×

করোনা পরিস্থিতিতে কীভাবে সম্পন্ন হবে অভিজিৎ-বিশ্বজিতের বাড়ির দুর্গাপুজো?

মুম্বই: করোনা পরিস্থিতিতে এই বছরের দুর্গাপুজো নেই কোনও উল্লাস, হুল্লোড়। দেবীপক্ষ শুরু হয়ে গিয়েছে। অন্যান্য বছর যেমন চারদিকে সাজ সাজ রব পড়ে যায় এই সময়, এ বছর তার বিন্দুমাত্র চোখে পড়ছে না। করোনা যেন সমস্ত আনন্দ কেড়ে নিয়েছে। এ অবস্থায় শুধু কলকাতার নয়, মুম্বইয়েরও। অন্যান্য বছর এই সময় অভিনেতা বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ্যায়, গায়ক অভিজিৎ ভট্টাচার্য ও মুখার্জি পরিবার যুদ্ধকালীন তৎপরতায় পুজো কাজ শুরু হয়ে যায়। কিন্তু এবছর যেন সব কিছুরই ব্যতিক্রম। আড়ম্বর হবে না মুম্বাইয়ের এই সমস্ত পুজোয়।
 


মুম্বই: করোনা পরিস্থিতিতে এই বছরের দুর্গাপুজো নেই কোনও উল্লাস, হুল্লোড়। দেবীপক্ষ শুরু হয়ে গিয়েছে। অন্যান্য বছর যেমন চারদিকে সাজ সাজ রব পড়ে যায় এই সময়, এ বছর তার বিন্দুমাত্র চোখে পড়ছে না। করোনা যেন সমস্ত আনন্দ কেড়ে নিয়েছে। এ অবস্থায় শুধু কলকাতার নয়, মুম্বইয়েরও। অন্যান্য বছর এই সময় অভিনেতা বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ্যায়, গায়ক অভিজিৎ ভট্টাচার্য ও মুখার্জি পরিবার যুদ্ধকালীন তৎপরতায় পুজো কাজ শুরু হয়ে যায়। কিন্তু এবছর যেন সব কিছুরই ব্যতিক্রম। আড়ম্বর হবে না মুম্বাইয়ের এই সমস্ত পুজোয়।

গায়ক অভিজিৎ ভট্টাচার্যের বাড়িতে প্রতি বছর দুর্গাপুজায় বলিউড তারকাদের সমাগম হয়। অনেকেই সেখানে অষ্টমীর ভোগ খেতে আসেন। আবার দশমীর সিঁদুর খেলাতেও অনেকেই অংশ নেন। কিন্তু এ বছর ব্যতিক্রম। এ বছর একটি কমিউনিটি হলে হবে অভিজিতের বাড়ির দুর্গাপুজো। উপস্থিত থাকতে পারবেন শুধু আত্মীয় ও ঘনিষ্ঠরা। কারণ ৫০ জনের বেশি লোক সমাগমের এ বছর জারি হয়েছে নিষেধাজ্ঞা। তাই প্রায় গোপনে দুর্গাপুজোর সারবেন গায়ক অভিজিৎ। তবে তিনি জানিয়েছেন পুরোহিতের সঙ্গে নিজেই পুজোয় বসবেন তিনি। ষষ্ঠী থেকে দশমী, প্রতিদিনই মায়ের সেবায় নিযুক্ত থাকবেন। তাঁর পুজো এ বছর ২৫ বছরে পা দিল। তাই প্রচুর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল এ বছর। জানা গিয়েছিল দুই মাসব্যাপী চলবে সেই অনুষ্ঠান। কিন্তু করোনার কারণে সে সবই বাতিল করতে হয়েছে।

মুম্বইয়ের আরেকটি বড় পুজো হল অভিনেতা বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়ির দুর্গাপুজো। প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় ও তাঁর স্ত্রী অর্পিতা এই সময় মুম্বই যান। অতিথিদের আপ্যায়ণে ব্যস্ত থাকেন তাঁরা। কিন্তু এ বছর সেসব কিছুই হবে না। অর্পিতা মুম্বাই যাচ্ছেন না। বিয়ের পর থেকে এই প্রথমবার তাঁর বাড়ির পুজোয় যাওয়া বাতিল হল। জানা গিয়েছে চট্টোপাধ্যায় বাড়ির পুজো নমো নমো করে সারা হবে। কোনও আড়ম্বর এ বছর হবে না। খুব সীমিত সংখ্যক লোকজন নিয়ে শুধুমাত্র ঘট পূজা করে দেবী বন্দনা সম্পন্ন হবে। এছাড়া এই করোনা আবহে বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের বয়সের কথাও মাথায় রাখা রাখতে হচ্ছে প্রসেনজিৎ ও অর্পিতাকে। করোনা মূলত বয়স্কদের উপর প্রভাব ফেলছে বলে বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ্যায়কে নিরাপদে রাখতে অতিথির আগমন ও বছরের মতো বাতিল করা হয়েছে।

মুম্বইয়ে আরেকটি বড় দুর্গাপুজো হল রানি মুখোপাধ্যায় ও কাজলের বাড়ির পুজো। মুম্বাইয়ে সেলিব্রিটিদের মধ্যে এটি অন্যতম বিখ্যাত পুজো। এই দুর্গাপুজোয় উপস্থিত হন না এমন বলিউড তারকা প্রায় নেই বললেই চলে। কিন্তু এই বছর সে সব হবে না বলেই খবর। ছোট করে হবে মুখার্জি বাড়ির পুজোও। যদিও রানি বা কাজল এখনও এ নিয়ে কিছু বলেননি। তবে শোনা যাচ্ছে শুধু পরিবারের সদস্য ও ঘনিষ্ঠ আত্মীয়দের উপস্থিতিতেই এই বাড়িতেও দুর্গাপুজো সম্পন্ন হবে।  

From around the web

Education

Headlines