Aajbikel

নতুন বৃহত্তর বেঞ্চ গঠন হওয়ায় এবার কী ভোট পরবর্তী হিংসা মামলায় নয়া মোড় দেখা যাবে?

 | 
হাইকোর্ট

নিজস্ব প্রতিনিধি: একুশের বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির স্বপ্নভঙ্গ হয়েছে। ক্ষমতা দখলের ধারে কাছে পৌঁছতে পারেনি তারা। কিন্তু অভিযোগ ওঠে ফল প্রকাশের পর থেকেই শাসকদলের হাতে রাজ্য জুড়ে অত্যাচারিত হয়েছেন বিজেপি তথা বিরোধী দলের কর্মী-সমর্থকরা। সেই ভোট পরবর্তী হিংসায় বহু মানুষের মৃত্যু হয়েছে, এই অভিযোগ তুলে আদালতের দ্বারস্থ হয় বিজেপি-সহ বিভিন্ন পক্ষ। সেই মামলায় আদালতের নির্দেশে তদন্ত করছে সিবিআই। সেই সঙ্গে অভিযোগ ওঠে ঘটনায় আদালত যে নির্দেশ দিয়েছিল তা রক্ষিত হয়নি।

এই পরিস্থিতিত বিধানসভা  নির্বাচন পরবর্তী হিংসার অভিযোগে দায়ের হওয়া আদালত অবমাননার মামলার নিষ্পত্তিতে পাঁচ বিচারপতির বৃহত্তর বেঞ্চ গঠন করল কলকাতা হাই কোর্ট। নতুন বৃহত্তর বেঞ্চে থাকবেন বিচারপতি ইন্দ্রপ্রসন্ন মুখোপাধ্যায়, বিচারপতি চিত্তরঞ্জন দাশ, বিচারপতি হরিশ ট্যান্ডন,  বিচারপতি সৌমেন সেন এবং বিচারপতি তপোব্রত চক্রবর্তী। চলতি সপ্তাহেই এই মামলার শুনানির সম্ভাবনা রয়েছে। ২০২১ এর বিধানসভা নির্বাচনের প্রেক্ষিতে রাজ্যের মুখ্যসচিবের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগে হাই কোর্টে মামলা দায়ের হয়েছিল। ওই মামলা শুনবে নতুন বৃহত্তর বেঞ্চ।

ঘটনা হল একুশের বিধানসভা নির্বাচনের ফল প্রকাশের পর রাজ্য জুড়ে ব্যাপক হিংসা হয়। যাতে প্রাণ হারান বহু মানুষ। দুষ্কৃতীরা বহু বাড়িতে ভাঙচুর চালানোর পাশাপাশি লুট করে। এরপরই ভোট পরবর্তী হিংসার অভিযোগ এনে কলকাতা হাইকোর্টে বেশ কয়েকটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের হয়। ২০২১ সালের ১৯ আগস্ট এই মামলায় সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দেয় হাইকোর্টের তৎকালীন পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চ। সেই সঙ্গে বৃহত্তর বেঞ্চ স্পষ্ট নির্দেশে জানায়, হিংসার ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণ দিতে হবে রাজ্য সরকারকে। কিন্তু রাজ্য সরকার সেই নির্দেশ পালন করেনি, এই অভিযোগ তুলে ফের হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলা দায়ের হয়।

এই পরিস্থিতিতে কলকাতা হাইকোর্টের নতুন বৃহত্তর বেঞ্চ এই মামলাটি শুনবে। তবে কী ভোট পরবর্তী হিংসা মামলায় নয়া মোড় দেখা যাবে? নতুন করে অস্বস্তি বাড়বে রাজ্য সরকারের? যথারীতি এই জল্পনা শুরু হয়েছে।  যদিও বিরোধীদের অভিযোগ সিবিআই মামলার তদন্ত করলেও সেই তদন্তের গতি অত্যন্ত ধীরগতিতে চলছে। হিংসার ঘটনায় যুক্ত থাকার অভিযোগে শাসকদলের বেশ কয়েকজন কর্মীকে গ্রেফতার করেছিল সিবিআই। যদিও পরে তাঁরা জামিন পেয়ে যান। কিন্তু এখনও বহু অভিযুক্তকে ধরা হয়নি বলে বিজেপির অভিযোগ। অত্যাচারিত পরিবারের সদস্যরা কবে বিচার পাবেন, সেই প্রশ্ন বহুবার তুলেছেন রাজ্য বিজেপি নেতৃত্ব। এই আবহের মধ্যে ভোট পরবর্তী হিংসা মামলায় নতুন বৃহত্তর বেঞ্চ গঠিত হল হাইকোর্টে। এরপর বিষয়টি কোন দিকে গড়ায় সেটাই দেখার।
 

Around The Web

Trending News

You May like