×

শীর্ষ নেতৃত্বকে তুলোধনা করেছিলেন তন্ময়, 'সিদ্ধান্ত' নেওয়া হবে, হুঁশিয়ারি সিপিএমের

 
tamnoy

কলকাতা: ভোটের ফলাফলের দিন এক জনপ্রিয় সংবাদমাধ্যমের আলোচনায় অংশ নিয়ে সিপিএম নেতা তথা উত্তর দমদমের প্রার্থী তন্ময় ভট্টাচার্য নিজের দলের শীর্ষ নেতৃত্বের দিকে আঙুল তুলে চাঁচাছোলা ভাষায় আক্রমণ করেছিলেন। এককথায় দলীয় শীর্ষ নেতৃত্বকে তুলোধনা করেছিলেন তিনি। সেই প্রেক্ষিতে এবার বিবৃতি দিল সিপিএম। জানিয়ে দেওয়া হল, তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অনেকেই অনুমান করেছিলেন, সিপিএম নেতার বক্তব্য শুনে শীর্ষ নেতৃত্ব চরম অসন্তুষ্ট হতে পারে এবং পদক্ষেপ নিতে পারে। আদতে সেই দিকেই এগোচ্ছে বিষয়টি।

সিপিএমের উত্তর ২৪ পরগনা জেলা নেতৃত্ব জানিয়েছে, তন্ময় ভট্টাচার্য আলোচনা সভায় অংশ নিয়ে যা বক্তব্য দিয়েছেন সেটা তাঁর ব্যক্তিগত মত। তবে পার্টি পরিচালনা এবং নেতৃত্বের বিষয়ে তিনি যা বলেছেন সেই বিষয়ে পরবর্তী ক্ষেত্রে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। এই বিবৃতিতে একটা বিষয় পরিষ্কার হয়ে গেল যে সিপিএম শীর্ষ নেতৃত্ব কোনভাবেই তাঁর মন্তব্যকে সমর্থন করেনি এবং যথেষ্ট পরিমাণে অসন্তুষ্ট হয়েছে। ভোটের ফল ঘোষণার দিন চূড়ান্ত ফলাফল জানা না গেলেও ততক্ষণে বোঝা হয়ে গিয়েছিল যে বাম এবং কংগ্রেস কোনও আসন পাবে না। সেই প্রেক্ষিতেই ওই আলোচনা সভায় অংশ নিয়ে সিপিএম নেতা তন্ময় ভট্টাচার্য বলেছিলেন, দলের হারের দায় নিচুতলার কর্মীদের নয় বরং দলের শীর্ষ নেতৃত্বের। লোকসভায় শূন্য হওয়ার পর কেউ দায়ী নেয়নি, বিধানসভায় হারের পর কেউ দায় নেবে না। শুধু স্ট্যালিন কপচালে চলবে না বলে কটাক্ষ করেন সিপিএম নেতা। এর পরেই কার্যত আলোড়ন সৃষ্টি হয় দলের অন্দরে।

এবারের বিধানসভা নির্বাচনে বামফ্রন্ট এবং কংগ্রেস একেবারে মুছে গেছে বিধানসভা থেকে। বিরোধী থাকা তো দূর, একটিও আসন পায়নি তারা। এখন বাংলায় শুধুমাত্র দুটো দলের সরাসরি টক্কর, তৃণমূল কংগ্রেস এবং ভারতীয় জনতা পার্টি। যদিও নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে তৃতীয়বারের জন্য সরকার গড়েছে তৃণমূল কংগ্রেস এবং আজই মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

From around the web

Education

Headlines