×

পেনশন না পেয়ে আন্দোলনের নামছেন অবসরপ্রাপ্ত কর্মীরা

কলকাতা: পেনশন সংক্রান্ত দাবিদাওয়া নিয়ে আন্দোলন গড়ে তুলছে অল ইন্ডিয়া ব্যাঙ্ক রিটায়ারিজ অ্যাকশন ফোরাম। শনিবার কলকাতা প্রেস ক্লাবে এই নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের প্রতি ক্ষোভ উগরে দেন এই মঞ্চের সদস্যরা। ফোরামের পরিচালক সব্যসাচী সান্যাল বলেন, ১৯৯৫ সাল থেকে আমাদের পেনশনের কোনও আপডেটেশন হয়নি। ওই সময় যাঁরা যে বেসিক পে’তে অবসর নিয়েছেন, সেই অনুযায়ীই পেনশন পান তাঁরা।
 
পেনশন না পেয়ে আন্দোলনের নামছেন অবসরপ্রাপ্ত কর্মীরা

কলকাতা: পেনশন সংক্রান্ত দাবিদাওয়া নিয়ে আন্দোলন গড়ে তুলছে অল ইন্ডিয়া ব্যাঙ্ক রিটায়ারিজ অ্যাকশন ফোরাম। শনিবার কলকাতা প্রেস ক্লাবে এই নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের প্রতি ক্ষোভ উগরে দেন এই মঞ্চের সদস্যরা। ফোরামের পরিচালক সব্যসাচী সান্যাল বলেন, ১৯৯৫ সাল থেকে আমাদের পেনশনের কোনও আপডেটেশন হয়নি। ওই সময় যাঁরা যে বেসিক পে’তে অবসর নিয়েছেন, সেই অনুযায়ীই পেনশন পান তাঁরা। কোনও পে রিভিশন হয়নি। শুধুমাত্র ডিএ বাবদ কিছু টাকা বাড়ে। কিন্তু অন্য কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীদের মতো নিয়মিত পে রিভিশন হয় না। কোনও পেনশনভোগীর মৃত্যু হলে তাঁর পরিবার যে পেনশন পায়, সেটা প্রায় এক-তৃতীয়াংশ হয়ে যায়। এতে গ্রাসাচ্ছাদন হয় না। সব্যসাচীবাবুর দাবি, এই পে রিভিশনের ক্ষেত্রে কেন্দ্রীয় সরকারের বাড়তি আর্থিক দায় নেই। যে কর্পাস ফান্ড রয়েছে, তা থেকেই এটা দেওয়া যায়। কারণ, বহু পেনশনভোগী মারা গিয়েছেন। অনেকের পরিবারও নেই। সেই টাকার দাবিদার থাকছে না। সেটা সরকারি কোষাগারেই চলে যাচ্ছে। সেই অর্থই পেনশনভোগীদের দেওয়ার জন্য দাবি জানাচ্ছেন তাঁরা। মেডিক্লেমের প্রিমিয়ামও হঠাৎ করে বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। এতে সমস্যায় পড়েছেন পেনশনভোগীরা। কলকাতার পর মুম্বই ও দিল্লিতে দাবিদাওয়া নিয়ে মুখর হবেন তাঁরা। তাঁরা অবসর নিয়ে নেওয়ায় ব্যাঙ্ককর্মীদের সর্বভারতীয় সংগঠনেরও কোনও সাহায্য পাচ্ছেন না। তবে, এই ফোরামে এখন প্রায় চার লক্ষ সদস্য রয়েছেন। এ রাজ্যে রয়েছেন প্রায় সাড়ে পাঁচ হাজার সদস্য। রাজ্যের বেশ কিছু শীর্ষস্থানীয় বিজেপি নেতাকেও এদিনের সাংবাদিক বৈঠকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল ফোরামের তরফে। কিন্তু তাঁরা সাড়া দেননি।

From around the web

Education

Headlines