Aajbikel

শোভন-বৈশাখীর ফ্ল্যাটে সৌজন্য সাক্ষাতে কুণাল, তৃণমূলে প্রত্যাবর্তনের তৈয়ারি?

 | 
শোভন-কুণাল

 কলকাতা: একদা তিনি ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্নেহের কানান৷ তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে তাঁর রাজনৈতিক যোগ বহু পুরনো৷ মাঝে গোঁসা করে বিজেপি’তে গিয়েছিলেন বটে৷ তবে মন টেকেনি৷ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কলকাতার প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায় ও তাঁর বান্ধবী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের গোলপার্কের ফ্ল্যাটে হাজির তৃণমূলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক কুণাল ঘোষ। তৃণমূলের তরফে একে ‘সৌজন্য সাক্ষাৎ’ বলেই উল্লেখ করা হয়েছে। তবে রাজনীতির কারবারিরা অন্য গন্ধ পাচ্ছেন৷ কারণ দু’জন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বের সাক্ষাৎ কখনই নিছক ‘সৌজন্য সাক্ষাৎ’ হতে পারে না। লোকসভা ভোটের আগে এই বিশেষ সাক্ষাৎ কোন দিকে মোড় নেবে, তা নিয়ে জল্পনা শুরু হয়ে গিয়েছে। গত সন্ধ্যায় প্রায় তিন ঘণ্টা ধরে আলোচনা হয় তাঁদের৷ 


শোনা যাচ্ছে, পুরনো দিনের কথার পাশাপাশি শোভনের রাজনৈতিক অবস্থান নিয়েও কথা হয়েছে। তৃণমূলে ফেরার ইঙ্গিত দিয়েই শোভন বলেন,  “সত্যি বলতে কী, কেউ এভাবে আমাদের অবস্থান জানতে চাননি। মনের দিক থেকে অনেকটা হালকা বোধ করছি। আগামী দিনে পরিবেশ পরিস্থিতি কথা বলবে।” অন্যদিকে এই চা চক্রের কৃতিক্ব বৈশাখীকেই দিয়েছেন কুণাল৷ তিনি বলেন, ‘‘শোভনদার সঙ্গে আমার রাজনৈতিক মতপার্থক্য হয়েছে। কিন্তু ব্যক্তিগত সম্পর্কে সেই আঁচ লাগেনি৷ শোভনদা রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব। শোভনদা অ্যাক্টিভ হলে নিশ্চিতভাবে জুনিয়র হিসেবে আমাদেরও ভাল লাগবে। তবে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন তৃণমূলের সর্বময় নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।”

Around The Web

Trending News

You May like