×

নায়কে-নায়কে টক্কর! বিজ্ঞাপনে মুখ দেখানো নিয়ে তৃণমূলের দেবকে খোঁচা পদ্ম বিধায়ক হিরণের

 
দেব-হিরণ

কলকাতা:  তুঙ্গে দেব-হিরণ দ্বৈরথ৷ সম্প্রতি অভিনেতা সাংসদ দীপক অধিকারী ওরফে দেবের মলদ্বীপ সফরকে কেন্দ্র করে তীব্র কটাক্ষ করেছিলেন বিজেপি বিধায়ক হিরণ চট্টোপাধ্যায়৷ ঘাটালে গিয়ে ‘বন্ধু’ হিরণকে সেই কটাক্ষের পাল্টা দিয়ে এসেছিলেন দেব। সেই আক্রমণের ঝাঁঝ এবার টুইটারে৷ বিজ্ঞাপনের সঙ্গে সাংসদ-বিধায়কদের জড়িত থাকার অধিকার আদৌ আছে কিনা, তা নিয়ে টুইটারে প্রশ্ন তুলেছেন হিরণ। ওয়াকিবহাল মহলের মতে,  দেবকে খোঁচা দিয়েই এই টুইট বাণ ছুড়েছেন বিজেপি বিধায়ক৷ 

আরও পড়ুন- ফের ডেঙ্গির থাবা, প্রাণ হারালেন বেলেঘাটা আইডি'র সহকারী সুপার

ঘাটালের ২ নম্বর ওয়ার্ডে একটি দলীয় অনুষ্ঠানে গিয়ে খড়গপুরের বিজেপি বিধায়ক হিরণ চট্টোপাধ্যায় বলেছিলেন, ‘‘সাংসদ হিসেবে প্রত্যেক মাসে মাইনে নেব। এখানে যা কাজ হবে, সাংসদ হিসেবে তার কাটমানি নেব। গরু চোর এনামুল হকের কাছ থেকেও কাটমানি নেব। কাটমানি নিয়ে আমি সিনেমা করব। আর গার্লফ্রেন্ডকে নিয়ে মলদ্বীপে ঘুরতে যাব। আর ঘাটালের মানুষ জলের তলায় ডুবে থাকবে। আমি মালদ্বীপ গিয়ে গার্লফ্রেন্ডকে নিয়ে সুইমিং করব আর ঘাটালের মানুষ বন্যার জলে সাঁতার কাটবে।”


এর জবাব দিয়ে দেব বলেছিলেন, “আমাকে ছোট করে কোনও লাভ নেই। এখানে এসে ঘাটালের মানুষের মন জয় করতে হবে। দেব যদি বিদেশে যায়, তাহলে নিজের টাকায় ঘোরে। অ্যাটাক করতে হলে আমাকে করো। বাড়িতে ঢুকো না। আমি কার সঙ্গে যাচ্ছি… সম্মান নিয়েই যাচ্ছি। এটা আমার আট-ন’বছরের সম্পর্ক৷ সেটা সবাই জানে। আমি লুকিয়ে যাচ্ছি না। তুমি যদি আমাকে হারাতে না পার। তাহলে আমার বাড়িতে ঢুকে…।”


এদিকে দেব জানান, সাংসদ হওয়ার আগে থেকেই তিনি অভিনয় জগতের সঙ্গে যুক্ত। সেটা সকলেরই জানা। এমন পরিস্থিতিতেই হিরণ টুইট করে বলেন, “আমি এ বিষয়ে আইন বা নীতিগত দিকটি জানি না… কোনও সাংসদ/ বিধায়ক বাণিজ্যিকভাবে কোনও সামগ্রীর বিজ্ঞাপনের সঙ্গে যুক্ত থাকতে পারেন কি? এই বিষয়ে কেউ কিছু জানাতে পারবেন?” 


রাজনীতির কারবারিদের মতে, দেব একদিকে প্রযোজক, অন্যদিকে বিজ্ঞাপনের কাজের সঙ্গে যুক্ত৷ সে কারণেই এই খোঁচা৷ দেব অবশ্য জানান, হিরণ তাঁর ভালো বন্ধু৷ তাই তিনি জবাব দিয়ে এসেছে৷ পাল্টা হিরণ জানান, দেব বা তাঁর বান্ধবীকে ব্যক্তিগত আক্রমণ করার কোনও ইচ্ছা ছিল না তাঁর৷ 


 

From around the web

Education

Headlines