Aajbikel

সরকারি নির্দেশের পরও খোলেনি কারখানা, গেটের বাইরে শ্রমিকদের দীর্ঘ আপেক্ষা!

 | 
সরকারি নির্দেশের পরও খোলেনি কারখানা, গেটের বাইরে শ্রমিকদের দীর্ঘ আপেক্ষা!

বারাকপুর: দীর্ঘ লকডাউন পরিস্থিতি কাটিয়ে একটু একটু করে স্বাভাবিক হচ্ছে দেশ৷ করোনা পরিস্থিতি ১০০% নিয়ন্ত্রণে না এলেও বিপুল আর্থিক ক্ষতি রুখতে শর্তসাপেক্ষে কাজ শুরুর অনুমতি পেয়েছে একাধিক ছোট-বড় উৎপাদক সংস্থা৷ ১৫% কর্মী নিয়ে কলকারখানা চালানোর ছাড়পত্র দিয়েছেন খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ নবান্ন থেকে ঘোষণা করেছেন তিনি৷ কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণার পর, এক রাশ প্রত্যাশা নিয়ে কাজে অংশ নিতে গিয়েছিলেন বারাকপুর শিল্পাঞ্চলে শ্রমিকদের একাংশ৷ কিন্তু, কাজে যোগ দিতে গিয়েও খালি হাতে ফিরতে হল শ্রমিকদের৷

সংবাদ সংস্থা এএনআই সূত্রে জানা গিয়েছে, রাজ্য সরকারের ঘোষণা অনুযায়ী ১৫% কর্মী দিয়ে কল-কারখানা চালুর কথা বলা হয়েছিল৷ সেই অনুযায়ী আজ সকাল সকাল বন্ধ কারখানার গেটে হাজির হয়ে যান শ্রমিকদের একাংশ৷ কিন্তু কারখানার মূল গেট তালা ঝুলতে দেখে ক্ষুব্ধ হয়ে পড়েন শ্রমিকরা৷ কারখানার গেটে দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করার পর খালি হাতে বাড়ি ফিরে যেতে বাধ্য হন শ্রমিকদের একাংশ৷ পরে সংবাদ সংস্থা এএনআইকে শ্রমিকদের একাংশ জানিয়েছেন, ‘‘খোলেনি কারখানা৷ আমরা বহুক্ষণ ধরে অপেক্ষা করছিলাম৷ ফোন করেছিলাম কর্তৃপক্ষকে৷ কিন্তু তিনি আমাদের কোনও উত্তর দিতে পারেননি৷’’

ফলে কর্তৃপক্ষের তরফে কোনও সদুত্তর না পেয়ে কাজ করতে আসা শ্রমিকরা হতাশ হয়ে কার্যত বাড়ি ফিরে গিয়েছেন৷ আর তাতেই প্রশ্ন উঠছে, রাজ্য সরকারের ঘোষণার পরও কেন উত্তর ২৪ পরগনা জেলার বারাকপুরের শিল্পতালুকে এখনও কেন বন্ধ অধিকাংশ কল কারখানা? কবে চালু হবে সেই কারখানাগুলি? মিল খোলার অপেক্ষায় দিন গুনছেন লকডাউনে কাজ হারানো কয়েক হাজার শ্রমিক৷

Around The Web

Trending News

You May like