Aajbikel

জনতার ক্রয় বাড়ালে বাঁচবে দেশ, দিতে হবে ১০ হাজার টাকা, পরামর্শ অভিজিতের

 | 
জনতার ক্রয় বাড়ালে বাঁচবে দেশ, দিতে হবে ১০ হাজার টাকা, পরামর্শ অভিজিতের

নয়াদিল্লি: চোখ রাঙাচ্ছে করোনা৷ বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা৷ করোনা ঠেকাতে ইতিমধ্যেই তৃতীয় দফায় দীর্ঘ লকডাউনের ঘোষণা করা হয়েছে৷ দেওয়া হয়েছে কিছু ছাড়াও৷ ২৪ দিনের বন্দিভারতে নিয়ন্ত্রণে আসেনি করোনার তাণ্ডব৷ দীর্ঘ লকডাউন পর্বে কাজ হারি ফিরে গিয়েছেন বহু পরিযায়ী শ্রমিক৷ এখনও চলছে তাঁদের ঘরে ফারার পর্ব৷ কোথাও কোথাও শুরু হয়েছে কর্মী ছাঁটাইয়ের প্রক্রিয়া৷ ইতিমধ্যেই একাধিক সংস্থা কর্মীদের বেতন প্রায় অর্ধেক করে দিয়েছে৷ ধুঁকছে ছোট ও ক্ষুদ্র শিল্প৷ মুখ থুবড়ে পড়েছে দেশের শেয়ারবাজার৷ আর এই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে কীভাবে আগামীদিনের অর্থনীতি বাঁচানো যেতে পারে, তারই বার্তা দিলেন খোদ নোবেলজয়ী অর্থনীতীবীদ অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়৷ আজ রাহুল গান্ধীর সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দেশের অর্থনীতি বাঁচাতে জনতার ক্রয় ক্ষমতা বাড়ানোর উপর গুরুত্ব দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন বাঙালি নোবেলজয়ী অর্থনীতীবীদ৷

করোনার জেরে দেশের বেহাল অর্থনীতিকে বাঁচিয়ে তুলতে কী করণীয় তা জানতে বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে কথা বলছেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধি৷ রিজার্ভ ব্যাংকের প্রাক্তন গভর্নর রঘুরাম রাজনের সঙ্গে প্রথম দফায় গুরুত্বপূর্ণ আলোচনায় বসেন রাহুল৷ আজ সকালে দ্বিতীয় পর্বে করোনা সংকটে অর্থনীতির সুলুক সন্ধান নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে ভিডিও বার্তায় অংশ নেন রাহুল গান্ধী৷ ভিডিও বার্তায় অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, করোনা সংকটকালে এখন সবাইকে রেশন দিতে হবে৷ যে চাইছেন তাঁকেই রেশন দেওয়া উচিত৷ প্রয়োজন আরও বেশি আর্থিক প্যাকেজ৷

করোনা পরিস্থিতি কাটিয়ে উঠে কীভাবে পরিস্থিতি মেকাবিলা করা যেতে পারে, তা নিয়েও বিস্তারিত আলোচনা করেন অভিজিৎ-রাহুল৷ অর্থনীতিকে বাঁচাতে সাধারণ জনতার ক্রয় ক্ষমতা বাড়ানোর পক্ষেও সওয়াল করেন নোবেলজয়ী৷ জানান, যত বেশি মানুষের হাতে নগদ টাকা থাকবে, যত তাঁদের ক্রয় ক্ষমতা বাড়বে, ততই বেশি উজ্জ্বল হবে অর্থনীতির ভবিষ্যৎ৷

অভিজিতের আশঙ্কা, করোনার জোরে ধাক্কা খাবে দেশের অর্থনীতি৷ বাজারে চাহিদা বাড়াতে মানুষের হাতে টাকা জোগান বাড়াতে হবে৷ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্পের জন্য চাই পর্যাপ্ত আর্থিক প্যাকেজ৷ সংস্থাগুলিকে দেউলিয়া হওয়া থেকে রক্ষা করতে দরকার ঋণমকুবের মতো গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত৷ ‌লকডাউনের জেরে দারিদ্র মোকাবিলা এখন প্রধান চ্যালেঞ্জ৷ সাধারণ জনতার অ্যাকাউন্টে ১০ হাজার টাকা করে পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা করতে হবে৷ যাতে তাঁদের ক্রয় ক্ষমতা বাড়ে৷ সেদিকে নজর রাখতে হবে৷ আর তা না হলে অর্থনীতির মন্দা মোকাবেলা করা সম্ভব নয় বলেও মত প্রকাশ করেছেন অভিজিৎ৷
এর আগে একই পারামর্শ দিয়েছেন আরবিআইয়ের প্রাক্তন গভর্নর রঘুরাম রাজন৷ দরিদ্রদের হাতে টাকা পাঠানোর ব্যবস্থার কথাও জানান তিনি৷

Around The Web

Trending News

You May like