×

'বিজেপি কী ওয়াশিং মেশিন নাকি?' কৈলাসকে 'কাউন্টার আ্যাটাক' কুণালের

 


দেবময় ঘোষ : 'ভাইপো' শব্দে প্রবল আপত্তি জানিয়ে বিজেপির সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক কৈলাস বিজয়বর্গীয়কে 'কাউন্টার আ্যাটাক' করলেন তৃণমূল কংগ্রেস মুখপত্র কুণাল ঘোষ।

পেশায় সাংবাদিক কুণালের তীক্ষ্ন জবাব, '' কৈলাস বিজয়বর্গীয় আপনি এসে চরিত্র হনন করে যাচ্ছেন একজন যুব নেতার। আমাদের প্রিয় এক নেতা এবং সাংসদ। অথচ, যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ, আপনার বিজেপি কি ওয়াশিং মেসিন নাকি? যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তাদের ধুয়ে পাশে বসালে সেটা ওয়াশিং মেসিন হয়ে যাচ্ছে? আমরা যারা 'সাফার' করেছি, তারা ভুলে যাব? আজকে আপনি আঙুল তুলছেন তৃণমূল কংগ্রেসের দিকে, এটা হতে পারে?'' প্রসঙ্গত উল্লেখযোগ্য, সম্প্রতি নাম না করে নিজের ভাষণে ''ভাগ - ভাইপো - ভাগ'' বলে বিতর্ক বাড়িয়েছেন রাজ্যে বিজেপির প্রধান পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয়। কৈলাসকে জবাব দিতে রবিবার দুপুরে সাংবাদিক বৈঠকেই মঞ্চ খুঁজে নেন কুণাল।      

কুণালের বক্তব্য, রাজ্যে কাজ হচ্ছে। সুতরাং, ভারতীয় জনতা পার্টির তৃণমূল কংগ্রেস বিরুদ্ধে কোনও যুক্তিই খাঁড়া করতে পারবে না। যে রাজ্যে কাজ হয়, সেখানে অন্য যুক্তি টেকে না। আম জনতা তা বোঝে। তিনি বলেন, ''কোনও দেশে, কোনও রাজ্যে, কোনও দল ১০০ শতাংশ মানুষকে খুশি করেছে - এটা করা কঠিন। কোথাও না কোথাও কিছু ভুল-ত্রুটি-অসন্তোষ থাকে। রাজ্য সরকার সেটি চিহ্নিত করার চেষ্টা করছে। কাজ করছে। সংশোধন করছে। কেন্দ্রীয় সরকার সেটাও করছে না।'' 
কুণাল আরও বলেছেন, ''কৈলাস বিজয়বর্গীয়, তিনি জানেন, এখানে কাজ নিয়ে কিছু বলার নেই। সেই জন্য তারা কুৎসার লাইনে গিয়েছেন। আমি আবার বলছি, আমরা কুৎসার লাইন পছন্দ করি না। (হাতে কাগজ দেখিয়ে) এখানে এমন কিছু বিষয় রয়েছে যেগুলি ইচ্ছা করলে আমরা তুলে ধরতে পারি। কিন্তু ব্যক্তি কুৎসা, ব্যক্তি আক্রমণ আমরা চাইনা।''

ভারতীয় জনতা পার্টির নেতারা রাজনীতিতে মানুষের কাছে যেতে পারছেন না। অস্থির করার চেষ্টা করছেন। চরিত্র হনন করার চেষ্টা করছেন। মিথ্যা বলার চেষ্টা করছেন। এবং, সস্তা মিমিকের চেষ্টা করছেন। ভাগ-মুকুল-ভাগ কেন বলেছিলেন? কোন কোন অভিযোগের ভিত্তিতে বলেছিলেন ভাগ? সেই অভিযোগগুলি কোথায় গেল? কৈলাস বিজয়বর্গীয় 'মাস্ট আনসার'। আজকে কোনও 'তরুণ তূর্কী'কে 'ভাইপো' বলে ডাকার আগে নিজের ছেলের সম্পর্কে কৈফৎ দিন কেন গুণ্ডামী করেছে? বিজেপির পরিবারের নেতাের পরিবার তুলতে একটা কেলেঙ্কারীর দিকে যাবে। আমরা চাই না, একদম চাইনা। আমরা চাই ভোট আসছে, তর্ক হবে, বিতর্ক হবে, রাজনীতি হবে। কেন ব্যক্তিগত কুৎসা হবে? যদি ক্ষমতা থাকে, হিম্মত থাকে, ভাইপো ভাইপো বলে না বলে আপনি নাম উচ্চারণ করে দেখান বাংলার মাটিতে।

From around the web

Education

Headlines