×

'জিন্দেগি বেওয়াফা হ্যায়', কী বলতে চাইলেন কাটমানি ইস্যুতে সরব বড়ঞাঁ থানার OC

 
ওসি

কলকাতা: কালীপুজোর রাতে বড়ঞা বিধানসভা কেন্দ্রের শ্মশানকালী মন্দিরের পুজো ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে বিস্ফোরক মন্তব্য করেন ওসি সন্দীপ সেন। কে বা কারা কত শতাংশ কাটমানি নেন, সেই ফিরিস্তি তুলে ধরেন তিনি। তার প্রেক্ষিতে তাঁকে শো কজ নোটিশও পাঠিয়েছিলেন পুলিশ সুপার। সেই শো কজের জবাবও দিয়েছেন ওসি। কিন্তু ঘটনা এখানে থেমে নেই। শো কজ নিয়ে কিছু সরাসরি না বললেও অন্যভাবে বিষয়টি নিয়ে 'খোঁচা' দিয়েছেন সন্দীপ। নিজের ফেসবুক পেজে একটি পোস্ট করেছেন তিনি যা নিয়ে এখন কৌতূহল।

আরও পড়ুন- তিনিই মাস্টারমাইন্ড! নিয়োগের প্রতিটি ধাপে ছিল তাঁর লোক, সায় না দিলেই অপসারণ, দাবি চার্জশিটে

বৃহস্পতিবার রাতে নিজের ফেসবুক পেজে ‘মুকদ্দর কা সিকন্দর’ সিনেমার জনপ্রিয় গান পোস্ট করেন সন্দীপ সেন। গানের এই অংশটি ছিল – ‘জিন্দেগি তো বেওয়াফা হ্যায়, এক দিন ঠুকরায়েগি’। ব্যস, এরপরেই জল্পনা শুরু হয়ে গিয়েছে যে, কী প্রেক্ষিতেই তিনি এই পোস্ট করলেন। অনেকে অনেক কিছু আলোচনা করলেও তৃণমূল কংগ্রেস গোটা বিষয় নিয়ে সরব হয়েছে আগেই। ঘাসফুল শিবিরের বক্তব্য, ওসির মন্তব্যে দলের ভাবমূর্তি নষ্ট হয়েছে। বিজেপি নেতাদের এর মধ্যে উস্কানি আছে বলেও দাবি করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, বড়ঞা বিধানসভা কেন্দ্রের শাওড়া অঞ্চলের তালবোনা গ্রামে ৩৫০ বছরের পুরনো শ্মশানকালী মন্দিরের পুজো উপলক্ষে সাংস্কৃতিক মঞ্চে উপস্থিত রয়েছেন সন্দীপ। তাঁকে বলতে শোনা গিয়েছে, ''রাস্তা তৈরি করার জন্য ৪০ শতাংশ কম দর দিয়ে টেন্ডার পেয়েছিলেন স্থানীয় কন্ট্রাক্টর। সেই কন্ট্রাক্টর নিজে ২০ পার্সেন্ট খাচ্ছে। ব্লক অফিসে ৪ পার্সেন্ট দিয়েছে। আগের ওসিকে ৫ পার্সেন্ট দিয়েছে। আর খেঁকশিয়ালের বাচ্চাদেরকে আরও প্রায় ৫ শতাংশ টাকা দিতে হয়েছে। মোট ৭৫ পার্সেন্ট। মাত্র ২৫ শতাংশ টাকায় কী কাজ হবে আপনারাই বিচার করুন।'' 

From around the web

Education

Headlines