Aajbikel

উদয়পুরের মেবারে রানাদের ‘অভিশপ্ত’ প্রাসাদে বসছে আমির কন্যার বিয়ের আসর

 | 
ইরা নূপুর

 মুম্বই: গত ৩ জানুয়ারি কাগুজে বিয়ে সেরেছেন তাঁরা৷ এবার পালা সামাজিক বিয়ের৷ রাজস্থানের উদয়পুরের তাজ লেক প্যালেসে বসবে আমির খানের কন্যা ইরা খান ও নূপুর শিখরের৷ এই প্যালেসের কারুকাজ নজর কাড়া৷ এর সৌন্দর্য দেখে চোখে ধাধা লাগে৷ মেবারের রানাদের বিলাসব্যসনের কেন্দ্র ছিল এই প্রাসাদ। মেবারের রানিরা এই প্রাসাদে নাতি রোদ পোহাতে আসতেন। পিচোলা লেকের ধারে ইতিহাস প্রসিদ্ধ এই লেক প্যালেসের পরতে পরতে লেখা রয়েছে অনেক গল্পকথা। শোনা যায়, এক নটিনীর অভিশাপ রয়েছে এই প্রাসাদ। তবে এর সৌন্দর্য একে গুরুত্বহীন হতে দেয়নি৷ বর্তমানে এই লেক প্যালেস তাজ গ্রুপের মালিকানাধীন। বিশ্বের সেরা তিন ঐতিহাসিক প্যালেসের মধ্যে নাম আসে এর৷ বিশ্বের নামকরা পাঁচতারা হোটেল এটি। 


লেক প্যালেসে এখন চলছে জমকালো আয়োজন। অতিথিদের জন্য ঘর বুক করা হয়ে গিয়েছে। ৬ তারিখ থেকেই এখানে নানা রকম অনুষ্ঠান শুরু হয়ে গিয়েছে। বিয়ের পর আগামী ১৩ জানুয়ারি নীতা মুকেশ আম্বানি কালচারাল সেন্টারে হবে ইরার বিয়ের গ্র্যান্ড রিসেপশন পার্টি।


অফিশিয়াল ওয়েবসাইট সূত্রে জানা যায়, লেক প্যালেসের এক একটি লাক্সারি রুমে এক রাতের ভাড়া ৬৯ হাজার টাকা থেকে শুরু। পিচোলা লেকের ভিউ পাওয়া যায় এমন গ্র্যান্ড প্রেসিডেন্সিয়াল রুম নিতে চাইলে গুনতে হবে সাড়ে দশ লক্ষ টাকা৷


আমিক-কন্যার বিয়েতে মূলত থাকছে পাঞ্জাবি খাবার৷ সেই সঙ্গে থাকবে ইতালি, আরবের নানা কুইসিন৷ জানা গিয়েছে, তাজ আরাভালি রিসর্টে ১৭৬টি রুম বুক করা হয়েছে। সেখানে মোট ২৫০ জন অতিথি থাকবেন৷ 

১৮২১ থেকে ১৮৩৮ সাল৷ মেবারের মসনদে তখন রাজস্ত করছেন রানা জওয়ান সিং। মদ্যপ রানা ভোগবিলাসেই মত্ত থাকতেন৷ একবার মদ্যপ রানার ট্রাপিজের খেলা দেখার শখ হয়। পিচোলা হ্রদের উপর বিশাল দড়ি বাঁধা হয়। রানা এক নর্তকীকে নির্দেশ দেন নাচ দেখাতে দেখাতে হ্রদের উপর বাঁধা দড়ি বেয়ে তাঁকে হাঁটতে হবে। রাজার ভয়ে দড়ির উপর দিয়ে হাঁটা শুরু করেন সেই নর্তকী। কিন্তু হ্রদ পার করার আগেই তিনি জলে পড়ে যান ও ডুবে মৃত্যু হয়৷ 

Around The Web

Trending News

You May like