×

‘বিয়ে করে বাবা হতে চলেছে, আর স্কুলে যাব না,’ ১৭ বছরেই স্কুল-ছুট একাদশের পড়ুয়া!

 
পড়ুয়া

কলকাতা:  করোনার থাবায় গত বছর মার্চ থেকে বন্ধ রয়েছে স্কুল-কলেজ৷ স্কুলের পাঠ বন্ধ হতেই সোজা বিয়ের পিড়িতে বসেছে সন্দেশখালি রাধারানি হাইস্কুলের এক ছাত্র! দীর্ঘ দিন পর মঙ্গলবার থেকে নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির জন্য স্কুল খুলে দেওয়া হয়েছে৷ কিন্তু আপাতত নিজের কাজ নিয়েই ব্যস্ত সে৷ আরও মন দিয়ে কাজ করতে চায় ওই পড়ুয়া৷ কারণ তাঁর কাঁধের উপর এখন অনেক দায়িত্ব৷ স্কুল নিয়ে খুব একটা চিন্তিত নয় সে৷ 

আরও পড়ুন- সব ঠিকঠাক চলছে তো? প্রতিদিন রিপোর্ট দিতে হবে স্কুলগুলিকে


সন্দেশখালির নস্কর পাড়ার বাসিন্দা ওই পড়ুয়া ২০২০ সালে মাধ্যমিক পরীক্ষা দেয়৷ তার পরেই বন্ধ হয়ে যায় স্কুল৷ তার পর থেকেই বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে ঘুরে কাজ খুঁজেছে৷ আর সেই সঙ্গে টুক করে বিয়েটাও সেরে ফেলেছে ১৭ বছরের ওই নাবালক৷ এমনকী খুব শীঘ্র বাবাও হতে চলেছে সে৷ তাই এখন আরও বেশি করে কাজ করতে চাইছে ওই পড়ুয়া৷ সম্প্রতি হুগলিতে গাড়ি চালানোর কাজ পেয়েছে৷ আপাতত শ্বশুরবাড়িতেই আছে৷ তাঁর কথায়, ‘স্কুল খুলেছে কয়েকদিন পর যাব৷ আমি বাবা হতে চলেছি৷ তাই পড়াশোনার পাশাপাশি মন দিয়ে কাজটাও করতে হবে৷’   


তবে শুধু ওই ছাত্রই নয়, লকডাউনে বিয়ে করেছে আরও অনেক নাবালক-নাবালিকাই৷ রাধারানি হাই স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক বিকাশচন্দ্র পাল বলেন, ‘‘গত দেড় বছরে স্কুলের অনেক ছাত্রছাত্রীই বিয়ে করে নিয়েছে৷ ক’দিন আগে মাধ্যমিক পাশ করা এক ছাত্রী স্কুলে এসেছিল৷ দেখা মনে হল মা হতে চলেছে৷ তাই আর একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি হয়ে ওঠা হল না৷ তবে কিছু কিছু পড়ুয়া স্কুলের সঙ্গে যুক্ত থাকবে সরকারি প্রকল্পের জন্য৷ কিন্তু পড়াশোনাটা আর হবে না৷’ স্কুল খুললেও কাজ ছেড়ে আর পড়াশোনার দুনিয়ায় ফেরার ইচ্ছা নেই অনেকেরই৷ তেমনই একজন গোবিন্দকাটি শিত্রানিকেতনের নবম শ্রেণির পড়ুয়া৷ 


স্কুল বন্ধ হওয়ার পর দাদার হাত ধরে হাওড়ার সুইচ বোর্ড তৈরির কারখানায় কাজে ঢুকেছিল সে৷ তার দাদা কলেজে ভর্তি হয়েছে৷ কিন্তু ভাই আর স্কুলে ফেরেনি৷ আপাতত তার উপার্জনের টাকাতেই সংসার চলছে৷ এমনকী দাদার পড়াশোনার খরচও চালাচ্ছে৷ আবার কনকনগর এসডি ইনস্টিটিউশনের দ্বাদশ শ্রেণির এক পড়ুয়া স্কুল বন্ধ হওয়ার পর তামিলনাড়ুতে কাজে চলে যায়৷ তবে তার মা চান ছেলে অন্তত উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষাটা দিক৷ পরীক্ষার আগে ছেলেরে ফিরে আসতে বলবেন বলেও জানান তিনি৷ করোনার সঙ্গে যুদ্ধ করে স্কুল খুলেছে ঠিকই৷ কিন্তু গত দেড় বছরে স্কুলে সঙ্গে সম্পর্কে একটা ছেদ পড়েছে৷ এই দূরত্ব খুব শীঘ্র ঘোঁচানো সম্ভব হবে না বলেই মনে করা হচ্ছে। 

From around the web

Education

Headlines