×

লটারির কেটে কোটিপতি বিধায়ক-পত্নী, চাঁচাছোলা আক্রমণ বিরোধীদের

 
লটারি

কলকাতা: লটারির জিওন কাঠিতে ভাগ্য বদলেছে অনেকেরই৷ ফকির থেকে রাজা হওয়ার গল্প আছে ঝুড়ি ঝুড়ি৷ কিন্তু এই প্রথম মোটা অঙ্কের লটারি জিতলেন এক হেভিওয়েট নেতার স্ত্রী৷ লটারিতে ১ কোটি টাকা পুরস্কার পেলেন জোড়াসাঁকোর তৃণমূল বিধায়ক বিবেক গুপ্তর স্ত্রী রুচিকা গুপ্ত৷ তবে তাঁর লটারি জয়ে শুরু হয়েছে বিতর্ক৷ টাকা নয়ছয়ের সহজ উপায় বলে তোপ দেগেছে বিরোধীরা৷ 

আরও পড়ুন- স্বস্তি পেলেন না অনুব্রত, আবার জেল হেফাজতের নির্দেশ আদালতের


তৃণমূল নেতার স্ত্রী লটারি জিততেই টুইট করে শুভেন্দু অধিকারী বলেন, ‘‘আগাগোড়াই বলে আসছি, ডিয়ার (ভাইপো) লটারি এবং তৃণমূলের মধ্যে একটা সম্পর্ক রয়েছে৷ এটা টাকা নয়ছয়ের সহজ পথ৷ সাধারণ মানুষ লটারির টিকিট কাটে, কিন্তু বাম্পার পুরস্কার জেতেন তৃণমূল নেতারা৷ প্রথমে অনুব্রত মণ্ডল জ্যাকপট পেয়েছিলেন৷ এবার তৃণমূল বিধায়ক বিবেক গুপ্তর স্ত্রী এক কোটি জিতলেন৷’’


একই সুর সুকান্ত মজুমদারের গলায়৷ তিনি বলেন, ‘‘ওটা ডিয়ার লটারি নয়৷ ভাইপো লটারি৷ সময় এলে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট দিয়ে তদন্ত করানো হবে৷ সব জট কেটে আসল চোর প্রকাশ্যে চলে আসবে৷’’


এ প্রসঙ্গে বিবেক গুপ্তর বক্তব্য, কোনও সাধারণ নাগরিককে এভাবে টার্গেট করা হলে সেটা খুবই দুঃখের বিষয়৷ প্রয়োজনে তদন্ত করে দেখুক৷ এদিকে, রুচিকার লটারি জেতার খবর বিজ্ঞাপন দিয়ে প্রকাশ করে লটারি আয়োজক সংস্থা। সেখানে তৃণমূল বিধায়ক বিবেক গুপ্তর স্ত্রীর যে বক্তব্য প্রকাশিত হয়েছে, তাতে বলা হয়েছে, তিনি নাকি এই অর্থ তাঁর পরিবারের আর্থিক অবস্থার উন্নতি ঘটাতে ব্যবহার করবেন।


ওই বিজ্ঞাপনের সঙ্গে রুচিকার যে বক্তব্য প্রকাশিত হয়েছে, তাতে বলা হয়েছে, "যখন আমি জানলাম লটারি থেকে এক কোটি টাকার প্রথম পুরস্কার জিতেছি, খুব অবাক হয়ে গিয়েছিলাম। কখনও ভাবিনি যে আমার ব্যাঙ্কে এক কোটি টাকা থাকবে। আমাকে দুর্দান্ত এই সুযোগ দিয়ে জীবন বদলে দেওয়ার জন্য ডিয়ার লটারি এবং নাগাল্যান্ড রাজ্য লটারিকে অসংখ্য ধন্যবাদ জানাই।" সেই সঙ্গে রুচিকা বলেন, ‘‘ডিয়ার লটারির দেওয়া এই বহুমূল্য পুরস্কারের অর্থ আমি আমার পরিবারের আর্থিক অবস্থার উন্নতি ঘটাতে ব্যবহার করব।’’ তাঁর এই বিবৃতি ঘিরে রাজনৈতিক মহলে আলোড়ন পড়েছে৷ 


ডিয়ার লটারির সাপ্তাহিক লটারির টিকিট কিনে এক কোটি টাকা পুরস্কার ঘরে এনেছেন বিধায়র পত্নী। তবে লটারি পুরস্কারের ওই বিজ্ঞাপনে রুচিকার স্বামীর বিধায়ক পরিচয় উহ্য রয়েছে। স্ত্রীর লটারি জেতা নিয়ে কোনও উচ্ছ্বাস দেখাননি তৃণমূল বিধায়কও৷ এই বিষয়ে পরে চিন্তাভাবনা করবেন বলেই জানিয়েছেন৷ এক্ষেত্রে তিনি সাবধানী৷ তবে পুরস্কার জিতে বেশ উচ্ছ্বসিত বিধায়ক-পত্নী৷ 

From around the web

Education

Headlines