×

Ram setu Review: চিত্রনাট্যের খামতি, অক্ষয়ের কাঁধে ভর দিয়ে তরী পার করতে পারবে ‘রামসেতু’?

 
রাম সেতু

মুম্বই: কমেডির মোড়কে ইতিহাসের গল্প শোনাল ‘রামসেতু’৷ সাংস্কৃতিক, ধর্মীয়, সামাজিক-রাজনৈতিক বিশ্বাসের ওপর ভর করে তৈরি হয়েছে এই ছবি৷ ‘রামসেতু’র মুখ্যচরিত্রে রয়েছেন অক্ষয় কুমার, জ্যাকলিন ফার্নান্ডেজ, নুসরত ভারুচা৷ অ্যাকশন অ্যাডভেঞ্চার ও কমেডির ককটেলে তৈরি 'রামসেতু'-র গল্পে মিশে গেল ইতিহাস আর পুরাণ৷  

আরও পড়ুন- শরীরে ভালোবাসার ছোঁয়া! লাভ বাইট নিয়ে চর্চার মাঝেই প্রাক্তন প্রেমিকের সঙ্গে লেন্সবন্দি জাহ্নবী

                  

ভারতে রাম শুধু ভগবান নয়, তিনি একজন রাজা এবং বীর যোদ্ধা৷ প্রভু শ্রীরামকে নিয়ে ভারতীয় ভূখণ্ডে যে আবেগ রয়েছে, তাতে 'রামসেতু'-কে নিয়ে কোনও ছবি হলে তার চর্চা হবে না, সেটা হতে পারে না। তাই সকলের মুখে এখন অক্ষয় কুমারের 'রাম সেতু'-র কথা৷  তেমনই একটি ছবি। কিন্তু শুধু রামের ভাবাবেগ কী বক্সঅফিসে সাফল্য এনে দিতে পারবে এই ছবিকে? 

‘রামসেতু’র সবচেয়ে ইতিবাচক দিক হল এই ছবির সঙ্গে রামের নাম জড়িয়ে রয়েছে। আর সবচেয়ে নেতিবাচক দিক হল এই ছবির গল্প। রামসেতু কিছুটা ন্যাশনাল ট্রিজার সিরিজ থেকে অনুপ্রাণিত৷ তবে পরিচালক অভিষেক শর্মার কাছ থেকে যে প্রত্যাশা ছিল দর্শকের, তা কতটা পূরণ হয়েছে, তা নিয়ে প্রশ্ন থাকতেই পারে। ছবির চিত্রনাট্য আরও টানটান হওয়া উচিত ছিল। ছবিটিতে যথেষ্ট তথ্য পরিবেশ করা হয়েছে৷ কিন্তু কিছু কিছু জায়গা এত বেশি তথ্যবহুল হয়ে গিয়েছে যে চিত্রনাট্য তার স্বাভাবিক গতি হারিয়েছে৷ একটা পর্যায়ে গিয়ে 'রামসেতু'-কে তথ্যচিত্র মনে হতে পারে। ছবির গ্রাফিক্সও কিছুটা দুর্বল বলেই মনে হয়েছে৷ 


তবে এই ছবিতে ভিন্ন লুকে ধরা দিয়েছেন বলিউডের খিলাড়ি। একের পর এক ছবিতে অক্ষয়ের একই লুক অনেকেরই হয়তো একঘেয়ে লেগে থাকতে পারে৷ সেখানে দাঁড়িয়ে 'রামসেতু' কিছুটা হলেও আপনাকে ভিন্ন স্বাদ দেবে। লম্বা চুল আর গোল ফ্রেমের চশমায় অক্ষয়কে বেশ দেখতে লেগেছে। তাঁর অভিনয় নিয়ে কোনও মন্তব্য করার জায়গা থাকে না৷ এই ছবিতে নিজের চরিত্রে যথাযথ অভিনয় করেছেন অক্ষয়। তবে চিত্রনাট্যের আলগা বাঁধুনিতে দর্শকদের মনে তেমন দাগ কাটতে পারবে না ‘রামসেতু’৷ 


ছবিতে জ্যাকলিন ফার্নান্ডেজের অভিনয় একেবারেই যথাযথ৷ তবে তাঁর অনুপস্থিতিতেও এই ছবির গল্পে তেমন পরিবর্তন আসত না। নুসরত ভারুচার ক্ষেত্রেও একই কথা বর্তায়। সে ভাবে অভিনয়ের সুযোগই পাননি তিনি৷ অক্ষয় ছাড়া এই ছবিতে একমাত্র নজর কেড়েছেন দক্ষিণী তারকা সত্যদেব৷৪


এই ছবির  গল্প শুরু হয় 'রামসেতু' ভাঙার প্রচেষ্টা নিয়ে। এখানে অক্ষয় একজন ইতিহাসবিদ৷ সেই সঙ্গে তিনি একজন নাস্তিক। তাঁকে কাঁধে দায়িত্ব দেওয়া হয় এটা প্রমাণ করার জন্য যে  'রামসেতু' কোনও পৌরাণিক চরিত্র তৈরি করেনি। সত্য, পুরাণ ও ইতিহাসের সন্ধানেই এগিয়ে চলবে ছবির গল্প।
এই ছবিটিকে খুব ভাল বা খুব খারাপ বলার জায়গা নেই৷ তবে পরিবারের সঙ্গে বসে দেখার মচো। বাচ্চারা এই ছবি থেকে অনেক তথ্য জানতে পারবে৷
                                          

 

From around the web

Education

Headlines