×

বাংলাদেশে সনাতনীদের ওপর অত্যাচার! প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চেয়েছেন শুভেন্দু

 
suvendu

কলকাতা: বাংলাদেশে বহু জায়গায় দুর্গা প্রতিমা এবং দুর্গা মণ্ডপ ভেঙে ফেলার অভিযোগ উঠেছে। ইতিমধ্যেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার এই ব্যাপারে কড়া পদক্ষেপ নিয়েছে বলে শোনা যাচ্ছে। কিন্তু উৎসবের মাঝে এমন উত্তেজনার খবর স্বাভাবিকভাবেই অস্বস্তি বাড়িয়েছে বাংলাদেশ সরকারের। এই ব্যাপারে মুখ খুলে এবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর হস্তক্ষেপ চাইলেন বিজেপি বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারী। তিনি বললেন, বাংলাদেশে সনাতনীদের ওপর অত্যাচার করা হচ্ছে, যা দেখে তিনি ব্যথিত। 

শোনা গিয়েছে, বাংলাদেশের একটি পুজো মণ্ডপে কোরানের অসম্মান করা হয়েছে বলে অভিযোগ ওঠে এবং সেই প্রেক্ষিতেই ভাঙচুর হয়। এছাড়াও একাধিক জায়গায় প্রতিমা এবং মণ্ডপ ভাঙার অভিযোগ উঠে এসেছে। বাংলাদেশের চাঁদিপুর, চট্টগ্রামের বাঁশখালী থেকে শুরু করে কক্সবাজার এলাকাতেও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গিয়েছে। এই ইস্যুতেই শুভেন্দু বলেন, 'বাইরে আমি উৎসবে যোগ দিয়েছি কিন্তু ভেতরটা অত্যন্ত ব্যথিত। বাংলাদেশের চট্টগ্রাম, কক্সবাজার এলাকায় সমস্ত মণ্ডপ এবং প্রতিমা ভেঙে ধূলিসাৎ করে দেওয়া হয়েছে। প্রচুর আত্মীয়স্বজন যারা পালিয়ে এসেছিলেন এখানে তারা আমাকে ফোন করছেন। সোনারপুর থেকে ফোন পেয়েছি, বারুইপুর থেকে পেয়েছি, দমদম, হাঁসখালি, রানাঘাট, চাকদা, বনগাঁ থেকে ফোন পেয়েছি। প্রধানমন্ত্রীকে এই ইস্যুতে ইতিমধ্যেই মেল করে চিঠি লিখেছি যে বাংলাদেশে সনাতনীদের ওপর যে অত্যাচার হচ্ছে গতকাল থেকে তার ব্যাপারে আমাদের যা করা উচিত, ব্যবস্থা নেওয়া দরকার, আপনি করুন।' 

এদিকে, সোশ্যাল মিডিয়ায় ইতিমধ্যেই বেশ কিছু ছবি এবং ভিডিও ভাইরাল হয়ে গিয়েছে যা উত্তেজনা আরো বাড়িয়ে দিয়েছে এই ঘটনায়। তবে বাংলাদেশ সরকারের তরফে জানানো হয়েছে যে এই ঘটনাগুলিকে তারা যথেষ্ট গুরুত্ব দিয়ে দেখছে এবং খুব তাড়াতাড়ি দোষীর শাস্তি পাবে। শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী, বাংলাদেশের ২২ জেলায় ইতিমধ্যেই বর্ডার গার্ড মোতায়েন করা হয়েছে। এই জেলাগুলির মধ্যে অন্যতম কুমিল্লা, মুন্সিগঞ্জ, নর্সিংদি। জানানো হয়েছে, জেলা প্রশাসনের চাহিদা এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের নির্দেশে বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে।

From around the web

Education

Headlines