Aajbikel

যতটা চেয়েছিল ততটা রাম মন্দির উন্মাদনা বঙ্গে ছড়াতে পারল কি বিজেপি?

 | 
bjp

নিজস্ব প্রতিনিধি: রাম মন্দির হাওয়ায় ভর করেই চব্বিশের লোকসভা নির্বাচনে ফের বিপুল আসনে জিতে দিল্লিতে ক্ষমতায় আসার স্বপ্ন দেখছে বিজেপি। এমনকী তাদের আশা রাম মন্দির আবেগে ভর করে এবার ৪০০ আসনের লক্ষ্যেও পৌঁছে যাওয়া যাবে। একই আশা করছেন বঙ্গ বিজেপি নেতৃত্ব। তাই সোমবার রাম মন্দির উদ্বোধন ঘিরে রাজ্য জুড়ে বিভিন্ন কর্মসূচির আয়োজন করা হয়েছিল রাজ্য বিজেপির তরফ থেকে। বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী কলকাতায় বেশ কয়েকটি কর্মসূচিতে সামিল হয়েছেন। এছাড়া দিলীপ ঘোষ, রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার-সহ অন্যান্য নেতৃত্ব নিজেদের এলাকায় কর্মসূচিতে যোগ দিয়েছেন।

খাতায় কলমে রাজ্য জুড়ে বহু কর্মসূচি হলেও তাতে সাধারণ মানুষ কতটা ভিড় জমিয়েছেন সেটা নিয়ে কিন্তু প্রশ্ন উঠে গিয়েছে। সবচেয়ে বড় কথা বিজেপির কর্মী-সমর্থকরা যে সংখ্যায় ভিড় জমাবেন বলে আশা করা গিয়েছিল বহু জেলায় তা দেখা যায়নি। একই কথা প্রযোজ্য কলকাতার ক্ষেত্রেও। সাধারণভাবে শুভেন্দুর নেতৃত্বে কোনও কর্মসূচি হলে তাতে যতটা ভিড় লক্ষ্য করা যায়, সোমবার কিন্তু ততটা ভিড় দেখা যায়নি। যদিও শুভেন্দুর দাবি তাঁর প্রতিটি কর্মসূচিতে মানুষের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো। যদিও বাস্তব অন্য কথাই বলছে। এর একটাই কারণ, সেটা হল কলকাতায় বিজেপির সাংগঠনিক দুর্বলতা। খাস কলকাতায় বিজেপির সংগঠন যে কতটা দুর্বল তা অতীতে বারবার প্রমাণিত হয়েছে। কলকাতা পুরসভার নির্বাচনে এবার বিজেপির মাত্র তিনজন জিততে পেরেছেন। আজ পর্যন্ত বিজেপির টিকিটে একজনও বিধানসভা নির্বাচনে জিততে পারেননি খাস কলকাতা থেকে। আর লোকসভা নির্বাচনেও বিজেপির হাত বারবার শূন্য থেকেছে কলকাতা বা সংলগ্ন আসনগুলিতে। তাই রাম মন্দির আবেগ কলকাতা তথা সংলগ্ন এলাকায় ছড়িয়ে দেওয়ার যে প্রচেষ্টা করেছিল বিজেপি, তা কার্যত ধাক্কা খেয়েছে বলাই যায়।

সবচেয়ে বড় কথা বিজেপির পুরনো রাজ্য অফিস সোমবার সন্ধ্যা পেরিয়ে গেলেও অন্ধকারে ডুবেছিল। যে মুরলীধর সেন লেনের অফিস দীর্ঘকাল গমগম করে এসেছে সেখানে রাম মন্দির উদ্বোধনের দিনে সন্ধ্যা পর্যন্ত বাতি দেওয়ার লোক পাওয়া যায়নি। সল্টলেকে নতুন কার্যালয় খোলার পর থেকেই এই অফিস কার্যত দুয়োরানি হয়ে গিয়েছে। যদিও বেশি রাতের দিকে সেই অফিসের সামনে কয়েকটি আলো লাগিয়ে মুখরক্ষার চেষ্টা করা হয়। অথচ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি তথা বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব বারবার আবেদন করে বলেছেন সবাই যেন নিজের বাড়িতে প্রদীপ  জ্বালান, আলো দিয়ে সাজান রাম মন্দির উদ্বোধনের দিনটিকে স্মরণীয় করে রাখার জন্য। কিন্তু বিজেপির মুরলীধর সেন লেনের রাজ্য অফিসেই কেন সন্ধ্যা পেরিয়ে গেলেও প্রদীপ জ্বলল না, আলো জ্বলল না, তা নিয়ে তো প্রশ্ন উঠবেই। তাই রাম মন্দির আবেগ উত্তর ভারত জুড়ে প্রবল ভাবে দেখা গেলেও, পশ্চিমবঙ্গে ততটা কেন দেখা গেল না সেই প্রশ্নের মুখোমুখি হতে হবে রাজ্য বিজেপি নেতৃত্বকে।
 

Around The Web

Trending News

You May like