Aajbikel

করোনা আবহেও লক্ষ্মীলাভ ভারতের! FDI-তে বিশ্বে এক নম্বর চিন

 | 
করোনা আবহেও লক্ষ্মীলাভ ভারতের! FDI-তে বিশ্বে এক নম্বর চিন
 

নয়াদিল্লি: প্রায় বছর খানেকের বেশি সময় ধরে গোটা বিশ্বে চলেছে করোনা ভাইরাসের দাপট। করোনা শুধু বহু মানুষের প্রাণই নেয় নি, এই ভাইরাসের অতীমারী মানুষের রোজকার জীবনকেই দিয়েছে এলোমেলো করে। করোনার কোপে যখন বেহাল বিশ্বের অর্থনৈতিক পরিস্থিতি, তখন ভারতের কিছু পরিসংখ্যান কিন্তু বেশ চমকপ্রদ।

২০২০ সালে অতিমারীর কোপে যখন গোটা বিশ্বে আর্থিক অবস্থার অবনতি হয়েছে, তখন ভারতের বৈদেশিক বিনিয়োগে দেখা গেছে বৃদ্ধির হার। গত বছর ভারতের বৈদেশিক বিনিয়োগ তথা এফডিআই (Foreign Direct Investment) ১৩% বৃদ্ধি লাভ করেছে, এমনটাই জানা গেছে সম্প্রতি উঠে আসা খবরে। জানা গেছে, বৃদ্ধি পেয়ে ভারতের এফডিআই এখন হয়ে দাঁড়িয়েছে ৫৭ বিলিয়ন ডলার। গত বছর অর্থাৎ ২০১৯ সালের তুলনায় বিদেশী বিনিয়োগে এই বৃদ্ধি অনেকটাই বেশি, জানিয়েছে রাষ্ট্রসংঘের রিপোর্ট।

বস্তুত, রাষ্ট্রসংঘের বাণিজ্য ও উন্নয়ন পরিষদের তরফ থেকে সম্প্রতি প্রকাশ করা হয়েছে বিভিন্ন দেশের বৈদেশিক বিনিয়োগের হ্রাস বৃদ্ধির তালিকা। আর সেখানেই দেখা গেছে ভারতের উন্নতির পরিসংখ্যান। তবে শুধু ভারতই নয়, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণে জর্জরিত বছরটিতে আরো এক দেশের এফডিআইতে  দেখা গেছে বৃদ্ধির গ্রাফ। আমেরিকাকে পিছনে ফেলে দিয়ে বিশ্বের সেরা এফডিআই ধারক হয়েছে চিন। ২০২০ সালে চিনের এফডিআই গিয়ে দাঁড়িয়েছে ১৬৩ বিলিয়ন ডলারে।

রাষ্ট্রসংঘের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ভারত এবং চিন ছাড়া ২০২০ সালে বিশ্বের আর কোনো দেশেই বৈদেশিক বিনিয়োগ বৃদ্ধি পায় নি। বরং আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেনের মতো উন্নত দেশ গুলিও এফডিআইতে নজিরবিহীন ঘাটতির সাক্ষী থেকেছে। মূলত ডিজিটাল অর্থনীতিতে বিনিয়োগই ভারতের এফডিআই বৃদ্ধির নেপথ্যে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে বলে মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহলের একাংশ।

উল্লেখ্য, করোনা সংক্রমণের মোকাবিলায় গত বছরের মার্চ মাস থেকে গোটা ভারত জুড়ে সম্পূর্ণ লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছিল। এর ফলে ভারতের মতো উন্নয়নশীল  দেশের অর্থনীতি একেবারে থমকে গিয়েছিল। তবে করোনা ভ্যাকসিনের আবিষ্কারের পর গোটা বিশ্বের মতো ফের ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টায় আছে ভারতও। ভেঙে পড়া অর্থনীতিকে সচল করতে নানা পদক্ষেপ গ্রহণ করছে সরকার।

Around The Web

Trending News

You May like