×

সূর্যের গায়ে বিরাট এক কালো ছোপ, কেন এই অন্ধকার? ঘনাচ্ছে বিস্ময়

 
সূর্য

কলকাতা: সূর্যের গায়ে ওটা কী? কলঙ্ক? আমাদের সৌরমণ্ডলের একমাত্র নক্ষত্রের গায়েবিরাট এক কালো দাগ দেখতে পেলেন বিজ্ঞানীরা। তবে দাগটি একজায়গায় স্থির নয়। ক্রমাগত অবস্থান পরিবর্তন করছে৷ গনগনে সূর্যের পৃষ্ঠদেশে কী থেকে এমন অন্ধকার অংশ তৈরি হল? সেই জবাবও দিয়েছেন বিজ্ঞানীরা৷ 

আরও পড়ুন- বাড়ছে পৃথিবীর গতি! ২৪ ঘণ্টার আগেই সম্পূর্ণ হচ্ছে দিন, এর ফল কতটা ভয়াবহ হবে?


তামিলনাড়ুর পালানি পাহাড়ের উপর কোদাইকানাল সৌর পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে দূরবীনে চোখ রেখে সূর্যের গায়ে এই কালো দাগ দেখতে পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা। এই ‘কলঙ্কে’র নাম দেওয়া হয়েছে এআর ৩১৯০। বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, সূর্যের গায়ে যে সকল গ্যাসীয় উপাদান রয়েছে, তা বৈদ্যুতিন শক্তিসম্পন্ন। মাঝেমধ্যেই এই গ্যাসগুলি চৌম্বকীয় ক্ষেত্র তৈরি করে। এই গ্যাসীয় উপাদান স্থির নয়। সেগুলি সর্বক্ষণই স্থান বদল করতে থাকে। সৌরপৃষ্ঠে সৃষ্ঠ চৌম্বকীয় ক্ষেত্রের মধ্যে কখনও এই গ্যাসীয় উপাদানগুলি একত্রিত হয়, কখনও প্রসারিত হয়ে ছড়িয়ে পড়ে, কখনও আবার পাক খেতে থাকে নিজের মনেই। পৃথিবী থেকে সেগুলিকেই কালো দেখায়। 

সূর্যের গায়ে এই অংশগুলি কেন অন্ধকার হয়? বিজ্ঞানীরা বলছেন, কারণ ওই অংশের উষ্ণতা অন্য অংশের তুলনায় অপেক্ষাকৃত কম থাকে। সে কারণেই অন্ধকার দেখতে লাগে৷ সূর্যপৃষ্ঠের এই দাগের সংখ্যা, তাদের গতিবিধির বৈচিত্র্যের উপর ভিত্তি করে ১১ বছরের একটি সৌরচক্র নির্ধারণ করা হয়৷  তার মেয়াদ সম্পন্ন হতে চলেছে। ২০২৫ সালে সৌরচক্র শীর্ষে পৌঁছবে ।

গত ১৭ এবং ১৯ জানুয়ারি টেলিস্কোপে চোখ রেখে সূর্যের গায়ে লেগে থাকা বিরাট কালো দাগটি দেখতে পান কোদাইকানাল সৌর পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রের বিজ্ঞানীরা। বেঙ্গালুরুর ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ অ্যাস্ট্রোফিজিক্সের অধীনস্থ এই পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে সূর্য দেখার জন্য ব্যবহার করা হয়েছিল ৪০ সেন্টিমিটারের একটি টেলিস্কোপ।

তামিলনাড়ুর পাশাপাশি লাদাখ থেকেও সৌরপৃষ্ঠের এই কালো অংশের দেখা মিলেছে। বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, চলতি সৌরচক্রে সূর্যের গায়ে এত বড় কালো দাগ এর আর চোখে পড়েনি৷ 

মাস কয়েক আগে সূর্যের হাসির এই ছবিটি ধরা পড়েছিল নাসা-র সোলার ডায়নামিক অবজারভেটরিতে। বিজ্ঞানীরা বলছেন, সূর্যের গালে পড়া তিনটি কালো টোল-এই লুকিয়ে রয়েছে ভয়ঙ্কর এক বিপদ। বিজ্ঞানীদের দাবি, আসলে ওই কালো অঞ্চলগুলি থেকে বেরিয়ে আসছে অত্যন্ত শক্তিশালী সৌর ঝড়।

 

From around the web

Education

Headlines