Aajbikel

সুখবর! অবশেষে ই-শপিং পরিষেবা চালু করল জিও

 | 
সুখবর! অবশেষে ই-শপিং পরিষেবা চালু করল জিও

কলকাতা: ইঙ্গিত আগেই মিলেছিল৷ এবার ফেসবুকের সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধার পরই অনলাইন শপিং পরিষেবা খুলে দিল জিও৷ নয়া এই পরিষেবার নাম দেওয়া হয়েছে জিওমার্ট৷

জানা গিয়েছে, আতাতত এই পরিষেবাটি পরীক্ষামূলকভাবে চালু হয়েছে৷ লকডাউন পর্বকে বেছে নিয়ে রিলায়েন্স জিও’র তরফে জানানো হয়েছে, মহামারীর এই পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষের হাতে জরুরি পরিষেবা পৌঁছে দেওয়ার উদ্দেশ্যেই পথ চলা শুরু করেছে জিওমার্ট৷ গত বছর থেকেই ই-শপিং ব্যবসা শুরু করার প্রস্তুতি নিয়েছিল জিও৷ অবশেষে লকডাউন পর্বে তা বাস্তবায়িত হল৷ তবে, এখন এই পরিষেবা শুধুমাত্র মুম্বই ও থানেতে পাওয়া যাবে৷ ধাপে ধাপে গোটা ভারতে ছড়িয়ে পড়বে এই পরিষেবা৷

এই ব্যবস্থায় কীভাবে লাভবান হবেন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা? ছোট ব্যাবসায়ী বা পাড়ার ছোট দোকান এবার নিজের এলাকা ছাড়াও দূরদুরন্ত মালপত্র পৌঁছে দিতে পারবে Reliance Jio Mart-এর মাধ্যমে৷ মনে করা হচ্ছে ফেসবুক-whats app থেকে অর্ডার জিও মার্টের মাধ্যমে দোকানদারদের কাছে পৌঁছে যাবে৷ এবার শ্যমবাজারের মুদিও সল্টলেকে ডাল, চাল, নুন, তেল সরবরাহ করতে পারবে৷ কানাঘুষো ছিলই৷ এবার, তা বাস্তবের আলোয় আলোকিত হল৷ Reliance Jio তে বিনিয়োগ করেছে ফেসবুক৷ Reliance Telecom এবং Facebook এর মালিক, যথাক্রমে, মুকেশ আম্বানি এবং মার্ক জুকারবার্গ বিবৃতি দিয়ে এই চুক্তির তথ্য জানিয়েছেন৷

ফেসবুক , জিও-যে ৪৩৫৭৪ কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছে। যা খবর, মার্ক জুকারবার্গ ৯.৯৯ শতাংশ শেয়ার কিনে নিয়েছে জিও-র। কয়েক সপ্তাহ ধরেই সারা ভারতের বণিক মহলে কানাঘুষো চলছে, ফেসবুকের সঙ্গে যৌথভাবে জিও একটি সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্ম তৈরি করতে চাইছে। অনেকটা চিনের 'We Chat' এর মতই। সেখানে, মানুষের সাথে মানুষের যোগাযোগই নয়, থাকবে পণ্য কেন বেচার ব্যবস্থাও৷

বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, ফেসবুক ও তার মালিকানায় থাকা Whats App , দেশের জিও নেটওয়ার্কের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে ভারতের ই-কোমনার্সের বাজারে বড়সড় আলোড়ন ফেলতে যাচ্ছে৷ জিও এবং ফেসবুক তাদের নিজেদের বক্তব্য জানিয়েছে, তারা ভারতের বাজারে একযোগে কাজ করবে। লক্ষ্য, ভারতের ই-কমার্স বাজার। জিও নেটওয়ার্কের রয়েছে জিও মার্ট। এই ই-কমার্স ব্যবস্থা Jio App ডাউনলোড করলে পাওয়া যায়৷

Reliance Industries Limited এর chairman এবং MD মুকেশ আম্বানি বলেছেন, ‘‘এলাকার ছোটছোট দোকানদার এই সুবিধা পাবেন৷ জিও মার্ট এবং WhatsApp এর মাধ্যমে দেশের ৩ কোটি ছোট ব্যাবসা উপকৃত হবেন৷’’ অন্যদিকে, ফেসবুকের কর্ণধার মার্ক জুকারবার্গ বলেছেন, ভারতে ৬০ মিলিয়ন ছোট ব্যাবসা রয়েছে। তাঁদের জন্য এই সুযোগ দিতে চাই।" মনে রাখা প্রয়োজন, পৃথিবীতে ভারতেই সব থেকে বড় বাজার রয়েছে ফেসবুক এবং তাদের নিয়ন্ত্রণাধীন Whats App এর।

Around The Web

Trending News

You May like