Aajbikel

অবৈধ ভাবে শিক্ষকতার চাকরিতে ঢুকেছেন ক’জন? তথ্য ফাঁস এসএসসি-র

 | 
স্কুল

কলকাতা:  নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় ফের আদালতের প্রশ্নের মুখে পড়েছিল স্কুল সার্ভিস কমিশন৷ সোমবার এসএসসি-র তৃতীয় রিপোর্টেও সন্তুষ্ট হতে পারেনি কলকাতা হাই কোর্ট। আগামী দু’দিনের মধ্যে নিজেদের অবস্থান জানিয়ে চতুর্থ রিপোর্ট জমা দিতে দেওয়ার নির্দেশ দেয় বিচারপতি দেবাংশু বসাক এবং বিচারপতি মহম্মদ শব্বর রসিদির ডিভিশন বেঞ্চ৷  সেই নির্দেশ আসার ২৪ ঘণ্টা আগেই তৎপর কমিশন৷ জানা গিয়েছে, একটা তথ্য ভাণ্ডার তৈরি করছে কমিশন। তার ভিত্তিতেই তৈরি করা হবে এসএসসি-র পরবর্তী হলফনামা। কত জন অবৈধ ভাবে চাকরি পেয়েছেন এবং কোন কোন পন্থায় সেই বেনিয়ম হয়েছে, তার বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরা হবে সেখানে। ইতিমধ্যেই ১৮৩ জনকে চিহ্নিত করা হয়েছে, যাঁরা র‌্যাঙ্ক জাম্প করে বা মেয়াদ উত্তীর্ণ প্যানেল থেকে চাকরি পেয়েছেন। তাঁদের মধ্যে থেকে ১২০ জনের চাকরি ইতিমধ্যেই বাতিল করে দিয়েছে এসএসসি। তবে কিছু আইনি জটিলতায় বাকি ৬০ জনের চাকরি বাতিল করা সম্ভব হচ্ছে না৷ 

সূত্র মারফৎ যে তথ্য জানা যাচ্ছে তাতে, নবম-দশমে সার্ভারে বিকৃতি করে চাকরি পেয়েছেন ৯০০ জনের বেশি প্রার্থী৷ সুপারিশপত্র ছাড়া কাজে ঢুকেছেন ৭০০ জনের বেশি৷ তালিকা বহির্ভূত চাকরি প্রাপকের সংখ্যা প্রায় ৫০ জন৷ মেয়াদ উত্তীর্ণ প্যানেল থেকে চাকরি পয়েছেন ১৮৩ জন৷ অন্যদিকে, একাদশ-দ্বাদশেও সার্ভার বিকৃতির মাধ্যমে চাকরি পেয়েছেন ৯০০ জনের বেশি চাকরি প্রার্থী৷ প্যানেল বহির্ভূত চাকরি প্রাপকের সংখ্যা ৬০০ জনের বেশি৷ মেয়াদ উত্তীর্ণ প্যানেল থেকে নিয়োগ করা হয়েছে ৩০ জনকে৷ এছাড়াও কতজন র‌্যাঙ্ক জাম্প করে, সুপারিশপত্র ছাড়া এবং অন্যান্য বেনিয়মের মাধ্যমে চাকরি পেয়েছেন, সেই বিষয়েও বিস্তারিত তথ্য উল্লেখ থাকবে হলফনামায়।

Around The Web

Trending News

You May like