×

সতর্ক হওয়ার ইঙ্গিত? কঙ্গনার বাড়ির সামনে চলল কয়েক রাউন্ড গুলি

মুম্বই: সুশান্ত সিং রাজপুতের আত্মহত্যার পর বলিউডের স্বজনপোষণের বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলেছিলেন কঙ্গনা রানাউত। কিন্তু এবার কঙ্গনার বিরুদ্ধেই গর্জে উঠেছে কেউ কেউ। তাঁর মানালির বাংলোর সামনে চলল গুলি।
 
 

মুম্বই: সুশান্ত সিং রাজপুতের আত্মহত্যার পর বলিউডের স্বজনপোষণের বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলেছিলেন কঙ্গনা রানাউত। কিন্তু এবার কঙ্গনার বিরুদ্ধেই গর্জে উঠেছে কেউ কেউ। তাঁর মানালির বাংলোর সামনে চলল গুলি।

গত ১৪ জুন আত্মহত্যা করেন সুশান্ত সিং রাজপুত। তাঁর মৃত্যুর পর থেকে একের পর এক স্বজনপোষণের অভিযোগ উঠছে। করণ জোহক, আদিচ্য চোপড়া, সলমন খানের মতো অনেক তাবড় তাবড় বলিউড ব্যক্তিত্বদের বিরুদ্ধে উঠছে অভিযোগ। মামলাও দায়ের হয়েছে অনেকের নামে। অনেককে আবার মুম্বই পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদও করেছে। আর এইসব ঘটনা যখন থেকে ঘটছে, তখন থেকেই বলিউডের স্বজনপোষণ নীতির বিরুদ্ধে সুর চড়িয়েছেন কঙ্গনা রানাউত। একের পর এক বোমা ফাটাচ্ছেন তিনি। কিছুদিন আগে মহেশ ভাট সহ গোটা ভাট ক্যাম্পের বিরুদ্ধেই বিষোদগার করেছিলেন অভিনেত্রী। পূজা ভাটের কথারও পালটা জবাব দেন অভিনেত্রী। দিন দুই আগে দীপিকা পাড়কোনের বিরুদ্ধেও ক্ষোভ প্রকাশ করেন। কিন্তু এবার হামলা হল খোদ কঙ্গনা রানাউতের উপরেই।

আরও পড়ুন: উসকে উঠল পাক-যোগসূত্র! সুশান্ত-JNU ইস্যুতে দীপিকাকে খোঁচা কঙ্গনার

শুক্রবার রাত সাড়ে এগারোটা নাগাদ অভিনেত্রীর বাড়ির সামনে গুলি চলে। তিনি তখন শোওয়ার ঘরে ছিলেন। আচমকা শব্দে কেঁপে ওঠে তাঁর তিনতলা বাড়ি। প্রথমে কঙ্গনা মনে করেছিলেন বাজি ফাটছে। কিন্তু পর মুহূর্তে মনে আসে মানালিতে তো এখন কোনও পর্যটক নেই। তাই বাজি ফাটাও সম্ভব নয়। তারপর ফের শব্দ পান তিনি। তখনই বুঝতে পারেন সেটা গুলির শব্দ ছিল। সঙ্গে সঙ্গে নিরাপত্তারক্ষীর কাছে যান কঙ্গনা। সিকিউরিটি গার্ড জানান হয়তো কোনও শিশুর কারসাজি। কিন্তু শব্দটা যে গুলির ছিল, তা একপ্রকার নিশ্চিত কঙ্গনা। তাঁর মতে নিরাপত্তারক্ষী হয়তো কোনও কারণে খেয়াল করেননি।

ঘটনার পরই কুলু থানায় অভিযোগ জানান অভিনেত্রী। ডিএসপির নেতৃত্বে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। তবে তাঁদের সন্দেহ করার মতো কোনও ঘটনা ঘেনি বলে পুলিশ সূত্রে খবর। তবে সেদিন রাতে এলাকায় কোনও বহিরাগত এসেছিল কিনা, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। কঙ্গনার নিরাপত্তার স্বার্থে তাঁর বাড়িতে পুলিশকর্মী মোতায়েন রয়েছে। হিমাচল প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীর দপ্তরেও পাঠানো হয়েছে রিপোর্ট।

From around the web

Education

Headlines