Aajbikel

গালে গাল ছুঁইয়ে রঙিন হলেন শোভন-বৈশাখী, নববধূকে নিয়ে বাইক ছোটালেন সৌমিত্র

 | 
শোভন-সৌমিত্র

 কলকাতা: দোল মানেই রঙের উৎসব৷ এই রং রাজনীতির নয়৷ এই রং প্রেমের৷ সেই রঙে মেতে উঠলেন রাজনীতির কারবারিরাও৷  তাঁদের সেই মাখো প্রেমের ছবি ভাইরাল নেটপাড়ায়৷ 


তাঁদের জীবন বরাবরই বেশ রঙিন৷ তাঁদের জুটি নিয়ে চার্চারও অন্ত নেই। বসন্ত উৎসবে না হয় আরও একটু রঙিন হল এই যুগল৷ দোলের সকালে নানা রঙের আবিরে নিজেদের রাঙিয়ে তুললেন শোভন চট্টোপাধ্যায় ও বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। আলতো পরশে শোভনের গালে রঙ মাখিয়ে দিলেন বৈশাখী৷ তাঁর হাত থেকে নিজেও হলেন আবির রাঙা৷ বৈশাখীর কথায়, “আমার বসন্ত এখন অনেক বেশি রঙিন। আগে তো বিবর্ণ ছিল। শোভন আমার জীবনে ভালবাসার রঙ ভরে দিয়েছে৷ আমার বসন্তগুলো এখন অনেক বেশি বর্ণময়।”


বৈশাখী আরও জানান, ৬-৭ বছর হল শোভন তাঁর জীবনে এসেছেন৷ তার পর থেকেই বসন্তের প্রতিটা মুহূর্ত রঙিন হয়ে উঠেছে। বৈশাখীর কথায়, ‘‘আমি মনে করি রংবিহীন জীবন অভিসম্পাতের মত। যার থেকে আমাকে মুক্ত করেছে শোভন।” 


চুটিয়ে দোল উপভোগ করেছেন শোভনও৷ নাচে-গানে জমে ওঠে শোভন-বৈশাখীর হোলি৷ সঙ্গে দেদার মিষ্টিমুখ৷ তবে শুধু হাতের পরশেই নয়, গালে গাল ছুঁইয়েও একে অপরকে রাঙিয়ে দেয় এই লাভ বার্ডস। বৈশাখীর ঘাড়ে হাত রেখে কোমর দোলাতে দেখা যায় কলকাতায় প্রাক্তন মেয়রকে৷ কখনও আবার তাঁরা একসঙ্গে গেয়ে ওঠেন, ‘রঙ্গ বরসে ভিগে চুনরওয়ালি’, আবার কখনও একে অপরকে জড়িয়ে ধরে একে অপরকে জানান ফাগুনের শুভেচ্ছ৷ 


দোলার দিন অন্য মেজাজে ধরা পড়লেন বিষ্ণুপুরের বিদায়ী সাংসদ সৌমিত্র খাঁ-ও৷ নববিবাহিত স্ত্রীর সঙ্গে খেললেন হোলি৷ সেই সঙ্গে করলেন ভোট প্রচার৷ 


২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে বিষ্ণুপুরে ঢুকতেই পারেননি বিজেপি নেতা সৌমিত্র খাঁ। সেই সময় তাঁর হয়ে দিনরাত প্রচার করেছিলেন প্রাক্তন স্ত্রী সুজাতা মণ্ডল। গত পাঁচ বছরে অনেক কিছুই পাল্টে গিয়েছে৷ সুজাতার সঙ্গে আইনি বিচ্ছেদ হয়ে গিয়েছে৷ তবে তাঁরা শুধুই একে অপরের প্রাক্তন নন। প্রতিদ্বন্দ্বীও বটে৷ কারণ, ২০২৪-এর লোকসভা ভোটে সৌমিত্রর বিরুদ্ধে সুজাতাকে প্রার্থী করেছে তৃণমূল কংগ্রেস৷ ফলে বিষ্ণুপুর কেন্দ্রে এবার রাজনীতির রঙ্গমঞ্চে হবে পরিবারিক লড়াইও৷ প্রচারে ঝড় তুলেছেন দুই প্রার্থীই৷ কেউ কাউকে এক চুল জমি ছাড়তে নারাজ৷ সুজাতা প্রচারের মাঝে ব্যপক ভাবে জনসংযোগ করছেন৷ কখনও তিনি দোকানে ঢুকে চা বানাচ্ছেন, কখনও কাচি হাতে কাটছেন চুল, কখনও আবার চপ ভেজে খাওয়াচ্ছেন দের কর্মীদের৷


এদিকে, ভোটের মুখে নববিবাহিত স্ত্রীকে বাইকের পিছনে চাপিয়ে প্রচার সারছেন সৌমিত্র খাঁ৷ দোলের দিন বাইকে চড়ে বিষ্ণুপুরের অলিগলি ঘুরলেন দু’জনে। সাধারণ মানুষের সঙ্গে খেললেন দোলও। এদিন হলুদ-লাল ধুতি-পাঞ্জাবী পরে বেরন বিজেপি’র বিদেয়ী সাংসদ। প্রথমে বিষ্ণুপুরের কৃষ্ণগঞ্জে একটি মন্দিরে যান। সফর সঙ্গী নববিবাহিত স্ত্রী। সৌমিত্রর সঙ্গে রংমিলান্তি শাড়িতে সেজেছিলেন তিনিও। মন্দিরে বাবা, মা, দাদা-দিদি-সহ পরিবারের সকলে সঙ্গে দোল খেলেন সৌমিত্র। 

Around The Web

Trending News

You May like