Aajbikel

হার থেকে বাড়ি, আস্তাবল, কয়েকশো কোটির উপহার! পেলেন কারা?

 | 
আম্বানি-গেটস-মূর্তি

নয়াদিল্লি: তাঁর আক্ষরিক অর্থেই ধনকুবের। রাজপ্রাসাদে সাজানো রাজকীয় জীবনাপন৷ যাঁদের এমন বৈভব, তাঁদের সবকিছুই যে অনন্য হবে, তা বলাই বাহুল্য৷ আম আদমির থেকে তাঁরা সম্পূর্ণ আলাদা! তাই তাঁদের উপহারেও রয়েছে বিশেষত্বের ছোঁয়া৷ নীতা আম্বানি থেকে নারায়ণ মূর্তি, বিল গেটস থেকে শিব নাদার, প্রিয় মানুষদের কেমন উপহার দিয়েছেন তাঁরা? জানলে চোখ কপালে উঠবে বৈকি।


ইনফোসিস কর্তা নারায়ণ মূর্তির তাঁর নাতি একগ্রহকে জন্মের পরই চোখ ধাঁধানো উপহার দেন৷ ইনফোসিসের ১৫ লক্ষ শেয়ার নাতির হাতে তুলে দেন দাদু৷ যে শেয়ারের দাম ২৪০ কোটি টাকা। নারায়ণ-পুত্র রোহণ মূর্তি এবং তাঁর স্ত্রী অপর্ণা কৃষ্ণণের ছেলে একগ্রহের বয়স মাত্র চার মাস। ২০২৩ সালের নভেম্বর মাসে জন্ম হয় তাঁর। 

এবার আসা যাক আম্বানি পরিবারের কথায়৷ এশিয়ার পয়লা নম্বর ধনী ব্যক্তির ঐশ্বর্যই আলাদা৷ তাঁদের উপহারও তেমনই নজর কাড়া৷ ২০১৯ সালে নীতা এবং মুকেশ অম্বানির জ্যেষ্ঠ পুত্র আকাশ অম্বানি গাঁটছড়া বাঁধেন শ্লোকা মেহতার সঙ্গে। বিয়েতে উপহার হিসাবে পুত্রবধূকে হিরের হার দিয়েছিলেন নীতা। শোনা যায়, সেই হারের দাম নাকি ৪৫১ কোটি টাকা! 

লেবাননের এক গয়না ব্যবসায়ী মোয়াওয়াদের থেকে এই নেকলেসটি কিনেছিলেন নীতা। তাতে যে হিরের কারুকার্য রয়েছে, তার জুড়ি মেলা ভার। তাই সেটির নাম ‘ল’ইনকম্প্যারাব‌্ল’। ১৮ ক্যারেটের গোলাপি সোনার হারের উপর বসানো ২২৯.৫২ ক্যারেটের সাদা হিরে চোখ ধাঁধিয়ে দেয়। ৪০৭.৪৮ ক্যারেটের একটি হলুদ হিরেও রয়েছে ওই নেকলেসে৷ যা দুষ্প্রাপ্য।

উপহার দেওয়ার ক্ষেত্রে পিছিয়ে নেই শিল্পপতি শিব নাদারও৷ ২০১৪ সালের কথা। একমাত্র কন্যা রোশনিকে আলিশান বাংলো উপহার দিয়েছিলেন শিব।
পূর্ব দিল্লির ফ্রেন্ডস কলোনিতে অবস্থিত সেই বাংলোর দাম সেই সময় ছিল ১১৫ কোটি টাকা। সেই সময় দিল্লিতে এর চেয়ে দামি বাড়ি আর ছিল না।


ধনকুবেরদের কথা হচ্ছে,আর বিল গেটস-এর কথা হবে না, তা আবার হয় নাকি? মেয়ে জেনিফার গেটস নাসের বিল গেটসের চোখের মণি৷ মাইক্রোসফ্‌ট কর্তা তাঁর কন্যার কোনও আবদার ফেলতে পারেন না। সব আবদার হাসু মুখে পূরণ কেন৷ জেনিফারের ঘোড়ার সখ৷ তিনি ঘোড়ায় চড়তেও পারদর্শী। তাই মেয়েকে আস্ত একটি আস্তাবল কিনে দিয়েছিলেন গেটস। যার দাম প্রায় ২৭৭ কোটি টাকা। আমেরিকার ফ্লোরিডার ওয়েলিংটনে বিশাল আস্তাবল তৈরি করিয়েছিলেন বিল।


উপহার দেওয়ার বিষয়ে কম যান না সমাজকর্মী তথা শিল্পপতি ক্রিস জেনার এবং তাঁর কন্যা কাইলি জেনার। কাইলির মেয়ে স্টর্মি ওয়েবস্টারকে দারুণ এক উপহার দেন তাঁর দিদা। নাতনি স্টর্মিকে বড়দিনে একটা দোতলা পুতুলের বাড়ি দিয়েছিলেন ক্রিস৷ যার ভিতরে রয়েছে আসল আসবাব এবং গালিচা। শুধু স্টর্মির জন্মদিনের পার্টিতে খরচ করেছিলেন এক লক্ষ ডলার। যা ভারতীয় মুদ্রায় প্রায়  ৮৩ লক্ষ টাকা৷ অন্যদিকে, মেয়ে স্টর্মিকে ২২ ক্যারেটের হিরের একটি আংটি দিয়েছিলেন মা কাইলি। সেই আংটির দাম কয়েক কোটি টাকা।


সন্তানকে উপহারে ভরিয়েছেন শিল্পপতি আদর পুনাওয়ালাও। তাঁর ছেলে আবার ব্যাটম্যানের ভক্ত। তাই ছোট্ট ছেলের ছ’বছরের জন্মদিনে ব্যাটম্যান যে গাড়ি চাপেন, সেই ব্যাটমোবাইল উপহার দিয়েছিলেন আদর। ২০১৫ সালে বিশেষ বরাত দিয়ে মার্সিডিজ বেঞ্জ এস ক্লাসের গাড়িকে ব্যাটমোবাইলে পরিণত করিয়েছিলেন তিনি৷ 

২০১৮ সালে শিল্পপতি আনন্দ পিরামলের সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধেন মুকেশ এবং নীতা অম্বানির একমাত্র কন্যা ঈশা। আনন্দের বাবা অজয় পিরামল এবং মা স্বাতী পিরামল পুত্র ও পুত্রবধূকে বিয়েতে একটি বিশাল বাংলো উপহার দিয়েছিলেন। যার নাম ‘গুলিতা’৷ মুম্বইয়ে অবস্থিত ওই বাড়ির দাম ৪৫০ কোটি টাকা। আম্বানিদের বাড়ি অ্যান্টিলিয়ার খুব কাছেই রয়েছে ওই বাংলো।


 

Around The Web

Trending News

You May like