Aajbikel

সংস্থার দুর্দিনে কর্মীদের লভ্যাংশ দেওয়ার ঘোষণা, প্রাণ পেল কয়েক হাজার পরিবার

 | 
সংস্থার দুর্দিনে কর্মীদের লভ্যাংশ দেওয়ার ঘোষণা, প্রাণ পেল কয়েক হাজার পরিবার

 ওয়াশিংটন:  সংস্থার উন্নতির লভ্যাংশ পাবেন কর্মীরা। মালিকের এহেন প্রতিশ্রুতিতে উন্নতি এসেছে সংস্থায়। জানাচ্ছেন খোদ প্রতিষ্ঠাতাই। ইলেকট্রিক ট্রাক স্টার্ট আপ হিসেবে কাজ শুরু করা নিকোলা কর্পোরেশনের প্রতিষ্ঠাতা তথা চেয়ারম্যান ট্রেভর মিল্টন জানিয়েছেন সংস্থার প্রথম ৫০জন কর্মীকে কাজে নেওয়ার সময় এই প্রতিশ্রুতি দেন তিনি। ফলে নিজের লভ্যাংশ থেকে ৬ মিলিয়ন ডলার সংস্থার কর্মীদের দিয়েছেন।

তিনি বলেন সংস্থা শুরুর সময় তিনি পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ কাজের মানুষদের খুঁজছিলেন নিজের সংস্থার জন্য। আর সেসময তা ছিল সবচেয়ে কঠিন কাজ। নিজের ইনস্টাগ্রাম পেজে একটি ভিডিও পোস্ট করে একথা জানান মিল্টন। সেসময় ওই কাজে সফল হওয়া অসম্ভবেরই নামান্তর ছিল। কিন্তু ভাগ্যক্রমে একদল কর্মী তিনি খুঁজে পান যাঁরা তাঁর সঙ্গেই প্রথম দিন থেকে কাজ শুরু করেন। যে সংস্থার শেয়ার এখন তিনি বিভিন্ন ব্যবসায় লাগাচ্ছেন তার বর্তমান মূল্য প্রায় ২৩৩ মিলিয়ন ডলার।

চলতি বছরের জুনে নাসডাকের সঙ্গে ইলেকট্রিক যান তৈরীর স্বার্থে যৌথভাবে কাজ শুরু পর থেকেই নিকোলার শেয়ারের দর বাড়তে থাকে। তবে এখনও পর্যন্ত একটিও গাড়ি তৈরী করেনি সংস্থা। ট্রেভর মিল্টন, একজন স্বঘোষিত শিল্পপতি, যিনি সোশ্যাল মিডিয়াকে নিজের সংস্থার প্রচারের জন্য বহুলাংশে ব্যবহার করে থাকেন। বিশ্বের প্রথম ৫০০ জন ধনী মানুষের তালিকা তৈরী করা ব্লুমবার্গ বিলিয়নেয়ার্স ইনডেক্স অনুসারে মিল্টনের সম্পত্তির পরিমাণ ৪.৬ বিলিয়ন ডলার।

টুইটারে মিল্টন জানিয়েছেন নিজের শেয়ার বিক্রি করার কোনও ইচ্ছাই তাঁর নেই। তবে তাঁর কাছে নিজের অংশের বিনিময়ে চাকা ধার করার জন্য নিকোলার বোর্ডের অনুমতি রয়েছে। একটি ঘোষণায় মিল্টন দাবি করেন, ভালো কাজ করলে ভবিষ্যতে আয় বাড়বে প্রচুর। তিনি বলেন কে জানে কতদূর এই সংস্থা পৌঁছবে কিন্তু তিনি খুশি যে তিনি তাঁর কথা রাখতে পেরেছেন। তবে শুরুর দিকের সব কর্মীরাই কিন্তু লভ্যাংশের সুবিধা পাননি, কারণ বেশ কিছু কর্মী ইতিমধ্যেই সংস্থা ছেড়ে অন্যত্র কাজে যোগ দিয়েছেন।

Around The Web

Trending News

You May like