Aajbikel

পারদ পতনের মাঝেই বঙ্গোপসাগরে ঘূর্ণিঝড়ের ভ্রুকুটি! আসছে ‘মিগজাউম’, কতটা প্রভাব বাংলায়?

 | 
ঘূর্ণিঝড়

কলকাতা: দোরগোড়ায় দাঁড়িয়ে শীত৷ লম্বা ইনিংস খেলার জন্য চলছে ক্রিজে নামার প্রস্তুতি৷ ইতিমধ্যেই কলকাতায় বেশ কিছুটা নেমেছে পারদ৷ তবে ছক্কা হাঁকানোর আগে ধেয়ে আসতে পারে ঘূর্ণিঝড়ের বাউন্সার৷ ডিসেম্বরের শুরুতেই রয়েছে ঘূর্ণিঝড়ের ভ্রুকুটি৷ মৌসম ভবনের আশঙ্কা, বঙ্গোপসাগরে ঘনীভূত এই ঘূর্ণিঝড় বেশ শক্তি নিয়ে আঘাত হানতে পারে৷ 

আগামীকাল ২৫ নভেম্বর শনিবার দক্ষিণ আন্দামান সাগরে একটি ঘূর্ণাবর্ত তৈরির সম্ভাবনা রয়েছে। রবিবার ২৬ নভেম্বর তৈরি হতে পারে নিম্নচাপ৷ ২৭ নভেম্বর সোমবার তা গভীর নিম্নচাপে পরিণত হবে।  এই গভীর নিম্নচাপ ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হলে তার নাম হবে ‘মিগজাউম’৷  নামটি দিয়েছে মায়ানমার৷ মৌসম ভবন জানাচ্ছে, আপাতত এই নিম্নচাপের অভিমুখ পশ্চিম-উত্তর পশ্চিম,  অর্থাৎ অন্ধ্রপ্রদেশ উপকূলের দিকে।‌ 


দিন কয়েক আগেই বাংলাদেশ উপকূলে আছড়ে পড়েছিল ঘূর্ণিঝড় ‘মিধিলি’। গত ১৭ নভেম্বর উত্তর-পশ্চিম এবং তৎসংলগ্ন উত্তর-পূর্ব বঙ্গোপসাগরে থাকা ঘূর্ণিঝড় আঘাত হানে বাংলাদেশের খেপুপাড়া উপকূলে৷ ফের বঙ্গোপসাগরে দেখা দিচ্ছে ঘূর্ণিঝড়ের আশঙ্কা৷ তবে বাংলার উপর এই ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাব কতখানি পড়বে, তা এখনও স্পষ্ট নয়৷ তবে নিম্নচাপের জেরে নভেম্বরের শেষ লগ্নে ঝড় বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জে। ঘূর্ণাবর্ত ও নিম্নচাপের প্রভাবে দক্ষিণ আন্দামান সাগর উত্তাল থাকবে। এই সময় ঘণ্টায় ৫০-৫৫ কিমি বেগে বইতে পারে ঝোড়ো হাওয়া৷ আগামী চার-পাঁচদিন পশ্চিমবঙ্গে বৃষ্টির সম্ভাবনা নেই বলেই জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। তবে ভারী বৃষ্টি হতে পারে তামিলনাড়ু, কেরল, অন্ধ্রপ্রদেশে।


হাওয়া অফিস জানাচ্ছে, আগামী কয়েক দিন দক্ষিণবঙ্গের আকাশ পরিষ্কারই থাকবে৷ বঙ্গজুড়ে থাকবে শীতের আমেজ৷ পশ্চিমের জেলাগুলিতে থাকবে বেশ কনকনে ভাব। সব মিলিয়ে শীতের অনুকূল পরিস্থিতি। উইকেন্ডে শীতের আমেজ থাকবে বেশ জোড়াল৷ 


শুক্রবার কলকাতার বেশ কিছু এলাকার তাপমাত্রা ছিল চলতি মরসুমে সবচেয়ে কম। বৃহস্পতিবার কলকাতার তাপমাত্রা ছিল ২০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নীচে। শুক্রবারও ২০ ডিগ্রির নীচেই রয়েছে পারদ। আজ দমদম এবং আলিপুরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৮.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের চেয়ে কম। বর্ধমান এবং বাঁকুড়া-পুরুলিয়ায় পারদ পৌঁছেছে ১৫-১৬ ডিগ্রিতে৷ নদিয়া-মুর্শিদাবাদেও ২০ ডিগ্রির নীচেই রয়েছে তাপমাত্রা। আগামী চার দিনে রাতের তাপমাত্রা ২ থেকে ৩ ডিগ্রি কমতে পারে বলে হাওয়া অফিসের পূর্বাভাস।

দক্ষিণের পাশাপাশি উত্তরবঙ্গেও আবহাওয়া বেশ মনোরম৷ মেঘমুক্ত পরিষ্কার আকাশ৷ বৃষ্টির কোনও সম্ভাবনা নেই৷ আগামী তিন-চার দিনে তাপমাত্রা কমবে উত্তরেও৷ বজায় থাকবে শীতের আমেজ৷ জোড়াল শীত পড়তে আর বেশি দিন অপেক্ষা করতে হবে না বলেই ইঙ্গিত আবহাওয়া দফতরের। আলিপুর আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, আর দু’তিন দিনের মধ্যেই উত্তুরে হিমেল হাওয়া দক্ষিণবঙ্গে ঢুকতে শুরু করবে। ফলে হু হু করেই তাপমাত্রা নামবে।
 

Around The Web

Trending News

You May like