Aajbikel

এরপরেও তৃণমূলের হয়ে‌ কথা বলছেন জয়রাম রমেশ! হতাশ অধীর

 | 
অধীর

নিজস্ব প্রতিনিধি:  দীর্ঘদিন ধরেই তৃণমূলের সুরে সুর মিলিয়ে কথা বলতে দেখা যাচ্ছে কংগ্রেসের অন্যতম শীর্ষ নেতা জয়রাম রমেশকে। বারবার বলে গিয়েছেন তৃণমূল 'ইন্ডিয়া' জোটে আছে এবং তাদের সঙ্গে পশ্চিমবঙ্গে কংগ্রেসের জোট হবে। কিন্তু কোথায় কী? গত ১০ মার্চ ব্রিগেড সমাবেশের মঞ্চ থেকে তৃণমূল একতরফা ভাবে ৪২টি আসনেই তাদের প্রার্থীর নাম ঘোষণা করে দিয়েছে। এরপরেও জয়রামকে বলতে শোনা গিয়েছে তৃণমূলের বিরুদ্ধে দুর্বল প্রার্থী দেবেন তাঁরা, যাতে ভোট কাটাকাটি কম হয় এবং এর সুবিধা পায় তৃণমূল। যে বক্তব্য ব্যাপক সমস্যায় ফেলে প্রদেশ কংগ্রেস নেতৃত্বকে। আর এবার নির্বাচন কমিশন ভোটের দিনক্ষণ ঘোষণার পর জয়রাম রামেশ তৃণমূলের সুরে সুর মিলিয়ে বললেন, পশ্চিমবঙ্গে সাত দফায় কেন ভোট করানো হচ্ছে? অথচ প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী বহু আগেই বেশি দফায় ভোটের পক্ষে জোরালো সওয়াল করেছেন। সাত দফায় ভোটের বিষয়টিকেও স্বাগত জানিয়েছেন তিনি। অধীর স্পষ্ট বলেছেন, বেশি দফায় ভোট হলে নিরাপত্তা ব্যবস্থা আঁটোসাঁটো থাকবে এবং তার ফলে মানুষ নিজের ভোট নিজে দিতে পারবেন। কিন্তু অধীরের উল্টো কথাই ফের বললেন জয়রাম রমেশ।

এমনিতেই রাজ্য কংগ্রেস নেতৃত্ব তৃণমূলের সঙ্গে জোট চাইছিলেন না। বারবার তাঁরা সিপিএম তথা বামেদের হাত ধরার পক্ষে সওয়াল করে গিয়েছেন। কিন্তু জয়রাম রমেশ রাজ্য কংগ্রেসের মতকে অগ্রাহ্য করে নিজের মতো করে অনেক কিছু বলে গিয়েছেন, যা তৃণমূলের হাতকেই শক্ত করেছে। ঘটনা হল কংগ্রেসের অন্দরে কান পাতলেই শোনা যায়, জয়রাম রমেশের মতো নেতারা ভোটযুদ্ধে অবতীর্ণ না হয়ে সব সময় রাজ্যসভায় নির্বাচিত হয়ে বড় পদ পেতে চান। সেই জায়গায় অধীর চৌধুরী বাম জমানার পাশাপাশি তৃণমূলের বিরুদ্ধেও  লড়াই করে টানা পাঁচ বার বহরমপুর থেকে জিতে এসেছেন। সেই জায়গায় জয়রামের এমন মন্তব্য আরও একা করে দিচ্ছে অধীরকে। কেন তিনি নিজের লড়াইয়ের সময় হাইকমান্ডকে পাশে পাবেন না, সেই প্রশ্ন ফের উঠে যাচ্ছে। যা নিঃসন্দেহে আরও হতাশ করে দিচ্ছে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতিকে। তবে কী এমনটাই চলতে থাকবে? এভাবে প্রদেশ কংগ্রেস কতটা লড়াই করবে তৃণমূল এবং বিজেপির বিরুদ্ধে? সময়ই এর উত্তর দেবে।

Around The Web

Trending News

You May like