Aajbikel

অর্থনৈতিক ডামাডোলেও সম্পত্তির বাড়বাড়ন্ত! চাইলে গোটা বিশ্ব কিনতে পারেন এই ১০ ধনকুবের

 | 
ধনকুবের

নিউ ইয়র্ক:  করোনা পরিস্থিতির পর বিশ্বজুড়ে তৈরি হয় অর্থনৈতিক ডামোডোল৷ তার উপর মূল্যবৃদ্ধি, মুদ্রা স্ফীতিতে নাভিশ্বাস উঠেছে সাধারণ মানুষের৷ চরম দারিদ্রতার মধ্যে ডুবে গিয়েছে এক শ্রেণির মানুষ৷ অন্যদিকে, ক্রমাগত বেড়েই চলেছে ধনকুবেরদের সম্পত্তির পরিমাণ৷ তাঁদের সম্পত্তি উত্তরোত্তর বৃদ্ধিতে চোখ কপালে ওঠার জোগার৷ চিনে নিন এই মুহূর্তে বিশ্বের প্রথম ১০ ধনকুবেরকে৷  

আরও পড়ুন- Sovereign Gold Bond Scheme 2022-23: সস্তায় ৪ কেজি পর্যন্ত সোনা কেনার দারুণ সুযোগ

এই মুহূর্তে বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি হলেন ইলন মাস্ক৷ তাঁর টুইটার কেনার খবরে সাড়া পড়ে গিয়েছিল গোটা বিশ্বে৷ সেই মাস্ক ২৫১.৪ বিলিয়ন ডলারের মালিক৷ ২০২১ সাল পর্যন্ত ফোর্বসের তালিকায় তিনি ছিলেন দ্বিতীয়৷ গত এক বছরে বহু গুণ সম্পত্তি বাড়িতে প্রথম স্থানে চলে আসেন তিনি৷ 
 

এই তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন অ্যামাজন কর্তা জেফ বেজোস। বিবাহবিচ্ছেদের পর প্রাক্তন স্ত্রীকে বিপুল অঙ্কের ধন দিতে হয় এই কুবেরকে৷ এর পরেই নিজের সাম্রাজ্য বাঁচিয়ে রেখেছেন জেফ। তাঁর মোট সম্পত্তির পরিমাণ ১৫৩.৪ বিলিয়ন ডলার। 


অন্যদিকে, সকলকে চমকে তৃতীয় স্থানে উঠে এসেছেন ভারতীয় শিল্পপতি গৌতম আদানি। আম্বানিদের পিছনে ফেলে দেশে প্রথম গৌতম৷ দেশের মাটি ছেড়ে  বিদেশ বিভুঁইয়েও ব্যবসার প্রসার ঘটাচ্ছেন তিনি। তাঁর ভাণ্ডারে রয়েছে ১৩৭.৪ বিলিয়ন ডলার।


চতুর্থ স্থান দখল করেছেন ফরাসি শিল্পপতি বার্নার্ড জঁ ইতিয়েঁ আর্নৌ। এই বিনিয়োগকারী এবং শিল্প সংগ্রাহক LVMH Moët Hennessy- লুই ব্যুঁইতো-SE-র সহ-প্রতিষ্ঠাতা৷ সেই সঙ্গে তিনি চেয়ারম্যান তথা চিফ একজিকিউটিভও বটে। তাঁর মোট সম্পত্তির পরিমাণ ১৩৬ বিলিয়ন ডলার।

পঞ্চম স্থানে রয়েছেন মাইক্রোসফ্টের সহ-প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস৷ ধনকুবেরের দৌড়ে কিছুটা পিছিয়ে পড়লেও, তাঁর ক্যারিশ্মা বিন্দুমাত্র কমেনি। তাঁর মোট সম্পত্তির পরিমাণ ১১৭.৫ বিলিয়ন ডলার। 


ষষ্ঠ স্থানে রয়েছেন আমেরিকার শিল্পপতি ওয়ারেন বাফে৷ নবতিপর এই শিল্পপতির মোট সম্পত্তির পরিমাণ ১০০ বিলিয়ন ডলার। ৯২ বছরেও ‘কচিকাঁচা’দের দশ গোল দিচ্ছেন তিনি। 

সপ্তম স্থানে রয়েছেন আমেরিকার আরও এক শিল্পপতি, ল্যারি পেজ ওরফে লরেন্স এডওয়ার্ড পেজ। তিনি গুগলের সহ প্রতিষ্ঠাতা৷ সেরগেই ব্রিনের সঙ্গে গুগলের প্রতিষ্ঠার জন্যই তাঁর পরিচিতি৷ তাঁর মোট সম্পত্তির পরিমাণ ১০০ বিলিয়ন ডলার।

অষ্টম স্থানে রয়েছেন ল্যারিরই প্রাক্তন সতীর্থ সেরগেই ব্রিন। ২০০৫ সালে ব্রিন অন্যতম 'ইয়াং গ্লোবাল লিডার' হিসাবে মনোনীত হন। টেসলা মোটরসের অন্যতম কর্ণধার সেরগেই ব্রিন ইলেকট্রিক চালিত যানের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। ৪৯ বছর বয়সি সেরগেইয়ের মোট সম্পত্তির পরিমাণ ৯৫.৮ বিলিয়ন ডলার।


বিশ্বের নবম ধনকুবের হলেন মাইক্রোসফ্টের প্রাক্তন সিইও তথা বর্তমানে আমেরিকার ন্যাশনাল বাস্কেটবল অ্যাসোসিয়েশনের লস অ্যাঞ্জেলস ক্লিপার্স-এর মালিক স্টিভেন অ্যান্টনি বলমার৷ তাঁর মোট সম্পত্তির পরিমাণ ৯৩.৭ বিলিয়ন ডলার।


Oracle কর্পোরেশনের সহ-প্রতিষ্ঠাতা, একজিকিউটিভ চেয়ারম্যান, চিফ টেকনোলজি অফিসার লরেন্স জোসেফ এলিসন রয়েছেন এই তালিকায় দশম স্থানে৷ তাঁর মোট সম্পত্তির পরিমাণ ৯৩.৩ বিলিয়ন ডলার।


 

Around The Web

Trending News

You May like