×

আপাতত নিয়ন্ত্রণের মধ্যে রাজ্যের কোভিড গ্রাফ, একদিনে সুস্থ ৬০১

 
করোনা

কলকাতা: রাজ্যের কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা আজ খানিকটা কম। দুই জেলা, উত্তর ২৪ পরগনা এবং কলকাতা নিয়ে চিন্তা এখনও যাচ্ছে না। তবে উৎসবের মাঝে আজকের এই পরিসংখ্যান কিছুটা স্বস্তি দেবে বটে। কিন্তু আগামী দিনে যে সংক্রমণ বাড়তেই পারে তা পুজোর ভিড় দেখে আন্দাজ করাই যায়। তৃতীয় ঢেউয়ের আশঙ্কা এখনই যে যাচ্ছে না তাও স্পষ্ট করে দেওয়া হচ্ছে বারবার। তাই এখন আরও বেশি সচেতন থাকতে হবে রাজ্যবাসীকে। 

 

শেষ পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, আজ একদিনে রাজ্যে সংক্রমিত হয়েছেন ৫৩০ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে মৃত্যু হয়েছে ১০ জনের। সুস্থতার হার ৯৮.৩২ শতাংশ। আজ রাজ্যের করোনা আক্রান্তদের মধ্যে ১০২ জন কলকাতার, অর্থাৎ দৈনিক সংক্রমণের নিরিখে এদিন ফের প্রথমে তিলোত্তমা। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে উত্তর ২৪ পরগনা। একদিনে সেখানে আক্রান্ত ৯৭ জন। এরপর তৃতীয় স্থানে রয়েছে হুগলি। একদিনে সেখানে ৬০ জনের শরীরে থাবা বসিয়েছে করোনা। চতুর্থ স্থানে হাওড়া। সেখানে একদিনে সংক্রমিত ৪১ জন। ফলে রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১৫ লক্ষ ৭৯ হাজার ০১২ জন। অন্যদিকে, এখনও পর্যন্ত রাজ্যে মোট করোনাজয়ীর সংখ্যা ১৫ লক্ষ ৫২ হাজার ৪৯১ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৬০১ জন। একদিনে রাজ্যে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ১০ জনের। এখনও পর্যন্ত রাজ্যে করোনায় মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১৮ হাজার ৯৪৫ জন। 

এদিকে জানা গিয়েছে, সারা দেশে মাত্র ১৮.৯ শতাংশ মানুষের সম্পূর্ণ টিকাকরণ হয়েছে। একবার টিকা পেয়েছেন জনসংখ্যার ৪৮.৭ শতাংশ। বছরের শেষেই প্রাপ্তবয়স্কদের টিকাকরণ সম্পূর্ণ করবে ভারত এমন প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। তবে তথ্য বলছে, টার্গেট থেকে অনেক দূরে আছে মোদী সরকার। অন্যদিকে, জরুরি পরিস্থিতিতে ২ থেকে ১৮ বছর বয়সিদের টিকাকরণের ব্যবস্থা করতে চায় সরকার। ছাড় পেয়েছে ভারত বায়োটেক-এর কোভ্যাক্সিন। মঙ্গলবারই এই টিকার ব্যবহারে ছাড়পত্র দিয়েছে ওষুধ নিয়ামক সংস্থা (ডিসিজিআই)। ছাড়পত্র পাওয়ার দৌড়ে রয়েছে আরও তিনটি সংস্থার তৈরি টিকা।

From around the web

Education

Headlines