Aajbikel

কালিয়াগঞ্জে বসে বিদেশে তথ্য পাচার! মুম্বই পুলিশের জালে বাংলার তরুণ

 | 
পুলিশ
নিজস্ব প্রতিনিধি: মুম্বই পুলিশের জালে বাংলার এক তরুণ। রাজ্যে এসে তাকে পাকড়াও করে নিয়ে গেল মুম্বই এফটিএফ। উত্তর দিনাজপুরের কালিয়াগঞ্জ থেকে পাকিস্তান, প্যালেস্টাইন ও ইরানে তথ্য পাচারের অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে ওই তরুণকে। বিশেষ সূত্রে খবর পেয়ে কালিয়াগঞ্জে এসে মুক্তা মাহাতো নামে ওই তরুণকে গ্রেফতার করেছে মুম্বই পুলিশ। এরপরই মুম্বইয়ের সন্ত্রাস দমন শাখার আধিকারিকরা মুক্তা মাহাতোকে ট্রানজিট রিমান্ডে মহারাষ্ট্রে নিয়ে গিয়েছেন। মুক্তা তথ্য পাচার কবে থেকে করছে, কীভাবে করত, এই কাজে আর কারা কারা যুক্ত রয়েছে, এই সমস্ত বিষয় নিয়ে তাকে জেরা করা হবে।

কালিয়াগঞ্জের বাঘন পঞ্চায়েতের কাঁকড়া মোড় গ্রামের বাসিন্দা মুক্তা। কিছুদিন আগেই মুম্বইয়ের দুর্নীতি দমন শাখা দেশবিরোধী কার্যকলাপে যুক্ত থাকার অভিযোগে এক যুবককে  গ্রেফতার করে। ওই যুবককে জেরা করে বহু তথ্য পায় পুলিশ। আর সেই সূত্রেই উঠে আসে মুক্তা মাহাতোর নাম। শুক্রবার মুক্তাকে তার বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হলেও সোমবার খবরটি প্রকাশ্যে এসেছে। উল্লেখ্য নির্মাণ শ্রমিকের কাজের জন্য কালিয়াগঞ্জ থেকে মহারাষ্ট্রে গিয়েছিল মুক্তা। অভিযোগ সেখানেই দেশবিরোধী কাজে জড়িয়ে পড়ে সে। মুম্বই পুলিশের দাবি, দেশের গোপন তথ্য পাকিস্তান, ইরান ও প্যালেস্টাইনে পাচার করত মুক্তা। তবে এই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন মুক্তার বাড়ির লোকজন। তাঁদের দাবি মুক্তা মাহাতো কম্পিউটারে গেম খেলতে গিয়ে কোনও ভাবে হয়ত ফেঁসে গিয়েছে। এই পরিস্থিতিতে মুক্তাকে জেরা করে নতুন কী তথ্য উঠে আসে সেটাই দেখার।


উল্লেখ্য সন্ত্রাস দমনে তৎপরতা আরও বাড়িয়েছে কেন্দ্র। সেই সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে প্রত্যেকটি রাজ্যকে সতর্ক দৃষ্টি রাখার কথা ধারাবাহিকভাবে বলছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। তাই প্রতিটি রাজ্যই বিষয়টি নিয়ে তৎপরতা বাড়িয়েছে। জানা গিয়েছে মুম্বই পুলিশ যে যুবককে গ্রেফতার করেছে সে জেরায় জানিয়েছে জেহাদি কাজকর্মে জড়িত রয়েছে কালিয়াগঞ্জের মুক্তা মাহাতো। সেই সূত্রেই কালিয়াগঞ্জে আচমকা হানা দেয় মুম্বই এসটিএফ। যদিও মুক্তার পাড়া প্রতিবেশীদের দাবি, সে অত্যন্ত ভাল ছেলে। তাই এমন কাজ সে কীভাবে করতে পারে সেই প্রশ্ন তুলছেন অনেকেই। স্বাভাবিকভাবেই গোটা বিষয়টি নিয়ে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে কালিয়াগঞ্জে।

Around The Web

Trending News

You May like