×

প্রশান্ত মহাসাগরের মতো দুর্নীতি! ৩০ কোটির লেনদেন, ওকে ‘বলির পাঁঠা’ করছেন তাপস, দাবি স্ত্রী

 
kuntal

কলকাতা:  ব্যাপক দুর্নীতি৷ বিপুল টাকার খেলা৷ নিয়োগ দুর্নীতির তদন্ত যত এগোচ্ছে, ততই যেন গভীর হচ্ছে জল৷ শুরুতে মনে হয়েছিল এ যেন এক সাগর৷ কিন্তু এখন মনে হচ্ছে তা প্রশান্ত মহাসাগরের মতো বড়! নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় সদ্য গ্রেফতার হুগলির তৃণমূল যুবনেতা কুন্তল ঘোষকে আদালতে তোলার পর এমনটাই দাবি করলেন ইডির আইনজীবী ফিরোজ এডুলজি। পাশাপাশি তাঁর বিস্ফোরক দাবি, তদন্তে নেমে ৩০ কোটির হদিস মিলেছে। শুধু তাই নয়, কুন্তলের কাছ থেকে তথ্যসমৃদ্ধ একটি ডায়েরি উদ্ধার হয়েছে বলেও ব্যাঙ্কশাল আদালতে জানিয়েছে ইডির আইনজীবী। 

আরও পড়ুন- নিয়োগ দুর্নীতিতে গ্রেফতার তৃণমূল নেতা কুন্তলকে ১৪ দিনের ইডি হেফাজত

তাঁর দাবি, ‘‘শুধু প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রেই নয়, গ্রুপ সি এবং গ্রুপ ডি নিয়োগেও বিস্তর দুর্নীতি হয়েছে। গোটা সিস্টেমটাই দুর্নীতিতে ছেয়ে গিয়েছে। গোড়ার দিকে মনে হচ্ছিল এই দুর্নীতি ভারত মহাসাগরের মতো বড়। কিন্তু তাতে ডুব দেওয়ার পর দেখা গেল এই দুর্নীতি প্রশান্ত মহাসাগরের মতো৷ তার উপর একের পর এক নাটকীয় মোড়৷’’

এদিন আদালতে তোলার পর কুন্তলকে ১৪ দিনের ইডি হেফাজতে রাখার আবেদন জানানো হয়৷ অন্য দিকে, কুন্তলের আইনজীবী সেলিম রহমান বলেন, ‘‘ইডির আইনজীবী প্রশান্ত মহাসাগরের মতো দুর্নীতির কথা বলছেন৷ কিন্তু এই দুর্নীতির ব্যাপ্তি পুকুরের মতোও নয়।’’ তিনি জানান, কুন্তলের কাছ থেকে কোনও টাকা উদ্ধার হয়নি৷ সেই মর্মেই কুন্তলের ইডি হেফাজতের বিরোধিতাও করেন রহনাম৷  তবে শেষ পর্যন্ত ১৪ দিনের ইডি হেফাজতে পাঠানো হয় কুন্তলকে৷ 


এদিন আদালতে ইডির আইনজীবী বলেন, কুন্তলের বাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে একটি কালো ডায়েরি তদন্তকারী অফিসারদের হাতে এসেছে। সেই ডায়েরিতে টাকার লেনদেনের হিসাব লেখা রয়েছে। সেখানে দেখা গিয়েছে, ২০১৬ সাল থেকে চাকরি পাইয়ে দেওয়া-সহ বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি দিয়ে মোট ৩০ কোটি টাকা ঘুষ নিয়েছেন কুন্তল। ইডির আইনজীবী আরও বলেন, ডিএলএডে অফলাইন ভর্তি ছাড়াও প্রাথমিকে চাকরি পাইয়ে দেওয়ার নামে ঘুষ নিয়েছেন কুন্তল ঘোষ। ঘুষ নিয়েছেন উচ্চ প্রাথমিক, নবম – দশম, একাদশ – দ্বাদশ, গ্রুপ ডি ও গ্রুপ সি নিয়োগেও।

এদিকে, স্বামীকে গ্রেফতার করার পরই মুখ খোলেন তাঁর কুন্তলের স্ত্রী জয়শ্রী ঘোষ৷ বিবৃতি জারি করে তিনি বলেন, ইডি এবং সিবিআই আধিকারিকদের নাম করে তাঁর স্বামীর কাছ থেকে টাকা নিয়েছিলেন তাপস মণ্ডল! এই বিষয়ে এখন তাপসের কী বলেন, তা-ও জানার চেষ্টা চলছে। শুক্রবার ইডি যে ফ্ল্যাটগুলিতে হানা দিয়েছিল, তার একটিতে দীর্ঘ সময় ধরে তাপস নিজেই থাকতেন বলে দাবি কুন্তল-জায়ার। একই সঙ্গে তাঁর স্বামীর বিরুদ্ধে শিক্ষক পদপ্রার্থীদের কাছ থেকে টাকা নেওয়ার যে অভিযোগ এনেছেন তাপস, তা সর্বৈব ভাবে ‘মিথ্যা’ বলেও দাবি তাঁর। ‘ন্যায়বিচার’ পেতে তিনি কেন্দ্রীয় সংস্থা সিবিআই এবং ইডির উপর আস্থা রাখছেন বলেও জানিয়েছেন জয়শ্রী৷ 

জয়শ্রী লেখেন, ‘‘চাকরির প্রতিশ্রুতি দিয়ে প্রার্থীদের কাছ থেকে কুন্তল ১৯ কোটি টাকা নিয়েছেন বলে যে দাবি তাপস করেছেন, তা সম্পূর্ণ মিথ্যা। তাপস এবং তাঁর কয়েক জন সহযোগী ষড়যন্ত্র করে কুন্তলকে ‘বলির পাঁঠা’ বানিয়েছেন।’’

 


 

From around the web

Education

Headlines