Aajbikel

গাড়ি শিল্পে চরম ধাক্কা, তলানিতে বিক্রি! বাড়ছে কর্মী ছাঁটাই শঙ্কা

 | 
গাড়ি শিল্পে চরম ধাক্কা, তলানিতে বিক্রি! বাড়ছে কর্মী ছাঁটাই শঙ্কা

নয়াদিল্লি: করোনার জেরে বিশ্ব অর্থনীতিতে মন্দার আশঙ্কা বহুদিন আগেই করেছিলেন অর্থনীতিবিদরা। গোটা দেশ জুড়ে লকডাউন পরিস্থিতি দেশের ক্ষেত্রেও সঙ্কটজনক পরিস্থিতি তৈরি করেছে। যার ফলে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে দেশীয় শিল্পও। অটোমোবাইল শিল্পের ক্ষেত্রেও একই আশঙ্কা করা হচ্ছে। এই মুহূর্তের ব্যবসা বাণিজ্যই যে ক্ষতির মুখে পড়ছে, শুধুমাত্র তা নয়, বরং বর্তমান অর্থবর্ষে গাড়ি বিক্রি রেকর্ডহারে কমবে বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। সোসাইটি অফ ইন্ডিয়ান অটোমোবাইল ম্যানুফ্যাকচারার্স (এসআইএএম) জানিয়েছে, ৪৫ শতাংশ বিক্রি কমতে পারে অটোমোবাইল শিল্পে।

এসআইএএম-এর অন্তর্ভুক্ত সংস্থাগুলি হল মারুতি সুজুকি, টাটা মোটরস, মাহিন্দ্রা অ্যান্ড মাহিন্দ্রা, হিরো মোটোকর্প, টোয়োটা মোটরস, হুন্ডাই মোটর, ফোর্ড প্রভৃতি। গত সপ্তাহেই তাদের তরফে সরকারকে জানিয়েছে ভারতীয় অর্থনীতির সঙ্গে অটোমোবাইল শিল্পের বাণিজ্যের বিশেষ সম্পর্কের কথা। এমনিতেই গত অর্থবর্ষে ক্ষতির মুখে পড়েছিল তারা। অর্থনীতির বেহাল দশার জন্য গত অর্থবছরে  এসইউভি, ট্রাক, মোটরবাইক, গাড়ির বিক্রি ১৮ শতাংশ কমেছিল। বর্তমানে করোনা মহামারীর জন্য সেই পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ হয়ে উঠছে বলেই জানিয়েছে সংগঠনটি।

এসআইএএম প্রেসিডেন্ট রাজন ওয়াধেরা সড়ক পরিবহন মন্ত্রককে এক সপ্তাহ আগেই এক বৈঠকে জানিয়েছিলেন, দু'বছরে অটোমোবাইল শিল্পের ক্ষেত্রে যদি ৪০ শতাংশ থেকে ৫০ শতাংশ বিক্রি কমে, তাহলে তা গত এক দশকের নিরিখে রেকর্ড হয়ে দাঁড়াবে। এদিনের বৈঠকে সংগঠনের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট তথা মাহিন্দ্রা অ্যান্ড মাহিন্দ্রার ম্যানেজিং ডিরেক্টর পবন গোয়েঙ্কা এই প্রসঙ্গে লকডাউনের জেরে বর্তমানের সমস্যার কথা তুলে ধরেছেন। করোনা ভাইরাস কোভিড ১৯ মোকাবিলায় মার্চ মাসের শেষ থেকেই গোটা দেশ জুড়ে লকডাউন জারি হয়েছে। তখন থেকেই অটোমোবাইল সংস্থাগুলি ক্ষতির মুখে পড়েছে। বিক্রিও একপ্রকার বন্ধ বলে সংবাদসূত্রে প্রকাশ। মারুতি, হুন্ডাইয়ের মতো সংস্থাগুলি পুনরায় উৎপাদনের পরিকল্পনা করলেও বহু সংস্থা এই মুহূর্তে পিছিয়ে যাচ্ছে।

Around The Web

Trending News

You May like