল ছিল না। মারধর করা থেকে শুরু করে খুনের ভয়, সবই সহ্য করেছিল শ্রদ্ধা। কিন্তু কেন সে এই সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে আসেনি? পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে খোলসা করেছেন তারই এক বন্ধু।

আরও পড়ুন- শ্রদ্ধার কাটা মুন্ডুর সঙ্গে কথা বলতেন, মেক আপ করাতেন, রেগে গেলে চড়ও মারতেন আফতাব!

ছ'মাস আগে আফতাব খুন করেছে শ্রদ্ধাকে। তারপর তার দেহ ৩৫ টুকরো করে জঙ্গলে ফেলেছে। তবে জঙ্গলে একটা একটা করে টুকরো ফেলে দেওয়ার আগে বাড়িতেই তা রেখেছিল ফ্রিজে। এছাড়াও আরও নৃশংস তথ্য সামনে আসছে। তবে একটা জিনিস কিছুতেই কারোর মাথায় ঢুকছে না যে শ্রদ্ধা কেন আফতাবকে ছেড়ে গেল না। ইতিমধ্যে পুলিশ তার একাধিক বন্ধুবান্ধবকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে। তাতেই এই বিষয়টি খোলসা করেছে এক বন্ধু। সে পুলিশকে জানিয়েছে, শ্রদ্ধা খুবই আবেগপ্রবণ ছিল আফতাবকে নিয়ে। ঘনিষ্ঠ ভাবে এই সম্পর্কে সে জড়িয়ে পড়েছিল, তাই ফ্ল্যাট থেকে বেরিয়ে আসব ভেবেও সে আসতে পারেনি। যদিও বহুবার মেসেজ করে শ্রদ্ধা যে বন্ধুর থেকে সাহায্য চেয়েছিল তাও পুলিশ জানতে পেরেছে।

শ্রদ্ধাকে শেষদিকে ব্যাপক মারধর করত আফতাব। এমনকি এও জানা গিয়েছে, সে তাকে খুনের পরিকল্পনা অনেক দিন আগেই করেছিল কিন্তু শ্রদ্ধার আবেগ দেখে নিজেকে সংযত করে রেখেছিল। যদিও শ্রদ্ধা অনেক আগেই তার বন্ধুর কাছে দাবি করেছিল যে তার জীবন নরক হয়ে যাচ্ছে। আফতাব যে তাকে খুন করতে পারে সেও আশঙ্কা ছিল তার। কিন্তু তার আবেগ তাকে বুদ্ধি দিয়ে বিচার করতে দিল না।

From around the web

Education

Headlines