Aajbikel

ফের ধাক্কা কংগ্রেসে, দলত্যাগ মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর, নেপথ্যে ইডি আতঙ্ক?

 | 
কংগ্রেস

নিজস্ব প্রতিনিধি: লোকসভা নির্বাচন যত এগিয়ে আসছে ততই অস্বস্তি বাড়ছে বিরোধী শিবিরে। আসছে একের পর এক ধাক্কা। একই দিনে বিরোধীদের 'ইন্ডিয়া' জোট জোড়া ধাক্কা খেল বিহার এবং মহারাষ্ট্রে। বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমারের আস্থা ভোটে আরজেডির তিন বিধায়ক এনডিএ জোটকে সমর্থন করলেন। আবার একই দিনে মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা হেভিওয়েট কংগ্রেস নেতা অশোক চৌহান দল ছাড়লেন। শীঘ্রই তিনি বিজেপিতে যোগ দেবেন বলে সূত্রের খবর। জানা গিয়েছে মহারাষ্ট্রের অত্যন্ত প্রভাবশালী এই নেতাকে রাজ্যসভায় পাঠাতে পারে গেরুয়া শিবির। তবে শুধু অশোক একা নন, তাঁর সঙ্গে একাধিক কংগ্রেস বিধায়কও দল ছাড়তে চলেছেন বলে একটি সূত্রে খবর। সোমবার মহারাষ্ট্র কংগ্রেস সভাপতি নানা পাটোলকে চিঠি দিয়ে দল ছাড়ার কথা জানিয়েছেন অশোক চৌহান। বিধায়ক পদ থেকেও ইস্তফা দেন তিনি।

মহারাষ্ট্র বিধানসভার স্পিকার রাহুল নরওয়েকরের কাছে ইস্তফাপত্র জমা দেন তিনি। এ বিষয়ে বিজেপি নেতা তথা মহারাষ্ট্রের উপমুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিশ বলেন,"বিভিন্ন দলের নেতানেত্রী বিজেপিতে যোগ দেওয়ার জন্য মুখিয়ে রয়েছেন। আগামী দিনে কী কী হয় সেটা শুধু দেখতে থাকুন।" তবে কংগ্রেসের দাবি কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা ইডির তদন্তের হাত থেকে বাঁচতেই দল ছেড়েছেন অশোক। কারণ কিছুদিন আগেও কংগ্রেস,  এনসিপি ও শিবসেনা উদ্ধব ঠাকরে গোষ্ঠীর নেতৃত্বের সঙ্গে আসন সমঝোতা নিয়ে বৈঠকে অংশ নিয়েছিলেন অশোক। এরপর সোমবার তিনি কংগ্রেস ছাড়ার কথা ঘোষণা করলেন। যে ঘটনায় হতবাক মহারাষ্ট্র কংগ্রেস নেতৃত্ব। সম্প্রতি কংগ্রেস ছেড়েছেন মিলিন্দ দেওরা ও বাবা সিদ্দিকীর মতো নেতা। এবার দল  ছাড়লেন মহারাষ্ট্রের দু'বারের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী অশোক চৌহান। সূত্রের খবর, পুরনো একটি মামলায় অশোককে ডেকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারে ইডি। আর সেটা বুঝতে পেরেই দ্রুত কংগ্রেস ছেড়েছেন অশোক, এমনটাই মনে করা হচ্ছে।

ঘটনা হল মুম্বইয়ের আদর্শ হাউসিং কেলেঙ্কারিতে নাম জড়িয়েছিল অশোকের। সেই সময় তাঁকে মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে সরিয়ে দিয়েছিল কংগ্রেস হাইকমান্ড। সেই ঘটনার তদন্ত ইডি নতুন করে শুরু করতে পারে বলে জানা যাচ্ছে। আগামী দিনে অশোককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করতে পারে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা, এমনটা কিছুদিন আগেই জানা গিয়েছে। এই আবহের মধ্যে দলত্যাগ করলেন তিনি। সবমিলিয়ে দেখা যাচ্ছে লোকসভা নির্বাচন যত এগিয়ে আসছে ততই বিরোধীদের ছন্নছাড়া ভাব আরও বেশি করে প্রকট হয়ে উঠছে। প্রশ্ন উঠছে এবার তালিকায় কাদের নাম উঠে আসবে? বিরোধী শিবির কি আরও ভাঙবে? এর উত্তর রয়েছে সময়ের গর্ভেই।

Around The Web

Trending News

You May like