Aajbikel

ঠান্ডায় কাবু পুরুলিয়া-বাঁকুড়া, মরসুমের শীতলতম দিনে কাঁপছে কলকাতা

 | 
শীত

কলকাতা: পৌষ সংক্রান্তির আগে হাড়কাঁপানো ঠান্ডায় জবুথবু বাংলা৷ হু হু করে নামছে পারদ৷ হাওয়া অফিসের জানাচ্ছে, শনিবারই এই মরসুমের শীতলতম দিন। কলকাতার পাশাপাশি রাজ্যের প্রতিটি জেলায় এক ধাক্কায় পারদ নেমেছে বেশ কয়েক ডিগ্রি। শুক্রবার মহানগরীর সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৪.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। শনিবার তা আরও কমে হয়েছে ১২.৮ ডিগ্রি৷  

দক্ষিণের পাশাপাশি ঠান্ডায় কাঁপছে উত্তরবঙ্গও৷ শীতের দাপট বেড়েছে পশ্চিমাঞ্চলেও৷ শীতের কামড়ে অস্থিত রাজধানী দিল্লিও। পশ্চিম ভারত থেকে বিহার পর্যন্ত শৈত্য প্রবাহের সতর্কতা জারি করেছে মৌসম ভবন৷ এ রাজ্যে দমদম এবং সল্টলেকে পারদপতন উল্লেখ্যযোগ্য৷ তাপমাত্রা নেমেছে যথাক্রমে ১১ এবং ১১.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। তীব্র শীতে ঠকঠক করে কাঁপছে পুরুলিয়া এবং বাঁকুড়া। শনিবার পুরুলিয়ার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ৭.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বাঁকুড়ায় ৮৷ দুই বর্ধমানেও সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ঘোরাফেরা করছে ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশপাশে৷ আগামী দু’দিনে দক্ষিণবঙ্গের তাপমাত্রা আরও এক থেকে দু’ডিগ্রি কমতে পারে বলেই হাওয়া অফিসের পূর্বাভাস। এরই মধ্যে রয়েছে বৃষ্টির পূর্বাভাস৷

আলিপুর আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, পশ্চিম হিমালয় থেকে ঝঞ্ঝা এবং বঙ্গোপসাগর থেকে আর্দ্রতা একসঙ্গে ঢুকে পড়বে বাংলায়৷ যার জেরে আগামী ১৬ জানুয়ারি মঙ্গলবার থেকে ১৮ জানুয়ারি বৃহস্পতিবারের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গের বেশ কয়েকটি জেলায় বৃষ্টির পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে। মঙ্গলবার হালকা বৃষ্টিপাত হতে পারে দক্ষিণ ২৪ পরগনা, পূর্ব মেদিনীপুরে জেলায়। ১৭ জানুয়ারি হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে উত্তর এবং দক্ষিণ ২৪ পরগনা, দুই মেদিনীপুর, নদিয়া, হাওড়া, হুগলি এবং কলকাতায়। 

Around The Web

Trending News

You May like