Aajbikel

রিলায়েন্স-ফিউচারের বিরুদ্ধ মামলায় আদালতের রায়ে এগিয়ে অ্যামাজন, অস্বস্তিতে আম্বানী

 | 
রিলায়েন্স-ফিউচারের বিরুদ্ধ মামলায় আদালতের রায়ে এগিয়ে অ্যামাজন, অস্বস্তিতে আম্বানী

নয়াদিল্লি: বেশ কয়েক মাস ধরেই চলছিল সংঘাত৷ বিশ্বের বৃহত্তম অনলাইন খুচরো বিক্রেতা অ্যামাজন এবং ভারতের বৃহত্তম খুচরো ও পাইকারি সংস্থা  রিলায়্যান্স রিটেল ভেঞ্চার্স বা আরআরভিএল-এর এই সংঘাত এবার নতুন মোড় নিল৷ আরআরভিএল এবং ফিউচার গোষ্ঠীর মধ্যে বোঝাপড়ার বিরুদ্ধে করা মামলায় কিছুটা এগিয়ে থাকল অ্যামাজন৷ সিঙ্গাপুরের সালিশি আদালত জানিয়ে দিল,  চূড়ান্ত রায় ঘোষণা না-হওয়া পর্যন্ত ফিউচার গোষ্ঠী তাদের ব্যবসা রিলায়্যান্সকে বিক্রি করতে পারবে না।  

আরও পড়ুন- প্রধানমন্ত্রীরাও কিন্তু ৬ ভাই-বোন! নীতীশের অপ্রীতিকর মন্তব্যের পাল্টা দিলেন তেজস্বী


২০১৯ সালে কিশোর বিয়ানির ফিউচার গ্রুপ ঘোষণা করেছিল ফিউচার কুপোন্সের ৪৯ শতাংশ শেয়ার কিনছে অ্যামাজন৷ যার মূল্য ১,৪০০ কোটি টাকা৷ কিন্তু এর পর গত অগাস্ট মাসে ফিউচার গোষ্ঠী জানায়, মুকেশ অম্বানীর আরআরভিএল-কে ২৪,৭১৩ কোটি টাকায় নিজেদের খুচরো, পাইকারি, গুদাম ও পণ্য পরিবহণ ব্যবসা বিক্রি করতে চলেছে তারা। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করেই সংঘাতের শুরু৷ চুক্তিভঙ্গের অভিযোগ তুলে আদালতের দ্বারস্থ হয় অ্যামাজন৷ ফিউচার গ্রুপকে নোটিশও পাঠায় তারা৷ অ্যামাজন জানায়, ফিউচার কুপোন্সের ৪৯ শতাংশ শেয়ার কিনেছে তারা। এমনকী ফিউচার রিটেলের ৭.৩% অংশীদারি রয়েছে ফিউচার কুপন্সের হাতে। ফলে চুক্তি অনুসারে, তিন থেকে ১০ বছরের মধ্যে ফিউচার গ্রুপের কোনও শেয়ার বিক্রি হলে তা প্রথম কেনার সুযোগ পাবে অ্যামাজন। অন্যদিকে, ফিউচার গ্রুপের পাল্টা দাবি, অ্যামাজন ফিউচার কুপন্স কেনার পর এক বছরও পার হয়নি। ফলে এক্ষেত্রে চুক্তিভঙ্গের অভিযোগ খাটে না। যদিও সিঙ্গাপুরের সিলিশি আদালতের বিচারপতি ভিকে রাজার নির্দেশ, চূড়ান্ত রায় ঘোষণার আগে কোনও রকম সম্পত্তি লেনদেন করা যাবে না। আদালতের এই রায়ে খানিকটা হলেও বেকায়দায় পড়বে মুকেশ আম্বানীর আরআরভিএল৷ ফিউচার গ্রুপের ব্যবসা কতখানি অধিগ্রহণ করতে পারবে আম্বানি গোষ্ঠী তা নিয়েও সংশয় রয়েছে৷  

আরও পড়ুন- পুজোর পর বদলে যাচ্ছে গ্যাস বুকিংয়ের ফোন নম্বর, পড়ুন বিস্তারিত

Around The Web

Trending News

You May like