Aajbikel

চলতি সপ্তাহেই রদবদল মমতার মন্ত্রিসভায়? নতুন মুখ নিয়েও গুঞ্জন প্রশাসনিক মহলে

 | 
মমতা

কলকাতা: ফের রাজ্য মন্ত্রিসভায় রদবদল? দিল্লি যাত্রার আগেই কি রাজ্য মন্ত্রিসভায় বদল আনবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়? গুঞ্জনে সরগরম রাজ্য রাজনীতি৷ জল্পনা শুরু হয়েছে প্রশাসনিক মহল থেকে শাসক দলের অন্দরে। 

আগামী ১৭ ডিসেম্বর দিল্লি যাচ্ছেন মমতা। রাজ্যের বকেয়া নিয়ে আগামী ২০ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক হওয়ার কথা তাঁর। দিল্লি থেকে রাজ্যে ফিরতেই শুরু হয়ে যাবে বড়দিন, বর্ষবরণের উৎসব। ফলে দিল্লি যাওয়ার আগেই মন্ত্রিসভার রদবদল সেরে ফেলা হবে বলে মনে করা হচ্ছে। রাষ্ট্রমন্ত্রী থেকে পূর্ণ মন্ত্রীর পদ পাবেন কারা? নাকি দেখা যাবে নতুন মুখ? বর্ষ শেষে কী চমক দেন মুখ্যমন্ত্রী, এখন তারাই অপেক্ষা৷ 


যদিও মন্ত্রিসভার রদবদল নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী নিজে কিছু বলেননি। নবান্ন থেকেও এ সম্পর্কে কোনও ইঙ্গিত মেলেনি৷ সরকারি ভাবে এ বিষয়ে ঘোষণা না হলেও সম্ভাব্য রদবদল নিয়ে চর্চা তুঙ্গে৷ এর বেশ কিছু কারণও রয়েছে৷ রেশন বন্টন দুর্নীতি মামলায় ইডি-র হাতে গ্রেফতার বনমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক ওরফে বালু এখন জেলবন্দি। এই মামলায় মঙ্গলবার ইডি’র পেশ করা ১৬২ পৃষ্ঠার চার্জশিটে স্পষ্ট ভাবে উল্লেখ করা হয়েছে জ্যোতিপ্রিয়র নাম৷ ফলে কবে এই মামলা মিটবে, তা বলা অসম্ভব। এই পরিস্থিতিতে বনদফরের দায়িত্ব একজন পূর্ণ মন্ত্রীর হাতে সঁপতে পারেন মুখ্যমন্ত্রী। বালুর অবর্তমানে বনদফতরের দায়িত্ব সামলাচ্ছে রাষ্ট্রমন্ত্রী বীরবাহা হাঁসদা। তাঁকে বনদফতরের পূর্ণ মন্ত্রী করা হতে পারে বলে জোর জল্পনা৷ নজরে রয়েছে পর্যটন দফতরও। এই দফতরের স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত রাষ্ট্রমন্ত্রী ইন্দ্রনীল সেন। মন্ত্রিসভার রদবদল করে তাঁকে পূর্ণ মন্ত্রী করা হতে পারে বলেও কানাঘুষো। এছাড়াও জ্যোতিপ্রিয়র হাতে থাকা শিল্প পুনর্গঠন দফতরের দায়িত্বও নতুন কারও হাতে তুলে দেওয়া হতে পারে৷ তেমনটা না হলে শিল্পদফতরের মন্ত্রীর হাতেও বাড়তি দায়িত্ব দেওয়া হতে পারে বলে ধারণা রাজনীতির কারবারিদের৷ 

সূত্রের খবর, রাজ্য মন্ত্রিসভায় দেখা যেতে পারে দুই-একটি নতুন মুখও। সাধন পান্ডে ও সুব্রত সাহার প্রয়াণের পর মন্ত্রিসভায় নতুন কাউকে আনা হয়নি। তাঁদের হাতে থাকা দফতরের দায়িত্ব সামলান বর্তমান মন্ত্রীরাই। বেশ কিছু দফতরের দায়িত্ব আবার নিজের হাতে রেখেছেন মুখ্যমন্ত্রী। এই পরিস্থিতিতে মন্ত্রিসভায় নতুন মুখ আসাটা অস্বাভাবিক নয়। 


এদিকে, বছর ঘুরলেই লোকসভা ভোট। কেন্দ্র থেকে নরেন্দ্র মোদী সরকারকে উপড়ে ফেলতে কোমর বেঁধে ময়দানে নেমে পড়েছে অবিজেপি রাজনৈতিক দলগুলি। আগামী ১৯ ডিসেম্বর দিল্লিতে রয়েছে ‘ইন্ডিয়া’ জোটের গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক। এই বৈঠকেই সম্ভবত আসন রফা সেরে ফেলবেন বিরোধীরা৷ বৈঠকে যোগ দেবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও৷ নতুন বছরের শুরু থেকেই পুরোপুরি ময়দানে নেমে পড়তে চাইছে বিরোধী জোট শরিকরা৷ ফলে আগামী কয়েকটি মাস শুধু তৃণমূল নয়, বিজেপি বিরোধী সবকটি রাজনৈতিক দলগুলির কাছেই যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ। হাতে সময় খুবই কম৷ তাই হয়তো চলতি সপ্তাহেই রদবদল সেরে ফেলবেন মুখ্যমন্ত্রী৷   
 

Around The Web

Trending News

You May like