×

থমকে বিচার প্রক্রিয়া? সোমের সংঘর্ষের পর মঙ্গলেও জারি হাই কোর্টের আইনজীবীদের সংঘাত

 
কলকাতা হাই  কোর্ট

কলকাতা: সোমবারের পর মঙ্গলেও অব্যাহত অশান্তি৷ এবার বিচারপতি রাজাশেখর মান্থাকে সরাসরি বয়কটের প্রস্তাব আনলেন কলকাতা হাই কোর্টের আইনজীবীদের একাংশ। সোমবার তাঁর নামে রীতিমতো পোস্টার দিয়ে দাবি করা হয়েছিল- ‘‘ইনি বিচারকের নামে কলঙ্ক’’। এর আগে হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়েছিল দু’পক্ষের আইনজীবীরা৷ সংঘর্ষে ধুন্ধুমার কাণ্ড বাধে কলকাতা হাই কোর্ট চত্বরে। ২৪ ঘণ্টা পরও সেই অশান্তির রেশ অব্যাহত৷ মঙ্গলবার সরাসরি বিচারপতি রাজাশেখর মান্থাকে সরাসরি বয়কটের প্রস্তাব আনা হল৷ 

আরও পড়ুন- বিজেপির গঙ্গা আরতিতে ‘না’ পুলিশের! ‘আমি যাবই’, ঘোষণা সুকান্তের

তৃণমূল পন্থী আইনজীবীদের একাংশের দাবি, আদালতে শান্তি বজায় রাখতেই বিচারপতি মান্থার বেঞ্চ বয়কটের প্রস্তাব আনা হয়েছে। যদিও বার অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি সিনিয়র আইনজীবী অরুণাভ ঘোষ জানান, তিনি এই প্রস্তাব সম্পর্কে বিন্দুবিসর্গ জানেন না৷ এভাবে আদালতের কাজে বাধা দেওয়া উচিত নয় বলেই দাবি তাঁর। তবে এই প্রস্তাব মেনে বিচারপতি মান্থার এজলাস বয়কট করা হলে বহু মামলার বিচার প্রক্রিয়া থমকে যাবে বলে মনে করছেন আইনজীবীদের অন্য একটি অংশ।

প্রসঙ্গত, রাজ্যের বেশ কিছু মামলা চলছে বিচারপতি মান্থার এজলাসে৷ এর মধ্যে বেশ কিছু মামলা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ৷ সোমবার বিচারপতি মান্থার এজলাস বয়কট হওয়ায় দরুণ ৪০০টি মামলার বিচারপ্রক্রিয়া থমকে গিয়েছিল। কারণ ১০০টি মামলার আইনজীবী এজলাসেই আসেননি। এই পরিস্থিতির মধ্যে মঙ্গলবার আবার বা অ্যাসোসিয়েশনের আইনজীবীদের একাংশ ওই প্রস্তাব আনায় বিচারপতি মান্থার এজলাসে বিচারাধীন মামলাগুলির ভবিষ্যৎ নিয়ে অনিশ্চয়তা তৈরি হয়ছে।

প্রসঙ্গত, বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে কোনও এফআইআর দায়ের করা যাবে না বলে তাঁকে রক্ষাকবচ দিয়েছিল কলকাতা হাই কোর্ট। ওই রায় দিয়েছিলেন বিচারপতি রাজাশেখর মান্থা৷ সোমবার তাঁর এজলাস বয়কট করলেন আইনজীবীদের একাংশ।

 

From around the web

Education

Headlines