×

চাকরিপ্রার্থীরা সভা-মিছিল করতে পারবেন, একাধিক শর্ত দিল হাইকোর্ট

 
নিয়োগে গড়মিল, রণক্ষেত্র স্বাস্থ্যভবন, পুলিশের ব্যারিকেড ভাঙলেন নার্সিং চাকরি প্রার্থীরা

কলকাতা: শহরে মিছিল করতে চেয়েছিল তারা, কিন্তু সেই অনুমতি দেয়নি পুলিশ। শেষে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিল চাকরিপ্রার্থীদের দশটি সংগঠন। বুধবার সেই মামলার শুনানিতে শর্তসাপেক্ষে চাকরিপ্রার্থীদের সভা করার অনুমতি দিয়েছেন বিচারপতি রাজা শেখর মান্থা। তবে স্পষ্ট জানান হয়েছে, শর্ত মেনেই মিছিল এবং শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি করতে হবে। তবে যেদিন এই মিছিল করতে চেয়েছিল তারা সেদিন তা করা যাবে না।

আরও পড়ুন- পার্শ্ব শিক্ষকদের প্রাথমিকের শিক্ষক হিসাবে নিয়োগ নয়, নির্দেশ কলকাতা হাই কোর্টের

আদালত এদিন জানিয়েছে, ১৬ জানুয়ারি নয়, গঙ্গাসাগর মেলার জন্য ১৮ জানুয়ারি সকাল ১১টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত রানি রাসমণি রোডে শর্তসাপেক্ষে চাকরিপ্রার্থীরা কর্মসূচি করতে পারবেন। তবে লাউড স্পিকার ব্যবহার করা যাবে না। শব্দ বিধি মানতে হবে। উত্তেজনা পূর্ণ বক্তব্য রাখা যাবে না। এইসব শর্ত মেনেই ওইদিন সভা-মিছিল করতে পারবে চাকরিপ্রার্থীরা। যদিও অ্যাডভোকেট জেনারেল জানান, গঙ্গাসাগর মেলার জন্য প্রচুর মানুষ ওই এলাকায় যানবাহন ধরতে আসেন। তাই আর্জি করেন যাতে এই সভা ধর্মতলা ওআই চ্যানেলের বদলে শহিদ মিনারে করা হয়। কিন্তু মামলাকারীদের আইনজীবী কৌস্তভ বাগচী বলেন যে, তারা রানি রাসমণি রোডেই সভা করতে চায়। তখন বিচারপতি প্রস্তাব দেন, ১৭ তারিখের পর কর্মসূচি করা হোক। সেই প্রস্তাবেই রাজি হয় চাকরিপ্রার্থীরা।

আসলে শহরের তিনদিক থেকে মিছিল করে ধর্মতলায় মেট্রো চ্যানেলে জমায়েতের পরিকল্পনা করেছে সংগঠনগুলি। হাওড়া, শিয়ালদহ এবং কলেজ স্ট্রিট থেকে মিছিল এসে জমায়েত হবে ধর্মতলায়। সেই জন্যই পুলিশি অনুমতির দরকার ছিল যা প্রথমে মেলেনি। তাই কলকাতা হাইকোর্টের দৃষ্টি আকর্ষণ করে চাকরিপ্রার্থীরা। আদালত তাদের পক্ষেই রায় দিয়েছে।

From around the web

Education

Headlines