×

‘পুলিশকে কামড়ালে পুলিশ কি রসগোল্লা খাওয়াবে?’ তৃণমূল বিধায়কের মন্তব্যে বিতর্কের ঝড়

 
কামড়

পিংলা: চাকরির দাবিতে পথে নেমেছিলেন তিনি৷ কিন্তু, আন্দোলনে সামিল হয়ে খেতে হয় পুলিশের কামড়৷ মহিলা চাকরিপ্রার্থীর হাতে পুলিশের কামড় ঘিরে শুরু হয় রাজনৈতিক তরজা৷ সেই ঘটনাকে সমর্থক করে ফাঁপড়ে পড়লেন তৃণমূল বিধায়ক অজিত মাইতি। বিয়াজা সম্মেলনীর অনুষ্ঠানে যোগ দিতে এসে পশ্চিম মেদিনীপুরের পিংলার বিধায়কের মন্তব্য, ‘‘পুলিশকে কামড়ালে কি পুলিশ রসগোল্লা খাওয়াবে?’’

আরও পড়ুন- অনুব্রত-কন্যার নামে পঞ্চম লটারির হদিস, পুরস্কারের মূল্য ৫০ লক্ষ টাকা, দাবি সিবিআই-এর

তাঁর কথায়, ‘‘একদল মানুষ দিনের পর দিন অবস্থানে বসে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে সরকারকে বিব্রত করে যাচ্ছে৷ কোন অধিকারে তাঁরা এ কাজ করছে? পুলিশকে কাজ করতে দিচ্ছেন না কোন অধিকারে? দীর্ঘ দিন ধরে পুলিশ ধৈর্যের পরিচয় দিয়েছে৷ কেউ পুলিশকে মারতে চলে যাচ্ছে, কেউ পর্ষদ অফিসে ইঁটের টুকরো ফেলতে যাচ্ছে! কেউ যদি মহিলা পুলিশকে কামড়ে দেয় তাহলে পাল্টা কামড় তো খেতেই হবে৷ এ নিয়ে পাড়া মাথায় তুললে তা সমর্থন যোগ্য নয়।”  তিনি আরও বলেন, ‘‘সরকারকে লাগাতার বদনাম করার চেষ্টা চলছে। পুলিশকে কামড়ালে পুলিশ কি পাল্টা না কামড়ে রসগোল্লা খাওয়াবে?’’


পশ্চিম মেদিনীপুরে তৃণমূলের জেলা কোঅর্ডিনেটর অজিতের মন্তব্যের প্রেক্ষিতে পাল্টা কটাক্ষ করেন আক্রান্ত মহিলা চাকরিপ্রার্থী অরুণিমা পাল। সংবাদমাধ্যমে তিনি বলেন, ‘‘এমন কথার জবাব দিতে রুচিতে বাধে।’’ তৃণমূল নেতার ওই মন্তব্যে নিন্দায় সরব বিজেপিও। প্রাক্তন রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘‘কোনও সভ্য সমাজে এটা হতে পারে? পুলিশ কামড়ে দিচ্ছে? পুলিশের কি আর কোনও কাজ নেই? পুলিশকে কি কামড়ে দেওয়ার ট্রেনিং দেওয়া হচ্ছে? এ থেকেই বোঝা যায়, সরকারের হাতে নিয়ন্ত্রণই নেই।’’
 

From around the web

Education

Headlines