×

পরকীয়ায় মত্ত রাজ! সোশ্যাল মিডিয়ায় পঞ্চম স্বামীকে ধুয়ে দিলেন পরীমনি

 
পরীমনি

ঢাকা: চলতি বছর জানুয়ারি মাসে ধুমধাম করে গাঁটছড়া বেঁধেছিলেন বাংলাদেশের বিতর্কিত অভিনেত্রী পরীমনি ও অভিনেতা শরিফুল ইসলাম রাজ। তখন পরী অন্তঃসত্ত্বা। অগাস্ট মাসে সন্তানের জন্ম দেন অভিনেত্রী। প্রেগন্যান্সির সময় একটি ছবি পোস্ট করেছিলেন নায়িকা৷ যেখানে পরীমণিকে আগলে রেখেছিলেন তাঁর স্বামী রাজ৷ আর পরীমনি আগলে রেখেছিলেন তাঁর বেবিবাম্প৷ ক্যাপশনে লিখেছিলেন, "মায়ার মুহূর্তরা পৃথিবীর সমস্ত সুখ এক করে দেয়"৷ তাঁদের মাখোমাখো প্রেমে মজেছিল গোটা নেটদুনিয়া। কিন্তু, বিয়ের বছর ঘোরার আগেই ছন্দপতন৷ রাজ নাকি পরকীয়ায় মত্ত৷ সত্যিই কি তাই? জবাব জানার অপেক্ষায় ছিলেন সিনেপ্রেমীরা৷ সোশ্যাল মিডিয়ায় মিলল সেই জবাব৷ স্বামীর ব্যাভিচার নিয়ে সরব হলেন খোদ পরীমনি৷ 

আরও পড়ুন- হঠাৎ করে অবস্থার অবনতি, ঐন্দ্রিলার সংক্রমণ নিয়ে চিন্তায় চিকিৎসকরা

দুই পরিবারের আশীর্বাদ নিয়ে সুখেই সংসার করছিলেন পরী এবং রাজ। কিন্তু, আচমকাই অশান্তির কালো মেঘ। কানাঘুষো, বাংলাদেশেরই এক অভিনেত্রীর সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছেন পরীর স্বামী৷ এ নিয়ে জল্পনা যখন তুঙ্গে তখন জল্পনায় সিলমোহর দিলেন খোদ পরীমনি। সোশাল মিডিয়ায় স্বামীর দিকে অভিযোগের আঙুল তুললেন অভিনেত্রী। রাজ এবং তাঁর মাঝে চলে আসা তৃতীয় ব্যক্তিকে রীতিমতো ধুয়ে দিলেন তিনি৷ 


কিন্তু, এই তৃতীয় ব্যক্তিটি কে? বলে রাখা ভালো,  তিনিও কিন্তু বাংলাদেশে বেশ জনপ্রিয়৷ তিনি আর কেউ নন, সে দেশের জনপ্রিয় নায়িকা বিদ্যা সিনহা সাহা মিম। সম্প্রতি রাজের সঙ্গে পরাণ এবং দামাল ছবিতে স্ক্রিন শেয়ার করেছেন অভিনেত্রী৷ পর্দায় দু’জনের কেমিস্ট্রি ছিল দুরন্ত। কিন্তু, রিল লাইফ ছেড়ে রিয়েল লাইফেও নাকি জমে উঠেছে  সম্পর্কের জমাটি রসায়ন৷ দু’জনে নাকি আড়ালে প্রেম করছেন। অন্তত এমনটাই কানাঘুষো চলছিল। আর যা রটে তার কিছু তো বটে! এমতাবস্থায় পরিস্থিতি উত্তপ্ত করে ফেসবুক অ্যাকাউন্টে মিমকে ট্যাগ করে পরী লিখলেন, ‘‘নিজের স্বামীকে নিয়ে সন্তুষ্ট থাকা উচিত ছিল।’’


পরীমনির রোশের আগুনে পুড়েছেন রাজও৷  স্বামীকে একহাত নিয়ে পরীমনি  লেখেন, "ব্যাপারটাকে এত দূর গড়াতে দেওয়া উচিত হয়নি তোমার।" এখানেই থামেননি নায়িকা৷ দামাল ছবির পরিচালক রেহান রফিকে ট্যাগ করে লিখলেন, ‘‘সিনেমার সঙ্গে দালালিটাও ভালো করেন দেখছি!’’ পরীমনির এই ঝাঁঝালো ফেসবুক স্ট্যাটাস দেখে হইচই পড়েছে বাংলাদেশে। গুঞ্জন চলছে এপাড় বাংলাতেও৷  পরীকে অনেকেরই পরামর্শ, দাম্পত্য কলহকে এভাবে নেটপাড়ায় টেনে আনবেন না৷ এমনই এক নেটিজেনের পরামর্শের জবাবে একহাত নিয়ে পরী লেখেন, "ভাইয়া... সবসময় সব বিষয় লিভিং রুমে থাকে না। সরি।"  


 

From around the web

Education

Headlines