Aajbikel

আজকের সিপিএম সবচেয়ে বড় নির্লজ্জ, বুদ্ধ-জ্যোতিবাবুরাও ছিলেন না: মমতা

জোর গলায় দাবি করলেন, আজকের সিপিএম সবচেয়ে বড় নির্লজ্জ, বিজেপির সন্তান!
 | 
আজকের সিপিএম সবচেয়ে বড় নির্লজ্জ, বুদ্ধ-জ্যোতিবাবুরাও ছিলেন না: মমতা

কলকাতা: ২০১১ সালের বাম জমানায় অবসান ঘটিয়ে পশ্চিমবঙ্গের ক্ষমতায় আসেন তৃণমূল কংগ্রেসের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তারপরে কেটে গেছে অনেকগুলো বছর, এখন বাংলায় তৃণমূল কংগ্রেসের মূল প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে উঠেছে ভারতীয় জনতা পার্টি। কিন্তু নির্বাচনের পক্ষে তাদের সঙ্গ দিয়ে যাচ্ছে সিপিএম, এই অভিযোগ শাসক দলের পক্ষ থেকে অনেক বার করা হয়েছে। এদিন নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে ফের একবার সিপিএম নেতৃত্বের তুলোধনা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জোর গলায় দাবি করলেন, আজকের সিপিএম সবচেয়ে বড় নির্লজ্জ, বিজেপির সন্তান!

এদিনের সাংবাদিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, সিপিএমের লজ্জা থাকা উচিত। আজকের দিনে বিজেপির সবচেয়ে বড় সন্তান হচ্ছে সিপিএম। মমতার কথায়, আজকের সিপিএমকে কেউ চেনে না। আজকের সিপিএম সবচেয়ে বড় নির্লজ্জ, এমনকি বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য এবং জ্যোতি বসুও এইরকম ছিলেন না বলে দাবি করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অবশ্য এই কথা বলে হাতজোড় করে বামপন্থী বন্ধুদের সম্মান প্রদর্শন করেন তিনি। মূলত আম্ফান দুর্নীতির অভিযোগ প্রসঙ্গে কথা বলতে গিয়ে রীতিমতো মেজাজ হারিয়ে ফেলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, রাজ্য সরকারের দিকে আঙ্গুল তোলা হচ্ছে, ওদিকে কেন্দ্রীয় সরকারের একাধিক ফান্ডের কোন হিসেব নেই। কোন ফান্ডের অডিট হয় না। আইন কেন দু'রকমের হবে এই নিয়েও প্রশ্ন তোলেন তিনি। 

মমতা এদিন আরো বলেন, বারবার বাংলার সরকারকে নিশানা করা হচ্ছে তার কারণ, এই সরকার ভালো কাজ করছে। ভালো কাজ করার জন্যই বড্ড হিংসে কেন্দ্রীয় সরকারের, সেই কারণেই বারবার এখানে-ওখানে এজেন্সি লাগিয়ে রাজ্য সরকারকে বদনাম করার চেষ্টা করা হচ্ছে। এই প্রেক্ষিতে তিনি জোর গলায় দাবি করেন, বাংলা গুজরাট নয়। বাংলা উত্তরপ্রদেশ নয়। বাংলা বাংলাই। এই প্রেক্ষিতেই বলেন, বাংলা সবাইকে চ্যালেঞ্জ করতে পারে। অন্যদিকে, কেন্দ্র বারবার অভিযোগ তুলছে, তাদের একাধিক প্রকল্প বাংলায় কার্যকর করা হচ্ছে না। এই প্রেক্ষিতে মমতা বলেন, কেউ যদি ব্যক্তিগতভাবে পকেট থেকে চিরকুট বের করে বলে এটা করতে হবে, তাহলে সেটা করা সম্ভব নয়। কেন্দ্রীয় সরকার এমন কিছু প্রকল্পের কথা বলছে যেটা ইতিমধ্যেই বাংলায় চলছে। তাহলে সেই প্রকল্প আলাদা করে চালানোর মানে নেই।

Around The Web

Trending News

You May like