×

সৌদিতে মুখোমুখি মেসি-রোনাল্ডো! কোথায়, কখন দেখবেন ম্যাচ? কোন চ্যালেঞ্চের মুখে CR7?

 
মেসি রোনাল্ডো

দোহা:  আরও একবার সিটবেল্ট বাঁধার সময় এসে গিয়েছে৷ লাগতে পারে প্রবল ঝাঁকুনি৷ কারণ, প্রীতাক্ষার অবসান ঘটিয়ে ফুটবলের রণক্ষেত্রে নামতে চলেছেন দুই মহারথী লিয়োনেল মেসি এবং ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। আজ, বৃহস্পতিবার সৌদি আরবের রিয়াধে মুখোমুখি হতে চলেছেন দুই মহাতারকা। প্যারিস সঁ জরমঁ-র বিরুদ্ধে প্রদর্শনী ম্যাচ খেলতে নামছে আল হিলাল এবং আল নাসেরের সম্মিলিত একাদশ। সেই ম্যাচেই মুখোমুখি হবেন দুই কিংবদন্তী৷ তাঁদের এক সঙ্গে দেখার অপেক্ষায় মুখিয়ে রয়েছেন আপামর ফুটবলপ্রেমী৷ 

আরও পড়ুন- কনিষ্ঠতম হয়ে এক দিনের ক্রিকেটে দ্বিশতরান, বিশ্বরেকর্ড শুভমনের

প্রায় আড়াই বছর পর খেলার মাঠে দু’জনের সাক্ষাৎ হতে চলেছে। শুধু তাই নয়, এদিনের ম্যাচে রয়েছে আরও চমক৷ কারণ, প্যারিসের পিএসজি ক্লাবের হয়ে খেলতে দেখা যেতে পারে নেইমার এবং কিলিয়ান এমবাপেকেও। যা নিয়ে ভারতীয় সমর্থকদের মধ্যেও উৎসাহ তৈরি রয়েছে। 


কাতারে বিশ্বকাপের আসর থেকে চোখের জলে বিদায় নিয়েছিলেন সিএর৭৷ সেই তিনিই মরুরাজ্যে ফিরছেন রাজার মতো৷ যোগ দিয়েছেন সৌদির আল নাসের ক্লাবে৷ তবে এখনও পর্যন্ত ক্লাবের হয়ে একটি ম্যাচেও খেলতে পারেননি রোনাল্ডো। কারণ, ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডে থাকাকালীন দু’টি ম্যাচে নির্বাসিত হয়েছিলেন তিনি। সেই শাস্তি মাথায় নিয়েই আল নাসেরে যোগ দেন৷ তবে সব কিছু ঠিক থাকলে প্রদর্শনী ম্যাচে মাঠে নামবেন রোনাল্ডো। সৌদি ফুটবল সংস্থাও তাঁকে চাইছে৷ কারণ সিআর৭ থাকলে ম্যাচের জৌলুস এক লাফে অনেকটাই বেড়ে যায়। উপরি পাওনা হিসাবে নেইমার, এমবাপে তো আছেনই।

বিশ্বকাপের পর রোনাল্ডো কোনও ম্যাচ না খেললেও, মেসি অবশ্য পিএসজি-র হয়ে দু’টি ম্যাচে খেলে ফেলেছেন। একটিতে তাঁর দল জিতেছে, অপরটিতে হারতে হয়েছে। রিয়াধে যাওয়ার আগে কাতারেই অনুশীলন সেরে নেয় টিম পিএসজি। বিশ্বকাপ জেতার এক মাসের মধ্যেই ফের বেদুইনের দেশে ফিরেছেন মেসি। তাঁকে নিয়েও যে বাড়তি উন্মাদনা থাকবে, তা বলাইবাহুল্য৷ খলিফা আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে এদিন পিএসজি-র অনুশীলন দেখতেই হাজির হয়েছিলেন প্রায় ৩০ হাজার মানুষ। 


 

কিন্তু, এখন প্রশ্ন হল কোথায়, কী ভাবে মোসি-রোনাল্ডোর ম্যাচ দেখা যাবে?


১৯ জানুয়ারি, বৃহস্পতিবার রিয়াধের কিং ফাহাদ স্টেডিয়ামে এই ম্যাচ খেলা হবে। ভারতীয় সময় রাত সাড়ে ১০টা থেকে এই ম্যাচ শুরু হচ্ছে। ভারতের কোনও টিভি চ্যানেলে এই ম্যাচের সরাসরি সম্প্রচার না হলেও পিএসজি টিভি, পিএসজি-র ফেসবুক পেজ, পিএসজি-র ইউটিউব চ্যানেল এবং ওয়ানফুটবল অ্যাপে এই খেলার সরাসরি সম্প্রচার দেখা যাবে৷ 

এদিকে, আজ প্রদর্শনী ম্যাচে রোনাল্ডো নামবেন ঠিকই, কিন্তু তাঁর সামনে দাঁড়িয়ে দুটি সমস্যা৷ সৌদি আরবে খেলতে হলে যা কাটিয়ে উঠতেই হবে তাঁকে। কিন্তু, কোন দুই সমস্যার মুখে পড়তে পারেন রোনাল্ডো?


প্রথমত হল আরবের আবহাওয়া। রোনাল্ডো তাঁর কেরিয়ারের অধিকাংশ সময়ই কাটিয়েছেন ইংল্যান্ড, স্পেন এবং ইটালিতে। যেগুলি শীত প্রধান দেশ৷  সেখানে আরবে গ্রীষ্ণকালীন তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াসেরও বেশি হয়ে যায়। সন্ধ্যায় খেলা হলেও তাপমাত্রা ৩০ ডিগ্রি তো থাকবেই। এই উষ্ণ আবহাওয়ার মধ্যেই খেলতে হবে রোনাল্ডোকে৷ যা সিআর৭ এর কাছে বড় চ্যালেঞ্জ৷ 
 


দ্বিতীয়ত হল  স্টেডিয়ামের দর্শকসংখ্যা। রোনাল্ডো যে প্রো লিগে খেলবেন, তাতে অংশ নেবে ১৬টি দল। আল নাসেরের ঘরের মাঠে ২৫ হাজার লোক ধরে। কিন্তু এই লিগে খেলা অনেক দলেরই ঘরের মাঠে ১০ হাজার লোক বসারও জায়গা নেই৷ এত কম দর্শকের সামনে নিজের ক্যারিশ্মা দেখানোর অভ্যেস নেই রোনাল্ডোর। তিনি রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে  স্যান্টিয়াগো বার্নাবিউতে খেলেছেন। ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডে খেলার সময় বল পায়ে ছুটতেন ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে। যে মাঠকে বলা হয় ‘থিয়েটার অফ ড্রিমস’। সেই সব স্বপ্নজড়ানো মাঠের মোহ কাটিয়ে রোনাল্ডোকে সৌদি আরবে এমন কিছু মাঠে খেলতে হবে, যেখানে মাঠের ধারে রয়েছে দৌড়নোর ট্র্যাক। সব স্টেডিয়াম আবার ম্যাচ আয়োজন করার মতো অবস্থাতেও নেই। এর সঙ্গে মানিয়ে নিতে পারবেন তো সিআর৭? 

এদিকে, বিশ্বকাপে নিজের অধরা স্বপ্ন পূরণ করেছেন লিয়োনেল মেসি৷ বলা যায়, তাঁর সাফল্যের ঝুলি আজ পূর্ণ। বিশ্বপাক জিতেও তবু মন খারাপ লিয়োর৷ হবে নাই বী কেন? যাঁদের সঙ্গে নিয়ে এই স্বপ্ন জয়, তাঁদের থেকে যে তিনি এখন অনেক দূরে৷ দেশে বেশ কিছুদিন ছুটি কাটিয়ে তিনি যোগ দিয়েছেন ফ্রান্সের ক্লাবে৷ বুধবার বিশ্বকাপ জয়ের এক মাস পূর্তির পর লিয়ো ইনস্টাগ্রামে লিখলেন, ‘‘সত্যি বলতে, চ্যাম্পিয়ন হওয়া দারুণ একটা অনুভূতি। তবে আমরা একসঙ্গে সুন্দর একটা মাসও কাটিয়েছিলাম৷ কত অসাধারণ স্মৃতি জড়িয়ে রয়েছে বিশ্বকাপের সঙ্গে। আমি সেগুলো মিস্ করি। সতীর্থদের মিস্ করি। দিনের পর দিন একসঙ্গে থাকতে থাকতে বন্ধনটা আরও দৃঢ় হয়ে গিয়েছিল, সেটা এখন বুঝতে পারি।’’ মেসি আরও লেখেন, ‘‘একসঙ্গে কথাবার্তা, অনুশীলন এবং আমার করা সব বোকা বোকা কাজগুলো। সব মিস্ করি। আমরা প্রত্যেকে কাপটা জিততে মরিয়া ছিলাম। তার জন্য এক মাস ধরে আমরা কী রকম পাগলামি করেছি, সেটা আমরাই জানি।’’


 

From around the web

Education

Headlines