×

মমতার ৬ আত্মীয়ের সম্পত্তি বৃদ্ধি মামলা, ৪ সপ্তাহের মধ্যে হলফনামা দেওয়ার নির্দেশ হাই কোর্টের

 
হাইকোর্ট

কলকাতা: অস্বাভাবিক সম্পত্তি বৃদ্ধি মামলায় নাম জড়িয়েছে একাধিক তৃণমূল নেতার৷ আঙুল উঠেছে খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পরিবারের সদস্যদের দিকেও৷ মুখ্যমন্ত্রীর পরিবারের সম্পত্তি বৃদ্ধি মামলায় চার সপ্তাহের মধ্যে হলফনামা চাইল কলকাতা হাই কোর্ট। যাঁদের বিরুদ্ধে সম্পত্তি বৃদ্ধির অভিযোগ উঠেছে, তাঁদের কলকাতা হাই কোর্টে হলফনামা দিতে হবে৷ নির্দেশ প্রধান বিচারপতি প্রকাশ শ্রীবাস্তব ও বিচারপতি রাজর্ষি ভরদ্বাজের ডিভিশন বেঞ্চের।

আরও পড়ুন- 'ঘুষ নিয়ে চাকরি হচ্ছে, আমাদের কাজ কই', স্বাস্থ্য ভবনের সামনে আওয়াজ তুললেন নার্সরা

মমতার পরিবারের যে সকল সদস্যের বিরুদ্ধে অস্বাভাবিক সম্পত্তি বৃদ্ধির অভিযোগ উঠেছে, তাঁদের সকলকে ১১ নভেম্বরের মধ্যে হাই কোর্টের কাছে হলফনামা দিতে হবে৷  এর  দু’সপ্তাহের মধ্যে পাল্টা হলফনামা দেবেন মামলাকারী।  ২৮ নভেম্বর মামলার পরবর্তী শুনানির তারিখ ধার্য করা হয়েছে। যদিও এদিন মুখ্যমন্ত্রীর পরিবারের সদস্যদের হিসাব বহির্ভূত সম্পত্তি সংক্রান্ত মামলার গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলল রাজ্য সরকার। তবে তা গ্রহণ হয়নি৷

২০১১ সালে বাম জমানার অবসান ঘটিয়ে রাজ্যে ক্ষমতায় আসে তৃণমূল৷ এর পর থেকেই মুখ্যমন্ত্রীর পরিবারের কিছু সদস্যের সম্পত্তির পরিমাণ লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়তে থাকে৷ অস্বাভাবিক সম্পত্তি বৃদ্ধির অভিযোগে হাই কোর্টে জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেন অরিজিৎ মজুমদার নামে এক ব্যক্তি। তাঁর আইনজীবী বিজেপি নেতা তরুণজ্যোতি তিওয়ারি আদালতে জানান, মুখ্যমন্ত্রীর পরিবারের সদস্যদের একাংশ বিভিন্ন সময় যে সরকারি হলফনামা পেশ করেছেন,তা থেকেই তাঁদের সম্পত্তি বৃদ্ধির বিষয়টি স্পষ্ট।

এই মামলায় মুখ্যমন্ত্রীর ভাই সমীর বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রী কাজরী বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম উল্লেখ করা হয়েছে৷ যিনি কলকাতা পুরসভা নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছিলেন৷ অভিযোগ, কাজরী তাঁর দেওয়া হলফনামায় অনেক তথ্যই আড়াল করেছেন। এ ক্ষেত্রে মামলাকারী দু’টি সংস্থার নাম উল্লেখ করে বলেন, এমন অনেক সংস্থায় বন্দ্যোপাধ্যায় দম্পতির নাম নথিভুক্ত থাকলেও নির্বাচনী হলফনামায় তার উল্লেখ করেননি কাজরী। শুধু তাই নয়, কাজরী হলফনামায় দাবি করেছিলেন, তিনি এবং তাঁর স্বামী সমাজসেবার সঙ্গে যুক্ত। এর পরেও এত বিপুল পরিমাণ সম্পত্তির উৎস কী? তাঁরা তাঁদের ছেলের সম্পত্তির কথা গোপন করে গিয়েছেন বলেও অভিযোগ৷ 

From around the web

Education

Headlines