Aajbikel

যুগলে ব্রাহিম-পলক, ক্যামেরা দেখেই মুখ ঢাকলেন সইফ পুত্র! প্রেমিকের সঙ্গে ছুটি কাটালেন জাহ্নবী?

 | 
ইব্রাহিম-জাহ্নবী

মুম্বই: বছরের শেষ মানেই হইহুল্লোড়-মস্তি-দেদার পার্টি। বর্ষবরণের বাড়তি উন্মাদনা। সেলিব্রিটি থেকে আমআদমি-এই সময় ছুটির মেজাজে থাকেন সকলেই। তবে সেই ছুটি এখন ওভার। ধীরে ধীরে কাজে ফেরার পালা। চেনা ছন্দে ফিরছে বলিপাড়াও। ছুটি কাটিয়ে সদ্য মুম্বই ফিরলেন জাহ্নবী কাপুরও। বিমানবন্দরে ধরা পড়লেন পাপারাৎজিদের ক্যামেরায়৷ তবে তিনি সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কোনও কথা বলেননি৷ বিমানবন্দর থেকে বেরিয়েই সোজা উঠে পড়েন গাড়িতে৷ তারপরেই দেখা যায় বনি কাপুর এবং খুশি কাপুরকে বেরিয়ে আসতে। যা থেকে এটা স্পষ্ট যে, বাবা এবং বোনের সঙ্গেই বছর শেষের ছুটি কাটাতে গিয়েছিলেন অভিনেত্রী। কিন্তু দাঁড়ান৷ এখানেই শেষ নয়৷ এর পরেই বিমানবন্দরে ফোকাস কাড়লেন শিখর পাহাড়িয়া৷ তিনিই ছিলেন এই ফ্রেমের অন্যতম আকর্ষণ৷ তাঁকে দেখামাত্রই দুইয়ে দুইয়ে চার করে নেন নেটিজেনরা৷ আরও একবার হাওয়া লাগে জাহ্নবীর সঙ্গে তাঁর সম্পর্কের গুঞ্জনে৷ 


এদিন বিমানবন্দর থেকে বেরনোর পরই সোজা নিজের বিলাসবহুল গাড়িতে উঠে পড়েন শিখর। কিন্তু  প্রশ্ন উঠেছে, তবে কি কাপুর পরিবারের সঙ্গেই বছর শেষের ছুটি কাটাতে গিয়েছিলেন শিখর? অনেকেই হয়তো জানেন না শিখর হলেন মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী সুশীলকুমার শিন্ডের দৌহিত্র৷ তিনি বরাবরই কাপুর পরিবারের ঘনিষ্ঠ। তাঁদের পারিবারিক সম্পর্কও বেশ পুরনো৷ বলিউডে কান পাতলেই শোনা যায় শিখরের সঙ্গে জাহ্নবীর সম্পর্কের ফিসফাস৷ বহুবার একসঙ্গে দেখাও গিয়েছে তাঁদের৷ এতদিন আড়াল করে রাখা সেই সম্পর্কেই কি এবার অফিশিয়াল সিলমোহর দিতে চলেছেন শ্রীদেবী-কন্যা? 


সম্প্রতি ‘কফি উইথ করণ’-এর সেটে শিখরের সঙ্গে তাঁর বিশেষ বন্ধুত্বের কথা একপ্রকার স্বীকারই করে নিয়েছিলেন পর্দার ‘রুহি’। বছরের শুরুতেই মুম্বই বিমানবন্দরে প্রায় এক সঙ্গেই দেখা গেল তাঁদের। যা গুঞ্জনে ঘি ঢেলেছে৷ আপাতত জাহ্নবী ও শিখরের সম্পর্কের অফিশিয়াল অ্যানাউন্সমেন্টের অপেক্ষায় অনুরাগীরা। 


এদিকে বলিপাড়ায় জোর গুঞ্জন, সইফ-পুত্র ইব্রাহিম আলি খান নাকি প্রেম করছেন টেলি অভিনেত্রী শ্বেতা তিওয়ারি মেয়ে পলক তিওয়ারির সঙ্গে৷  দীর্ঘদিন ধরেই এই গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। যদিও প্রকাশ্যে স্পিকটি নট দু’জনেই। সংবাদমাধ্যমের কাছ থেকে নিজেদের আড়াল রেখেই চলেন তাঁরা৷ কিন্তু ফটোশিকারিদের হাত থেকে বাঁচা সহজ নয়৷ বর্ষবরণের রাতে এক গাড়িতে লেন্সবন্দি হন ইব্রাহিম ও পলক৷ যদিও তখনও নিজেদের আড়াল করার চেষ্টা করেছিলেন ইব্রাহিম ও পলক৷ তবে তা ব্যর্থ হয়। জানা গিয়েছে, মুম্বইয়ে বর্ষবরণের একটি পার্টিতে একসঙ্গে হাজির হয়েছিলেন দুই স্টার কিডস। একই গাড়িতে ছিলেন দু’জনে। 


ইব্রাহিমের ব্যাপারে প্রশ্ন করা হলে পলক বরাবরই জানিয়েছেন তাঁরা ভাল বন্ধু। শ্বেতা-কন্যা একবার বলেছিলেন, "ও শুধুই আমার বন্ধু। আমি সোশ্যাল গ্যাদারিংয়ে ওর সঙ্গে সময় কাটাতে ভালোবাসি। কমন বন্ধুদের সঙ্গেও এখানে ওখানে যাই, তবে এমন নয় যে আমরা প্রতিদিন হাই হ্যালো করি বা কথা বলি। তবে হ্যাঁ, ও এমন একজন যাকে আমি পছন্দ করি৷" সেই পছন্দের গভীরতা কতখানি, তা মাপতেই ব্যস্ত সিনেপ্রেমীরা৷ 

Around The Web

Trending News

You May like