×

মোদীরাজ্যে সেতু বিপর্যয়ে আতঙ্কের স্মৃতি ফিরেছে! তড়িঘড়ি বৈঠক ডাকল নবান্ন

 
nabanna

কলকাতা: গুজরাতের মাচ্চু নদীতে সেতু ভেঙে পড়েছে। সেই ঘটনা নিয়ে এখন উত্তাল গোটা দেশ। মৃতের সংখ্যা ১৪০ ছাড়িয়ে গিয়েছে এবং ঘটনায় গাফিলতির অভিযোগ তোলা হয়েছে প্রশাসনের বিরুদ্ধে। এদিকে এই ঘটনাকে বাংলার প্রশাসনকে মনে করিয়ে দিয়েছে পোস্তা, মাঝেরহাট সেতু দুর্ঘটনার কথা। তাই এখনই চুপ করে না বসে তড়িঘড়ি বৈঠকের ডাক দিল নবান্ন। জানা গিয়েছে, পশ্চিমবঙ্গ সরকারের পূর্ত দফতর এই বৈঠকের ডাক দিয়েছে। রাজ্যের মন্ত্রী পুলক রায়ের পৌরহিত্যে এই বৈঠক হবে রাজ্যের সেতু সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে।

আরও পড়ুন- গায়ের রং কালো করে দারিদ্র্যতার ভান, সমালোচনার ঝড় সোশ্যাল মিডিয়ায়

রাজ্যের পূর্ত ও জনস্বাস্থ্য কারিগরি দফতরের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী পুলক রায় মঙ্গলবার পূর্ত দফতরের সমস্ত শীর্ষ আধিকারিকদের বৈঠকে উপস্থিত থাকার নির্দেশ দিয়েছেন। গুজরাতে সেতু ভেঙে পড়ার পর রাজ্যের সেতুগুলির অবস্থা নিয়ে পর্যালোচনা করতেই এই বৈঠক হবে বলে প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে। আসলে মোদীরাজ্যে যে ঘটনা ঘটেছে সেই একই ঘটনা প্রায় এই রাজ্যেও ঘটেছে অন্তত দু'বার। তাই একাধিক সেতু হালে পর্যবেক্ষণ করা হয়েছে। কিন্তু গুজরাতের ঘটনায় কেমন যেন নড়ে গিয়েছে সকলে। তাই আবার রাজ্যের সেতুর অবস্থা এবং মান নিয়ে আলোচনা চাইছে রাজ্য সরকার। সেই কারণেই এই বৈঠকের ডাক বলে অনুমান।

উল্লেখ্য, গুজরাতের মোরবিতে নদীর উপর থাকা এই  ঝুলন্ত সেতুটিতে সাত মাস ধরে সংস্কারের কাজ চলছিল৷ সংস্কারের পর দিন কয়েক আগেই তা জনসাধারণের জন্য খুলে দেওয়া হয়। নতুন করে সেতু উদ্বোধন হওয়ার ৬ দিনের মাথায় এই বিপর্যয়। তবে অভিযোগ, প্রশাসনের ছাড়পত্র ছাড়াই জনসাধারণের জন্য এই সেতু চালু করে দেওয়া হয়েছিল। সেতুর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করিয়ে ‘ফিটনেস সার্টিফিকেট’ও নেওয়া হয়নি। রবিবার সন্ধ্যার এই দুর্ঘটনার অন্যতম কারণ হিসাবে তাই কর্তৃপক্ষের গাফিলতিকে দায়ী করছেন কেউ কেউ।

From around the web

Education

Headlines